kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

নাটোর ও সিরাজগঞ্জ

জিতলেন চার বিদ্রোহী

নাটোর, তাড়াশ ও বেলকুচি (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১২ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জিতলেন চার বিদ্রোহী

নাটোরের ছয়টি উপজেলার মধ্যে চারটিতে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা জিতলেও গুরুদাসপুর ও বাগাতিপাড়ায় নির্বাচিত হয়েছেন বিদ্রোহীরা। এ জন্য দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দল ও একাধিক বিদ্রোহী প্রার্থী থাকাকেই দায়ী করছেন নেতারা।

চেয়ারম্যান পদে গুরুদাসপুরে নির্বাচিত হয়েছেন বিদ্রোহী প্রার্থী আনোয়ার হোসেন। ‘গুরুদাসপুরে আওয়ামী লীগের দুজন বিদ্রোহী প্রার্থী মাঠে থাকায় নৌকার পরাজয় হয়েছে’ বলে মন্তব্য করেছেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শরিফুল ইসলাম রমজান। অন্যদিকে বাগাতিপাড়ায় হারের পেছনের কারণ হিসেবে নাটোর-১ আসনের এমপি শহিদুল ইসলাম বকুলের কোনো সহযোগিতা না পাওয়াকে দায়ী করেছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সেকেন্দার রহমান।

এ উপজেলায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী অহিদুল ইসলাম গকুল জিতেছেন।

অন্যদিকে সিরাজগঞ্জের তাড়াশে  ৩৯ হাজার ৮৭ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মনিরুজ্জামান মনি। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সঞ্জিত কর্মকার পেয়েছেন ২৯ হাজার ৪৪৫ ভোট।

সঞ্জিতের হারের পেছনে দলের ভেতরের কোন্দল দায়ী বলে মন্তব্য করেছেন সিরাজগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুল আজিজ। আর বেলকুচিতে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মো. নুরুল ইসলাম সাজেদুল। এ উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মোহাম্মদ আলী আকন্দের হারের পেছনে বেশ কয়েকটি কারণ কাজ করেছে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা