kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

প্রার্থীর হলফনামায় সনদ জালিয়াতির অভিযোগ

জামালপুর প্রতিনিধি   

৫ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রথম ধাপে অনুষ্ঠেয় জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মাহমুদা খাতুনের বিরুদ্ধে শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ জালিয়াতির অভিযোগ উঠেছে। উপজেলায় তাঁর একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী জেলী আক্তার গত ২৮ ফেব্রুয়ারি জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা রাজীব কুমার সরকারের কাছে এ অভিযোগ করে মাহমুদা খাতুনের প্রার্থিতা বাতিলের আবেদন জানিয়েছেন। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, সরিষাবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহমুদা খাতুন মনোনয়নপত্র দাখিলের সময় তাঁর হলফনামায় শিক্ষাগত যোগ্যতা এইচএসসি বলে উল্লেখ করেন। ১৯৯৪ সালে সরিষাবাড়ী কলেজ থেকে দ্বিতীয় বিভাগে পাস করা তাঁর সনদ অনুযায়ী তাঁর রোল নম্বর ৪৬৪৭৫ এবং নিবন্ধন নম্বর ৩২৪১৮/১৯৯২ উল্লেখ থাকলেও বাস্তবে তিনি ওই কলেজ থেকে ওই বছর পরীক্ষায়ই অংশ নেননি। কলেজ কর্তৃপক্ষ এর সত্যতা নিশ্চিত করেছে। এ প্রসঙ্গে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মোখলেছুর রহমান বলেন, মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ের দিন এ ব্যাপারে কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। হলফনামায় কোনো প্রার্থী তথ্য গোপন বা তথ্য জালিয়াতি করে থাকলে নির্বাচনী আইন অনুযায়ী তাঁকে নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণা করার বিধান রয়েছে। এ অভিযোগ তদন্তের জন্য গত রবিবার সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে পাঠিয়েছেন জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রাজীব কুমার সরকার। তিনি বলেন, অভিযোগ তদন্ত করে দ্রুত প্রতিবেদন পাঠাতে বলা হয়েছে। তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হলে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা