kalerkantho

শনিবার । ১৬ নভেম্বর ২০১৯। ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বিএনপির দুই চেয়ারম্যানের ‘সেক্রিফাইস’

রাঙামাটি প্রতিনিধি   

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে তাঁরা দুজন টানা দ্বিতীয়বারের মতো দায়িত্ব পালন করছেন। তাঁদের মধ্যে একজন তৃতীয় উপজেলা পরিষদে ভাইস চেয়ারম্যান হওয়ার পর চতুর্থ উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান হিসেবে বিজয়ী হয়ে দায়িত্ব পালন করছেন। আরেকজন টানা দুইবার চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। প্রথম জন রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলার দিলদার হোসেন, দ্বিতীয় জন লংগদু উপজেলার তোফাজ্জল হোসেন। দুজনই নিজ নিজ উপজেলা বিএনপির সভাপতি। এবারও নির্বাচনে জয়ের দৌড়ে এগিয়ে ছিলেন তাঁরা। কিন্তু দলীয় সিদ্ধান্তকে প্রাধান্য দিয়ে নির্বাচনে যাচ্ছেন না এ দুই উপজেলা চেয়ারম্যান! বিষয়টিকে দলের জন্য তাঁদের ‘সেক্রিফাইস’ বলছেন এ দুই নেতা।

কাপ্তাইয়ে তৃতীয় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী হয়েছিলেন সেই সময়কার ছাত্রনেতা দিলদার হোসেন। পাঁচ বছর সফলভাবে দায়িত্ব পালনের পর চতুর্থ উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান হিসেবে প্রার্থী হয়ে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হন। উপজেলা চেয়ারম্যান হওয়ার পর তিনি উপজেলা বিএনপির সভাপতিও হন। নির্বাচনের মাঠে ঝানু এই খেলোয়াড় এবারও সম্ভাব্য বিজয়ী প্রার্থী ছিলেন। কিন্তু দলীয় সিদ্ধান্তের কারণে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন তিনি।

দিলদার হোসেন বলেন, ‘আমার বিশ্বাস, এবারের নির্বাচনেও আমিই বিজয়ী হতাম। কিন্তু আমার দল যেহেতু নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে না, তাই আমিও নির্বাচনে যাচ্ছি না।’

তৃতীয় উপজেলা পরিষদ ও চতুর্থ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পর পর দুইবার বিজয়ী হন লংগদু উপজেলা বিএনপির সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন। এ ব্যাপারে জেলা বিএনপির সভাপতি শাহ আলম বলেন, ‘দলের জন্য তাঁদের এই ত্যাগকে আমরা সাধুবাদ জানাই। আগামী দিনে তাঁদের এই দায়িত্বশীল ছাড়কে দল নিশ্চয়ই মনে রাখবে।’

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা