kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৭ রবিউস সানি ১৪৪১     

একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণি

ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা

পপেল চন্দ্র সাহা সহকারী অধ্যাপক আবদুল কাদির মোল্লা সিটি কলেজ, নরসিংদী

২৩ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৯ মিনিটে



ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা

প্রথম পত্র, ষষ্ঠ অধ্যায়

সমবায় সমিতি

জ্ঞানমূলক প্রশ্ন উত্তর

১.         কোন ব্যবসায়ের উদ্দেশ্য সদস্যদের অর্থনৈতিক কল্যাণ?

            উত্তর : সমবায় সমিতি।

২.         একতাই বল—কোন সংগঠনের মূলমন্ত্র?

            উত্তর : সমবায় সংগঠন।

৩.        ঋণদান সমবায় সমিতিতে মুনাফার কত অংশ কুঋণ সঞ্চিতি হিসাবে সংরক্ষণ করতে হয়?

            উত্তর : সর্বোচ্চ ৫০ শতাংশ।

৪.         বার্ডের প্রতিষ্ঠাতা কে?

            উত্তর : ড. আকতার হামিদ খান।

৫.         সমবায় সমিতি কী?

            উত্তর : পারস্পরিক অর্থনৈতিক কল্যাণের জন্য সমশ্রেণির সমমনা কতিপয় মানুষ সমবায় আইনের আওতায় যে প্রতিষ্ঠান গঠন ও পরিচালনা করে, তাকে সমবায় সমিতি বলে।

৬.        সমবায়ে গণতন্ত্রের নীতি কী?

            উত্তর : কারো মতামতের বিশেষ প্রাধান্য নয়, সংখ্যাগরিষ্ঠের মতামত অনুযায়ী কমিটি গঠন ও সিদ্ধান্ত গ্রহণের নীতিকেই সমবায়ে গণতন্ত্রের নীতি বলে।

৭.         উৎপাদক সমবায় সমিতি কাকে বলে?

            উত্তর : সমশ্রেণির উৎপাদকরা স্বীয় অর্থনৈতিক কল্যাণের জন্য সমবায় গঠন করলে, তাকে উৎপাদক সমবায় বলে।

৮.        ভোক্তা সমবায় সমিতি কী?

            উত্তর : ভোক্তারা ক্রয়সুবিধা প্রাপ্তির লক্ষ্যে নিজেদের প্রচেষ্টা ও সহযোগিতায় কোনো সমবায় সমিতি গঠনপূর্বক সমবায় বিপণি স্থাপন ও পরিচালনা করলে তাকে ভোক্তা সমবায় সমিতি বলে।

৯.         ঋণদান সমবায় সমিতি কী?

            উত্তর : ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্পের উৎপাদক, কৃষিজীবী বা স্বল্প আয়ের বিভিন্ন পেশার ব্যক্তিরা প্রয়োজনীয় সময়ে ঋণসুবিধা লাভের জন্য কোনো সমবায় সমিতি স্থাপন করলে তাকে ঋণদান সমবায় সমিতি বলে।

১০. বহুমুখী সমবায় সমিতি কাকে বলে?

            উত্তর : ক্রয়, বিক্রয়, ঋণসহ বিভিন্ন সুবিধাপ্রাপ্তির লক্ষ্যে সমবায় সমিতি গঠন করা হলে তাকে বহুমুখী সমবায় সমিতি বলে।

১১. কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতি কাকে বলে?

            উত্তর : কতিপয় প্রাথমিক সমবায় সমিতি একত্র হয়ে কোনো এলাকায় সমবায় প্রতিষ্ঠা করলে, তাকে কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতি বলে।

১২. সমবায় সমিতির উপবিধি কী?

            উত্তর : যে দলিলে সমবায় সমিতির অভ্যন্তরীণ ও বাহ্যিক কার্যক্রম পরিচালনা ও নিয়ন্ত্রণ সংক্রান্ত নিয়ম-নীতি লেখা থাকে, তাকে সমবায় সমিতির উপবিধি বলে।

১৩. সংরক্ষিত তহবিল কী?

            উত্তর : সমবায়ের আর্থিক সামর্থ্য তথা বিনিয়োগ বৃদ্ধির জন্য অর্জিত মুনাফার পুরো অংশ শেয়ারহোল্ডারদের মধ্যে বিতরণ না করে অংশবিশেষ যে তহবিলে স্থানান্তর করা হয়, তাকে সমবায়ের সংরক্ষিত তহবিল বলে।

 

অনুধাবনমূলক প্রশ্ন উত্তর

১.         কোন ব্যবসায়ের উদ্দেশ্য সদস্যদের আর্থ-সামাজিক কল্যাণ? ব্যাখ্যা করো।

            উত্তর : সমবায় সংগঠনের উদ্দেশ্য হলো সদস্যদের আর্থ-সামাজিক কল্যাণ।

            নিজেদের আর্থ-সামাজিক কল্যাণ লাভের জন্য সম্মিলিত প্রচেষ্টায় সমবায় আইনের আওতায় গড়ে তোলা সংগঠনকেই সমবায় সংগঠন বলে। তুলনামূলকভাবে কম বিত্তসম্পন্ন সমশ্রেণি বা পেশার মানুষ নিজেদের স্বার্থে সংঘবদ্ধ হয়ে সম-অধিকারের ভিত্তিতে সমবায় আইনের আওতায় এ ধরনের সংগঠন গড়ে তোলে।

            তাই এর উদ্দেশ্যই হলো সদস্যদের আর্থ-সামাজিক কল্যাণ।

২.         সমবায় ব্যবসায় থেকে ভিন্নতর কেন?

            উত্তর : পারস্পরিক অর্থনৈতিক কল্যাণের জন্য সমশ্রেণির সমমনা কতিপয় মানুষ সমবায় আইনের আওতায় যে প্রতিষ্ঠান গঠন ও পরিচালনা করে, তাকে সমবায় সমিতি বলে।

            সমবায় স্বল্প বিত্তসম্পন্ন মানুষের সংগঠন। এর উদ্দেশ্য হলো সদস্যদের আর্থিক কল্যাণ নিশ্চিত করা। একতাই বল—এরূপ সংগঠনের মূলমন্ত্র। এরূপ ব্যবসায়ের সফলতা অর্জনে কতিপয় আদর্শ বা মূলনীতি অনুসরণ করতে হয়; যার কোনোটিই একমালিকানা, অংশীদারি বা যৌথ মূলধনী ব্যবসায়ের সঙ্গে মেলে না। তাই সমবায় সমিতি অন্য ব্যবসায় থেকে ভিন্নতর।

৩.        ঐক্যই শক্তি—সমবায়ের প্রধান মূলনীতি কেন?

            উত্তর : ঐক্যবদ্ধ থাকার ওপরই সমবায়ীদের সফলতা নির্ভর করে বিধায় ‘ঐক্যই শক্তি’ সমবায়ের প্রধান মূলনীতি।

            সবাই মিলে একভাবে এক মনে ও একত্রে চলার দৃঢ় অভিব্যক্তি, প্রবণতা ও অবস্থাকে একতা বলে। ঐক্যবদ্ধভাবে এই চলার ফলে যে শক্তির সৃষ্টি হয়, তা-ই একতাই বল নামে অভিহিত। প্রত্যেক সমবায়ীকে বুঝতে হয় যে ঐক্যই তাদের শক্তি। তাই এটি বিনষ্ট হয় এমন কোনো কাজ থেকে সদস্যদের বিরত থাকা আবশ্যক। সে কারণে একতাই বল বা ‘ঐক্যই শক্তি’ সমবায়ের প্রধান মূলনীতি।

৪.         সমবায় সমিতিতে মুনাফা কিভাবে বণ্টিত হয়?

            উত্তর : পারস্পরিক অর্থনৈতিক কল্যাণের জন্য সমশ্রেণির সমমনা কতিপয় মানুষ সমবায় আইনের আওতায় যে প্রতিষ্ঠান গঠন ও পরিচালনা করে, তাকে সমবায় সমিতি বলে। সমবায়ের অর্জিত মুনাফার সবটুকু সদস্যদের মধ্যে বণ্টিত হয় না। বাধ্যতামূলকভাবে এর ন্যূনতম ১৫ শতাংশ সংরক্ষিত তহবিলে এবং ৩ শতাংশ সমবায় উন্নয়ন তহবিলে সংরক্ষণ করতে হয়। অবশ্য সমবায়ের উপবিধিতে উল্লেখ থাকলে অন্যান্য উদ্দেশ্যে অর্জিত মুনাফার সর্বাধিক ১০ শতাংশ সংরক্ষণ করা যায়। বাকি অংশ সাধারণ সভার সিদ্ধান্তক্রমে শেয়ার গ্রহীতাদের মধ্যে বণ্টন করা হয়।

৫.         সাংগঠনিক স্তর বিচারে কোন ধরনের সমবায় সমিতির সংখ্যা সর্বাধিক এবং কেন?

            উত্তর : সাংগঠনিক স্তর বিবেচনায় নিচের স্তরের সমবায়ীরা যে সমবায় প্রতিষ্ঠা ও পরিচালনা করে, তাকে প্রাথমিক সমবায় সমিতি বলে।

            সমবায় সমিতি বলতে সাধারণভাবে প্রাথমিক সমবায় সমিতিকে বোঝায়। কারণ শহরে, গ্রামেগঞ্জে সর্বত্র বিভিন্ন পেশা ও শ্রেণির মানুষ নিজেরা মিলে এ ধরনের সমবায় সমিতি গঠন ও পরিচালনা করে; যা নিয়ন্ত্রণের জন্য ক্ষেত্রবিশেষে কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতি গঠন করা হলেও তার সংখ্যা নগণ্য। তাই সব দিক বিচারে সর্বত্র প্রাথমিক সমবায় সমিতির সংখ্যাই সর্বাধিক।

৬.        কোন দলিলকে সমবায়ের গঠনতন্ত্র বলে? ধারণা দাও।

            উত্তর : সমবায়ের উপবিধিকে সমবায়ের গঠনতন্ত্র বলে।

            যে দলিলে সমবায় সমিতির অভ্যন্তরীণ ও বাহ্যিক কার্যক্রম পরিচালনা ও নিয়ন্ত্রণসংক্রান্ত নিয়ম-নীতি লেখা থাকে, তাকে সমবায় সমিতির উপবিধি বলে। এর ওপর ভিত্তি করে সমবায় সমিতি গঠিত ও পরিচালিত হয় বিধায় একে সমবায় সমিতির গঠনতন্ত্রও বলা হয়।

 

বহু নির্বাচনী প্রশ্ন উত্তর

১.         বাংলাদেশে কত সালের সমবায় আইন চালু রয়েছে?

            ক.  ১৯৮৪ সালে খ. ১৯৮৭ সালে গ. ২০০১ সালে ঘ. ২০০৪ সালে

২. সমবায় সংগঠনের মুনাফা বণ্টনে ন্যূনতম শতকরা কতভাগ অর্থ সংরক্ষিত তহবিলে জমা রাখাতে হয়?

            ক.  ১৫% খ. ১৮% গ. ২০% ঘ. ২২%

৩.        সমবায় সমিতি কখন আইনগত ভিত্তি লাভ করে?

            ক. উপবিধি তৈরির পর             খ. নিবন্ধনের পর

            গ. পরিচালক নিয়োগের পর      ঘ. কার্যারম্ভের পর

৪.         সমবায় অর্থ হলো—

            i. সম্মিলিত প্রচেষ্টা রর. সম্মিলিত উদ্যোগ ররর. আপনার তরে সকলে

নিচের কোনটি সঠিক?

            ক. i      খ. i ও ii            গ. i ও iii  ঘ. i, ii ও iii

৫.         সমবায় সংগঠনে ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য সংখ্যা থাকে কতজন?

  ক.  কমপক্ষে ৪ জন ও সর্বোচ্চ ৬ জন খ. কমপক্ষে ৪ জন ও সর্বোচ্চ ৫ জন গ. কমপক্ষে ৫ জন ও সর্বোচ্চ ১০ জন ঘ. কমপক্ষে ৬ জন ও সর্বোচ্চ ১২ জন

৬.        মধ্যস্বত্বভোগীর শোষণ থেকে রক্ষা পেতে কোন ধরনের ব্যবসায়ে সংগঠন অধিক উপযোগী?

            ক. একমালিকানা                      খ. সমবায় সমিতি

            গ. অংশীদারি ব্যবসায়    ঘ. যৌথ মূলধনী

৭.         পৃথিবীর কোন দেশে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রথম সমবায় সমিতি গঠিত হয়?

            ক.  জাপান        খ. যুক্তরাজ্য    গ. যুক্তরাষ্ট্র       ঘ. চীন

৮.        সমবায়ের মূলনীতির মধ্যে পড়ে—

            i . সাম্য            ii. একতা             iii. গণতন্ত্র

নিচের কোনটি সঠিক?

            ক. i                  খ. i ও ii                 গ. i ও iii      ঘ. i, ii ও iii

৯.         সমবায় একটা ভিন্নধর্মী প্রতিষ্ঠান। এর পেছনে মুখ্য কারণ কোনটি?

            ক. কৃত্রিম ও স্বাধীনসত্তা             খ. নিজস্ব ব্যবস্থাপনা

            গ. উদ্দেশ্যের ভিন্নতা     ঘ. ঝুঁকিমুক্ত প্রতিষ্ঠান

১০. বাংলাদেশে সমবায় সংগঠন গড়ে আমরা নিচের কোন উদ্দেশ্য অর্জন করতে পারি?

            ক. কম বিত্তসম্পন্ন মানুষদের অধিক মুনাফা দেওয়া

            খ. দক্ষ উদ্যোক্তা শ্রেণি গড়ে তোলা

            গ. স্বল্পবিত্তসম্পন্নদের ঐক্যবদ্ধ ও সচেতন করা

            ঘ. বৃহদায়তন ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করা

১১.       ডাক্তাররা তাঁদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে একত্র হয়ে একটি সমিতি গঠন করেন। তাঁদের এই সমিতি কোন ধরনের?

            ক. মালিক  খ. ভোক্তা   গ. পেশাজীবী    ঘ. শ্রমজীবী      

১২. বাংলাদেশে সমবায়ের সমস্যা দূরীকরণে করণীয় হলো—

            i. প্রশিক্ষণ কর্মসূচি জোরদার

            ii. দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতি রোধ

            iii. সরকারি সহযোগিতা জোরদার

            নিচের কোনটি সঠিক?

            ক. i         খ. i ও ii     গ. i ও iii     ঘ. i, ii ও iii

১৩. চাঁদপুরের পদ্মা নদীর তীরে বসবাসরত জেলেরা বহুমুখী সমবায় সমিতি করে বছরে ২০,০০০ টাকা মুনাফা করেছে। তারা উন্নয়ন তহবিলে কত জমা রাখবে?

            ক. ৬০০ টাকা খ. ১২০০ টাকা গ. ৩,০০০ টাকা ঘ. ৩,৬০০ টাকা            

১৪. ধনী-দরিদ্র্যের বৈষম্য বেড়ে যাওয়ায় সমগ্র বিশ্বে কিসের আন্দোলনের সূচনা ঘটে?

            ক. কম্পানি   খ. সমবায়            গ. একমালিকানা          ঘ. অংশীদারি

            নিচের উদ্দীপকটি পড়ে ১৫ ও ১৬ নম্বর প্রশ্নের উত্তর দাও :

            সিলেট মণিপুরি পল্লীর তাঁতিরা মিলে একটি সমবায় সমিতি গঠন করে। সমিতির মূল দলিলে বলা আছে, সদস্যদের স্বার্থে সমিতি উপকরণাদি ক্রয়, উৎপাদিত সামগ্রী বিক্রয় এবং সমিতি থেকে ঋণ সুবিধার ব্যবস্থা করবে। প্রথমে উৎসাহ থাকলেও সমিতি চালাতে সদস্যদের অনীহা দেখা যায়।

১৫. উদ্দীপকের তাঁতিদের দ্বারা গঠিত সমিতিটি কোন শ্রেণির সমিতি?

            ক. ক্রয়             খ. বিক্রয়          গ. উৎপাদক      ঘ. বহুমুখী

১৬. সদস্যদের সমিতি চালাতে অনীহা দেখানোর কারণ হতে পারে—

            i. পরিচালকদের দক্ষতার অভাব

            ii. স্বজনপ্রীতি

            iii. পারস্পরিক সমন্বয়হীনতা

            নিচের কোনটি সঠিক?

 ক) i  খ) i ও ii  গ) i ও iii  ঘ) i, ii ও iii

 

(আগামী সংখ্যায় থাকছে বিষয়ের ওপর সৃজনশীল প্রশ্ন উত্তর)

 

উত্তর : ১ গ, ২ ক, ৩ খ, ৪ ক, ৫ ঘ, ৬ খ, ৭ গ, ৮ ঘ, ৯ গ, ১০ গ, ১১ গ, ১২ ঘ, ১৩ ক, ১৪ খ, ১৫ ঘ, ১৬ ঘ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা