kalerkantho

শনিবার । ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৬ রবিউস সানি               

এসএসসি ২০২০

ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং মডেল প্রশ্ন

মো. শামীম হাওলাদার, সহকারী শিক্ষক শহীদ আরজু মনি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, বরিশাল

১৬ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৯ মিনিটে



ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং মডেল প্রশ্ন

বাণিজ্য বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং। আজ থাকল সৃজনশীল অংশের একটি মডেল প্রশ্ন।

 

ক-বিভাগ : ফিন্যান্স

১। পলাশ ও জাকির দুই বন্ধু। পলাশ ব্যাংকে  চাকরি করে এবং জাকির ৫ বছর বিদেশে কাজ করার পর দেশে ফিরেছে। তাদের জমানো কিছু টাকা তারা বিভিন্ন লাভজনক খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী। পলাশ চায় নিশ্চিন্ত বিনিয়োগ এবং জাকির চায় দ্রুত অধিক মুনাফা অর্জন করতে।

ক) বোনাস শেয়ার কী?

খ) সঞ্চিতি তহবিল বলতে কী বোঝো?

গ) জনাব পলাশের জন্য উপযুক্ত বিনিয়োগের ক্ষেত্র চিহ্নিতপূর্বক ব্যাখ্যা করো।

ঘ) জনাব জাকিরের কোন ক্ষেত্রে বিনিয়োগ করা সঠিক হবে এবং কেন? যুক্তিসহ বিশ্লেষণ করো।

২। শায়ান ট্রেডিং কম্পানি বছর শেষে ১২% হারে লভ্যাংশ প্রদান করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে এবং পরবর্তী বছরগুলোতে তা ১০% হারে বৃদ্ধি পাবে বলে কম্পানি প্রত্যাশা করছে। কম্পানির বর্তমানে শেয়ারের বাজারমূল্য ২৫০ টাকা। 

ক) কাম্য ঋণনীতি কী?

খ) স্টক লভ্যাংশ বলতে কী বোঝো? ব্যাখ্যা করো।

গ) শায়ান ট্রেডিং কম্পানির মূলধন ব্যয় নির্ণয় করো।

ঘ) শূন্য লভ্যাংশ বৃদ্ধি পদ্ধতিতে ১৫% হারে লভ্যাংশ দিলে কি কম্পানির মূলধন ব্যয়ে কোনো পরিবর্তন হবে? উত্তরের সপক্ষে যুক্তি দাও।

 

৩। জনাব শহিদুল ৪ বছর পর ২,০০,০০০ টাকা পাওয়ার আশায় বর্তমানে কিছু টাকা ব্যাংকে জমা রাখতে চান। ক ব্যাংক তাঁকে ১০% হারে এবং খ ব্যাংক ৯% হারে ত্রৈমাসিক চক্রবৃদ্ধি সুদ প্রদানের প্রস্তাব দিয়েছে।

ক) প্রকৃত সুদের হার নির্ণয়ের সূত্র কী?

খ) অর্থের সময়মূল্য বলতে কী বোঝো?

গ) ৪ বছর পর ২,০০,০০০ টাকা পেতে হলে তাঁকে ক ব্যাংকে কত টাকা রাখতে হবে?

ঘ) জনাব শহিদুলের জন্য কোন ব্যাংকে বিনিয়োগ লাভজনক এবং কেন? উদ্দীপকের আলোকে ব্যাখ্যা করো।

 

৪। তিনজন শিক্ষার্থী নিজেদের স্বল্প অর্থায়নে টিম ওয়ান নামে একটি প্রতিষ্ঠান গঠন করলেন। ধীরে ধীরে প্রতিষ্ঠানটি অত্যন্ত লাভজনক হওয়ায় অধিক মূলধন সংগ্রহের জন্য উদ্যোক্তারা বাজারে শেয়ার বিক্রির সিদ্ধান্ত নিলেন।

ক) স্বল্পমেয়াদি অর্থায়নের প্রধান উৎস কোনটি?

খ) বিশেষায়িত আর্থিক প্রতিষ্ঠান বলতে কী বোঝো?

গ) টিম ওয়ানের অর্থায়নের প্রথম ধাপ কোন ধরনের তহবিল? ব্যাখ্যা করো।

ঘ) টিম ওয়ানের বাজারে শেয়ার ছাড়ার সিদ্ধান্ত কতটা যৌক্তিক বলে তুমি মনে করো? উত্তরের সপক্ষে যথাযথ যুক্তি দাও।

 

৫। ফারহান গ্রুপের দুটি প্রকল্পে ৫ বছরের জন্য বিনিয়োগ করে, যার প্রাপ্ত আয় হার নিম্নে দেওয়া হলো—

প্রকল্পের নাম          আয়ের হার (%)

বছর ১, বছর ২, বছর ৩,            বছর ৪, বছর ৫

নিলাদ্রি ৪০       ৩৫ ২০ -৫        ১০

হিমাচল ২০ ২৫ ৩০ ১৫ ১০

 

ক) আদর্শ বিচ্যুতি কী?

খ) আর্থিক ঝুঁকি ও ব্যাবসায়িক ঝুঁকির পার্থক্য দেখাও।

গ) নিলাদ্রি প্রকল্পের আদর্শ বিচ্যুতি নির্ণয় করো।

ঘ) প্রকল্প দুটির মধ্যে কোন প্রকল্পটি বন্ধ করে দেওয়া উচিত? বিশ্লেষণপূর্বক মতামত দাও।

 

৬। জনাব হাসিব একজন সমাজসেবক। অবসরের পর পেনশনের অর্থ দিয়ে এতিম শিশুদের জন্য একটি স্কুল প্রতিষ্ঠা করেন। বিনা মূল্যে শিশুদের খাওয়া ও পড়াশোনার ব্যবস্থা করতে গিয়ে তিনি আর্থিক সংকটের সম্মুখীন হন। অর্থসংস্থানের জন্য তিনি বিভিন্ন উৎসর আশ্রয় নিলেন। বর্তমানে তাঁর প্রতিষ্ঠানটি সঠিকভাবে পরিচালিত হচ্ছে।

ক) তারল্য কী?

খ) অর্থায়ন সিদ্ধান্ত কিভাবে গৃহীত হয়? ব্যাখ্যা করো।

গ) হাসিব সাহেব কোন ধরনের প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে জড়িত? বর্ণনা করো।

ঘ) তিনি কিভাবে স্কুলের অর্থায়ন করবেন তা বিশ্লেষণ করো।

 

খ-বিভাগ : ব্যাংকিং

৭। একসময়ে মানুষ বিনিময় প্রথার মাধ্যমে তাদের অভাব পূরণ করত। নানা সমস্যার ফলস্বরূপ শুরু হয় মুদ্রার প্রচলন এবং ব্যবসা-বাণিজ্যে তার ইতিবাচক প্রভাব পরিলক্ষিত হয়। ধীরে ধীরে গড়ে উৎপত্তি হয় ব্যাংক ব্যবস্থার।

ক) আধুনিক অর্থনীতির জীবনীশক্তি কী?

খ) সংরক্ষিত আয়ের সুযোগ ব্যয় বলতে কী বোঝায়?

গ) উদ্দীপকের আলোকে মুদ্রার আবির্ভাবের প্রেক্ষাপট ব্যাখ্যা করো।

ঘ) ‘মুদ্রা ও ব্যাংক ব্যবস্থা একে অন্যের পরিপূরক’ উক্তিটির যথার্থতা বিশ্লেষণ করো।

 

৮। জনাব মনিরুজ্জামান একটি ব্যাংকের এমডি। তাঁর ব্যাংক আমানত গ্রহণ এবং ঋণ প্রদানের পাশাপাশি নানা সমাজসেবামূলক কাজ করছে। ব্যাংকটি প্রথাগত পদ্ধতির বাইরে গিয়ে মফস্বল এলাকায় ব্যাংকের নতুন শাখা খুলছে। ব্যাংকটি নতুন হওয়ায় তিনি তাঁর কর্মীদের গ্রাহকের আস্থা অর্জনে বিশেষ নজর রাখতে পরামর্শ দিয়েছেন। 

ক) ব্যাংকিং কী?

খ) ঋণদান ব্যাংকিং ব্যবসায়ের কোন নীতির অন্তর্ভুক্ত? ব্যাখ্যা করো।

গ) মফস্বল অঞ্চলে ব্যাংকের শাখা খোলার ব্যাংকিং উদ্দেশ্য এবং অর্থনীতিতে এর প্রভাব ব্যাখ্যা করো।  

ঘ) ‘আস্থা ও বিশ্বাস ব্যাংকিং ব্যবসায়ে উন্নতির প্রধান নিয়ামক’—উদ্দীপকের আলোকে উক্তিটি মূল্যায়ন করো।

 

৯। আধুনিক ব্যাংক লিমিটেড ১০০০ কোটি টাকার একটি বিশেষ তহবিল গঠন করেছে। ব্যাংকটি দেশের ব্যবসা-বাণিজ্য, শিল্প, সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়নে বিভিন্ন সেবা দিয়ে অর্থ উপার্জন করে। ব্যাংকটির পাটুয়াটুলী শাখার একজন গ্রাহক আফসান আহমেদ ব্যাংকটির মাধ্যমে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য পরিচালনা করেন। 

ক) নিকাশঘর কী?

খ) ব্যাংক কিভাবে বিনিময়ের মাধ্যম সৃষ্টি করে?  

গ) আধুনিক ব্যাংক লিমিটেড আহসান আহমেদের ব্যবসায়ে কিভাবে সহায়তা করে? ব্যাখ্যা করো।

ঘ) ‘ব্যাংকটির তহবিলের মূল উৎস জনগণের আমানত’—উক্তিটির যথার্থতা মূল্যায়ন করো।

 

১০। সুহানা নবম শ্রেণির ছাত্রী। অষ্টম শ্রেণিতে সে বৃত্তি পেয়েছে। তার বাবা একজন ব্যবসায়ী এবং প্রতিদিন তাকে টিফিন ও যাতায়াত বাবদ ১০০ টাকা দেন। সুহানা চায় তার বৃত্তি ও টিফিনের কিছু টাকা সঞ্চয় করতে। ব্যাংকে ম্যানেজারের কাছে গেলে সে তাকে বিভিন্ন হিসাব সম্পর্কে আলোচনা করে স্কুল ব্যাংকিংয়ের জন্য সঞ্চয়ী হিসাব খোলার পরামর্শ দেন।

ক) ইন্টারনেট ব্যাংকিং কী?

খ) মুদ্রাবাজার বলতে কী বোঝো?

গ) ব্যাংক ম্যানেজারের বিভিন্ন হিসাব সম্পর্কে আলোচনা ও হিসাব খোলার পরামর্শের কারণ ব্যাখ্যা করো।

ঘ) সুহানার বাবার জন্য উপযোগী হিসাবের বিশেষ সুবিধা উল্লেখপূর্বক বিশ্লেষণ করো।

 

১১। ক ব্যাংকটি দেশের ব্যাংকিং ব্যবস্থার শীর্ষবিন্দু, ব্যাংক ব্যবসায়ের মধ্যমণি। ব্যাংকটি দেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকসমূহকে ঋণ নিয়ন্ত্রণ এবং নানা ধরনের পরামর্শ দিয়ে থাকে। ব্যাংকটি দেশের অর্থ ও দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল রাখতে ভূমিকা পালন করে।

ক) বিধিবদ্ধ রিজার্ভ কী?

খ) মুদ্রানীতি প্রণয়নের উদ্দেশ্য ব্যাখ্যা করো।

গ) কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ঋণ নিয়ন্ত্রণ কৌশল ব্যাখ্যা করো।

ঘ)  উদ্দীপকের শেষ লাইনটি বিশ্লেষণ কর।

 

আরেকবার চোখ বোলাও

ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং দুটি অংশে বিভক্ত। ফিন্যান্স অংশ থেকে ন্যূনতম ৩টি এবং ব্যাংকিং অংশ থেকে ৩টিসহ মোট ৭টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। মনে রাখতে হবে, ফিন্যান্স অংশ থেকে গাণিতিক সমস্যার প্রশ্ন থাকে ন্যূনতম ২-৩টি। এ অংশে নম্বর পাওয়া খুব সহজ। আবার সামান্য ভুলে নম্বর কমে যাওয়াও সহজ।

ফিন্যান্স মূলত তহবিল ব্যবস্থাপনা নিয়ে কাজ করে। তাই প্রথম অধ্যায় থেকে শিক্ষার্থীদের অর্থায়ন বা তহবিল ব্যবস্থাপনা, ব্যাবসায়িক অর্থায়ন, অর্থায়নের গুরুত্ব ভালোভাবে দেখতে হবে। সবচেয়ে জোর দিতে হবে অর্থায়নের নীতি ও শ্রেণিবিভাগে। পাশাপাশি দেখতে হবে ব্যবস্থাপকের কার্যাবলি। তবে বহু নির্বাচনী প্রশ্নের জন্য ক্রমবিকাশ অংশ খুব গুরুত্বপূর্ণ।

দ্বিতীয় অধ্যায় থেকে অর্থায়নের উৎসর চার্টটি মুখস্থ রাখতে হবে। বিভিন্ন মেয়াদি অর্থায়নের তুলনামূলক সুবিধা-অসুবিধা ভালো করে দেখতে হবে। বিকল্প অর্থায়নের ঝুঁকি ও উৎসর খরচ দেখতে হবে। অর্থের সময়মূল্য থেকে মূলত গাণিতিক প্রশ্নই বেশি আসে। তবে বিভিন্ন সূত্র এবং তাদের সংজ্ঞা সুস্পষ্টভাবে জানতে হবে। অর্থের ভবিষ্যৎ মূল্য, চক্রবৃদ্ধির মাধ্যমে ভবিষ্যৎ মূল্য নির্ধারণ, প্রকৃত সুদের হার এবং সঞ্চয় স্কিমের ভবিষ্যৎ মূল্য নির্ণয় বেশি চর্চা করতে হবে। সুযোগ ব্যয়ের ধারণা রাখতে হবে।

ঝুঁকি ও অনিশ্চয়তা অধ্যায় থেকে ঝুঁকি ও অনিশ্চয়তার মধ্যে পার্থক্যকরণ, বিভিন্ন প্রকার ঝুঁকির শ্রেণিবিন্যাস অংশ দেখবে। গাণিতিক অংশের জন্য আদর্শ বিচ্যুতি নির্ণয় ও সিদ্ধান্ত গ্রহণের বিষয়টি  নিয়মিত চর্চা করতে হবে। পঞ্চম অধ্যায়েও গাণিতিক ও থিওরি প্রশ্নের জন্য মূলধন বাজেটিং পদ্ধতিসমূহ এবং সিদ্ধান্তনীতি, সীমাবদ্ধতা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। মূলধন ব্যয় নির্ণয় পদ্ধতিসমূহ, কাম্য ঋণ নীতি অংশ দেখবে। শেয়ার বন্ড ডিবেঞ্চার অধ্যায় থেকে বিভিন্ন শেয়ারের শ্রেণিবিভাগ, তাদের তুলনামূলক পার্থক্য ও বিনিয়োগের সুবিধা-অসুবিধা, শেয়ার বিনিয়োগের পদ্ধতি ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ অংশ দেখবে।

ব্যাংকিং অংশ শুরু হয় মূলত মুদ্রা, ব্যাংক ও ব্যাংকিং অধ্যায় থেকে। এ অংশে তাত্ত্বিক প্রশ্ন বেশি আসে। বহু নির্বাচনী অংশের জন্য মুদ্রা, ব্যাংক এবং তার ক্রমবিকাশের ইতিহাস গুরুত্বপূর্ণ। তাত্ত্বিক প্রশ্নের জন্য বিনিময় প্রথা, ব্যাংক, ব্যাংকিং ও ব্যাংকারের সম্পর্ক অংশটি দেখবে। নবম অধ্যায়ে ব্যাংকিং ব্যবসায়ের উদ্দেশ্য ও মূলনীতিগুলো ব্যাখ্যাসহ দেখবে। ব্যাংকের শ্রেণিবিভাগ অংশে এসব ব্যাংকের সব যদিও আমাদের দেশে নেই, তবে ব্যাংকের এসব শ্রেণিবিভাগ, উদাহরণসহ বারবার দেখবে; বিশেষ করে বাজার নিয়ন্ত্রিত ব্যাংক, ইসলামী ব্যাংকিংয়ের নানা ধরনের ছোট টার্ম দেখতে হবে।

বাণিজ্যিক ব্যাংক এবং তার পরিচিতি অধ্যায়ে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ তাদের কার্যাবলি ও আয়-ব্যায়ের খাতসমূহ। জ্ঞান ও অনুধাবনমূলক প্রশ্নের জন্য এলসি, অছি পরিষদ, পরিশোধিত মূলধন, সংরক্ষিত তহবিল অংশ দেখতে হবে। ব্যাংকের আমানত অধ্যায়ে বিভিন্ন প্রকার আমানত, ব্যাংক হিসাবসমূহ ও বৈশিষ্ট্য ভালো করে জানবে; বিশেষ করে বীমা সঞ্চয়ী হিসাব, রেসিডেন্ট ফরেন কারেন্সি ডিপোজিট হিসাব, ব্যাংক হিসাব খোলার পদ্ধতি, বন্ধ করার পদ্ধতি পড়বে।

ইলেকট্রনিক ব্যাংকিংয়ের বিভিন্ন পণ্য ও সেবা (এটিএম, ডেবিট কার্ড, ক্রেডিট কার্ড, ইন্টারনেট ব্যাংকিং) সম্পর্কে জানতে হবে। দ্বাদশ অধ্যায় থেকে ব্যাংকার গ্রাহক সম্পর্কের ধরন, বিভিন্ন প্রকার চেক, সেগুলোর বৈশিষ্ট্য, চেকের নমুনা, ব্যাংক হিসাবের গোপনীয়তা রক্ষার বিষয়গুলো ভালো করে দেখতে হবে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ হচ্ছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গঠন ও ব্যবস্থাপনা, উদ্দেশ্য, কার্যাবলি, কেন্দ্রীয় ও বাণিজ্যিক ব্যাংকের সম্পর্ক ভালো করে পড়বে। নিকাশঘর, বিনিময় মাধ্যম সৃষ্টি, ঋণ নিয়ন্ত্রণ, বিধিবদ্ধ রিজার্ভ গুরুত্ব সহকারে পড়বে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা