kalerkantho

বাগেরহাটে আরো চার ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

বাগেরহাট প্রতিনিধি   

১০ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাগেরহাটে আরো চার ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

খুলনা বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন মিয়া গত বৃহস্পতিবার ডেঙ্গু রোগীদের দেখতে ও তাদের খোঁজখবর নিতে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে আসেন। ছবি : কালের কণ্ঠ

বাগেরহাটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো চারজন ডেঙ্গু রোগীকে শনাক্ত করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। এ নিয়ে গতকাল শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত জেলায় সরকারি হিসাবে ৪৩ জন ডেঙ্গু রোগীর সন্ধান পাওয়া গেছে। আক্রান্তদের বেশির ভাগই চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে গেছে। তবে ৯ জন এখনো সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি আছে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় খুলনা বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন মিয়া ডেঙ্গু রোগীদের দেখতে ও তাদের চিকিৎসার খোঁজখবর নিতে সদর হাসপাতালে আসেন। এ সময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘খুলনা বিভাগের ১০ জেলায় এ পর্যন্ত ৪৫০ জন ডেঙ্গু রোগীর সন্ধান পাওয়া গেছে। তাদের মধ্যে তিনজন মারা গেছে। ইতিমধ্যে সরকার সব সিভিল সার্জনকে ডেঙ্গুর কিট সংগ্রহ করতে ১০ লাখ ও উপজেলা পর্যায়ে দুই লাখ টাকা বরাদ্দ দিয়েছে।’ বিভাগীয় কমিশনার লোকমান আরো বলেন, ডেঙ্গুর ডিম থেকে লার্ভা তৈরি হওয়ার আগেই ধ্বংস করতে হবে। কোনো অবস্থায়ই লার্ভা থেকে ডেঙ্গুতে পরিণত হতে দেওয়া যাবে না। জেলা ও উপজেলায় এখন ডেঙ্গু রোগী পাওয়া যাচ্ছে। এসব রোগীর আশপাশে ডেঙ্গু অথবা লার্ভা আছে।’ তাই ডেঙ্গুর প্রজননক্ষেত্র চিহ্নিত করে ধ্বংস করার প্রতি জোর দেন তিনি। এ সময় তাঁর সঙ্গে জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক কামরুল ইসলামসহ হাসপাতালের চিকিৎসকরা উপস্থিত ছিলেন। 

অন্যদিকে জেলা সিভিল সার্জন ডা. জি কে এম শামসুজ্জামান জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় আরো চারজন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এ জেলায় ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ৩৯ জন থাকলেও গতকাল তা বেড়ে ৪৩ জনে দাঁড়িয়েছে। সদর হাসপাতাল ও বিভিন্ন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পর তাদের ডেঙ্গু রোগী হিসেবে শনাক্ত করা হয়। আক্রান্তদের মধ্যে সদর হাসপাতালে পাঁচজন, ফকিরহাটে তিনজন ও শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে একজন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসা নিচ্ছে।

মন্তব্য