kalerkantho

বুধবার । ২৩ অক্টোবর ২০১৯। ৭ কাতির্ক ১৪২৬। ২৩ সফর ১৪৪১                 

পরীক্ষার জন্য রোগীকে পাঠানো হচ্ছে ক্লিনিকে

ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

৯ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ময়মনসিংহের ত্রিশালেও ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। এরই মধ্যে তিনজন ডেঙ্গু আক্রান্ত হওয়ার তথ্য জানা গেছে। ফলে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে সাধারণ মানুষ। তবে অদৃশ্য কারণে ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডেঙ্গু শনাক্তের পর্যাপ্ত কিট থাকা সত্ত্বেও রোগীদের পাঠানো হচ্ছে পাশের ক্লিনিকে। ফলে ডেঙ্গু পরীক্ষায় অতিরিক্ত অর্থ খরচ হচ্ছে রোগীদের।

ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব দেখা দেওয়ার পর স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সব জেলা ও উপজেলায় ডেঙ্গু শনাক্তের কিট পাঠিয়েছে। সপ্তাহখানেক আগে ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেও পাঠানো হয়েছে প্রাথমিক পরীক্ষার জন্য ৫০টি কিট।

হাসপাতালের রেজিস্টার সূত্রে জানা যায়, গত এক সপ্তাহে জ্বরে আক্রান্ত শতাধিক রোগী ডেঙ্গুর শঙ্কা নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসে। গতকাল বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ওই হাসপাতালের চিকিৎসকরা টাইফয়েড, ম্যালেরিয়া, কালাজ্বরসহ অন্যান্য পরীক্ষা করেছে। যাদের টাইফয়েড, ম্যালেরিয়া কিংবা কালাজ্বর ধরা পড়ছে না, তাদের ডেঙ্গু পরীক্ষা করতে প্রাইভেট ক্লিনিকগুলোতে পাঠানো হচ্ছে। হাসপাতালে কিট থাকার পরও ওই সব রোগীকে কেন বাইরে পাঠানো হচ্ছে তা বোধগম্য নয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. হাবিবুর রহমান বলেন, ‘ডেঙ্গু শনাক্তে প্রাথমিক পর্যায়ে যে এনএসওয়ান পরীক্ষার দরকার তার কোনো ব্যবস্থা আমাদের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেই। এ কারণেই তাদের অন্যত্র পাঠানো হচ্ছে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা