kalerkantho

শনিবার । ১৮ জানুয়ারি ২০২০। ৪ মাঘ ১৪২৬। ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

যশোরে আরো ২৭ রোগী ভর্তি

যশোর অফিস   

৯ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



যশোরে প্রতিদিনই ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত যশোর জেনারেল হাসপাতালে আরো ২৭ জনকে ভর্তি করা হয়েছে। সব মিলিয়ে বর্তমানে ৮৫ জন চিকিৎসাধীন। তবে রোগীর সংখ্যা বাড়লেও আতঙ্কের কিছু নেই বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

যশোর সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, এ পর্যন্ত জেলায় ২৯২ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে যশোর জেনারেল হাসপাতালেই ভর্তি হয়েছে ২০৯ জন। তাদের মধ্যে ১২৪ জন চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছে।

এ ব্যাপারে যশোর জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘ভর্তি রোগীদের অবস্থা উন্নতির দিকে। ফলে ডেঙ্গু নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কারণ নেই। সার্বক্ষণিক চিকিৎসা নিশ্চিত করতে প্যাথলোজি বিভাগ ২৪ ঘণ্টা খোলা রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ডেঙ্গু পরীক্ষার পর্যাপ্ত কিট আছে। এভাবে চিকিৎসা অব্যাহত রাখতে পারলে ডেঙ্গুর ভয়াবহতা থেকে জনগণকে রক্ষা করা সম্ভব হবে।’

সচেতনতায় মতবিনিময়

এডিস মশা ও ডেঙ্গু প্রতিরোধমূলক সচেতনতায় করণীয় বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন যশোর পৌরসভা মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে পৌরসভায় এই মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়। সভায় মেয়র বলেন, ‘ডেঙ্গু আছে এটা অস্বীকার করার উপায় নেই। তবে এর থেকে বেশি আতঙ্ক রয়েছে মানুষের মনে। তাই ডেঙ্গু থেকে রেহাই পেতে যা যা করণীয় তার সবটাই করবে যশোর পৌরসভা।’

মেয়র জানান, ডেঙ্গু প্রতিরোধে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। এসব কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে, পৌরসভার সরকারি-বেসরকারি ৮২টি স্কুল ও মাদরাসায় মশক নিধন স্প্র্রে করা হয়েছে। পৌর এলাকায় দুই দফা মশক নিধন স্প্রে করা হয়েছে। ডেঙ্গু প্রতিরোধে লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে। পৌরসভার এসব কর্মসূচি প্রয়োজনে আরো দীর্ঘদিন চালানো হবে। মতবিনিময়সভায় আরো বক্তব্য দেন সিভিল সার্জন দিলীপ কুমার রায়, যশোর জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্ব্বাবধায়ক আবুল কালাম আজাদ, যশোর প্রেস ক্লাবের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুন, সম্পাদক আহসান কবীর প্রমুখ। মতবিনিময়সভায় পৌর কাউন্সিলরা উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা