kalerkantho

নীলফামারীতে ১৫ দিনে আক্রান্ত ৫২

নীলফামারী প্রতিনিধি   

৯ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নীলফামারীতে ১৫ দিনে আক্রান্ত ৫২

নীলফামারীতে বৃহস্পতিবার আরো দুজন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে গত ১৫ দিনে জেলায় ৫২ জন রোগী পাওয়া গেছে।

গত ২৫ জুলাই থেকে নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালসহ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোতে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীরা আসতে থাকে। নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালে বর্তমানে চিকিৎসাধীন পাঁচজন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৪ জন। তা ছাড়া রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে ছয়জনকে।

নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীনরা হলেন জেলা সদরের কুন্দপুকুর ইউনিয়নের সুটিপাড়া গ্রামের আবেদীন (৩০), জলঢাকা উপজেলার কাঁঠালী ইউনিয়নের দক্ষিণদেশীবাই গ্রামের সাজ্জাদ হোসেন (২২), একই উপজেলার মীরগঞ্জ ইউনিয়নের পাঠানপাড়া গ্রামের লিমন হোসেন (১৯), কচুকাটা ইউনিয়নের বামনাবামনি গ্রামের আব্দুল কাদের (১৬) ও সদর উপজেলার টুপামারী ইউনিয়নের রামগঞ্জ গ্রামের সোহাগ হোসেন (১৯)।

উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে জেলা সদরের গোড়গ্রাম ইউনিয়নের কেরানীপাড়া গ্রামের এরশাদুল ইসলাম (১৭), চড়াইখোলা ইউনিয়নের পশ্চিম কুচিয়ার মোড় গ্রামের পরিতোষ চন্দ্র রায় (২৮), জেলা শহরের গাছবাড়ী এলাকার আব্দুল লতিফ (৪৫), ডোমার উপজেলার সোনারায় ইউনিয়নের দোলাপাড়া গ্রামের রিয়াজুল ইসলাম (২৫), জেলা শহরের শান্তিনগর গ্রামের ফারুক হোসেন (২২) ও সবুজপাড়া গ্রামের লিখন ইসলামকে (১৮)।

হাসপাতালে চিকিৎসায় সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফিরেছেন জেলা সদরের পলাশবাড়ী ইউনিয়নের তরণীবাড়ী গ্রামের রবীন্দ্রনাথ রায় (৩২), লক্ষ্মীচাপ ইউনিয়নের লক্ষ্মীচাপ গ্রামের রায়হান ইসলাম (১৭), জেলা শহরের মার্কাস মসজিদপাড়া গ্রামের মুঈদ (১১), কচুকাটা ইউনিয়নের বাজিতপাড়া গ্রামের মঞ্জুরুল হক (২৮), চওড়াবড়গাছা ইউনিয়নের কিষামত চওড়া গ্রামের সাইফুল ইসলাম (২৫), একই ইউনিয়নের ভাঙ্গামাল্লি গ্রামের আলম মিয়া (২৬), রামনগর ইউনিয়নের দোলাপাড়া গ্রামের আব্দুর রহিম (২৫), চওড়াবড়গাছা ইউনিয়নের কিসামত দুলুয়া গ্রামের সুজন রায় (১৫), ডোমার উপজেলার ধরনীগঞ্জ গ্রামের হরিদাস রায় (২৯), জেলা শহরের গাছবাড়ী এলাকার পপি আক্তার (২০), পুরাতন স্টেশনপাড়া গ্রামের মহসীন আলী (১৮), রামনগর ইউনিয়নের বাহালীপাড়া গ্রামের মাজেদুল ইসলাম (৩০), একই গ্রামের দুলু মিয়া (২২) ও জেলা শহরের সরকারপাড়া গ্রামের আজিনুর রহমান (২২)।

সিভিল সার্জন রণজিৎ কুমার বর্মন বলেন, বৃহস্পতিবার দুজনসহ গত ১৫ দিনে জেলায় ৫২ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছে। তারা সবাই ঢাকায় আক্রান্ত হয়ে এলাকায় এসেছে। তাদের মধ্যে কেউ হাসপাতালে, কেউ বাড়িতে চিকিৎসা নিচ্ছে। আবার অনেকে জেলার বাইরের হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা নিচ্ছে। তিনি আরো বলেন, নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগের পরীক্ষা-নিরীক্ষায় কোনো সমস্যা নেই। ডেঙ্গু যাতে ছড়িয়ে না পড়ে সেই ব্যাপারে জনগণকে সচেতন করা হচ্ছে। স্বাস্থ্যকর্মীরা মাঠে কাজ করছেন। সচেতনতামূলক মাইকিং করা হচ্ছে। জ্বর হলে সরকারি হাসপাতালে আসার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

মন্তব্য