kalerkantho

পবিপ্রবিতে শনাক্তের উপকরণ নেই বিপাকে শিক্ষার্থীরা

পবিপ্রবি প্রতিনিধি   

৫ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (পবিপ্রবি) হেলথ কেয়ার সেন্টারের প্যাথলজি বিভাগে পর্যাপ্ত যন্ত্রপাতির অভাবে বন্ধ রয়েছে বিভিন্ন মেডিক্যাল টেস্ট। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পর্যাপ্ত বাজেট না পাওয়ায় এসব যন্ত্রপাতি কেনা সম্ভব হচ্ছে না বলে জানান সংশ্লিষ্টরা। যার কারণে বেশি ফি দিয়ে শিক্ষার্থীদের বাইরে পরিক্ষা-নিরীক্ষা করতে হচ্ছে।

হেলথ কেয়ার সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সময় ‘মেডিক্যাল উন্নয়ন ফি’ বাবদ শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে নেওয়া আর্থিক খাত থেকে সাতটি মেডিক্যাল টেস্টের যন্ত্র কেনার জন্য আবেদন করলেও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কোনো অর্থ বরাদ্দ দেয়নি। যে যন্ত্রগুলোর আবেদন করা হয়েছে তা দিয়ে সুগার, ইউরিন, প্রোটিন, ইউরিয়া, ক্রিটিনাইনসহ বিভিন্ন টেস্ট করা সম্ভব। কিন্তু এখন সামান্য কিছু যন্ত্র দিয়ে নামে মাত্র সিবিসি, ব্লাড গ্রুপিং, সিআরপি, আরএ, নেবুলাইজার, প্রেগনেন্সি ছাড়া অন্য কোনো পরীক্ষা হচ্ছে না। এনালাইজার ও ইসিজি মেশিন থাকলেও বর্তমানে অচল অবস্থায় পড়ে আছে। এ ছাড়া ডেঙ্গুর জন্য কোনো ধরনের টেস্টের ব্যবস্থা এখানে নেই। যে পরিমাণ শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারী মেডিক্যাল থেকে সেবা নেন সে অনুযায়ী বছরে প্রায় পাঁচ-ছয় লাখ টাকা প্রয়োজন। কিন্তু হেলথ কেয়ার বাবদ বাজেট তিন লাখ টাকা, যা চাহিদার তুলনায় একেবারেই অপ্রতুল।

বিশ্ববিদ্যালয়ের হেলথ কেয়ার নিয়ে জানতে চাইলে অষ্টম সেমিস্টারের শিক্ষার্থী সুমন হাওলাদার বলেন, ‘আমরা হেলথ কেয়ার থেকে খুব বেশি সুবিধা পাই না। আমাদের যেকোনো টেস্ট করাতে হলে হয় পটুয়াখালী না হয় বরিশালে যেতে হয়। এ ছাড়া আমরা হেলথ কেয়ার থেকে কোনো ধরনের প্রাথমিক ওষুধও পাই না।’

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয় হেলথ কেয়ারের চিফ মেডিক্যাল অফিসার ডা. এ টি এম নাসিরউদ্দীন বলেন, ‘আমরা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতির জন্য আবেদন করেছি। প্রশাসন থেকে অর্থ বরাদ্দ দিলে, আমরা এসব যন্ত্রপাতি কিনতে পারব।’

মন্তব্য