kalerkantho

সোমবার । ২১ অক্টোবর ২০১৯। ৫ কাতির্ক ১৪২৬। ২১ সফর ১৪৪১       

বিশ্ব গণমাধ্যমে ডেঙ্গুর খবর

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাংলাদেশে চলমান ডেঙ্গু পরিস্থিতির কথা বিশ্ব গণমাধ্যমে গুরুত্বের সঙ্গে স্থান পেয়েছে। এসব প্রতিবেদনে ডেঙ্গু পরিস্থিতিকে ভয়াবহ হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে। একই সঙ্গে ডেঙ্গু নিয়ে জনমনে চরম উদ্বেগের কথাও তুলে ধরা হয়েছে। উঠে এসেছে ডেঙ্গু মোকাবেলায় সরকারের ব্যর্থতার কথাও।

জার্মান গণমাধ্যম ‘ডয়চে ভেলে’র বাংলা সংস্করণে বলা হয়েছে, ডেঙ্গুর ভয়াবহতার মধ্যেও বাংলাদেশে চিকিৎসা নিয়ে ব্যবসার ফাঁদ পাতার অভিযোগ উঠেছে। কিছু বেসরকারি হাসপাতাল, ডায়াগনিস্টক সেন্টার ও ওষুধ ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে উঠেছে এ অভিযোগ। সরকারের তরফ থেকে রোগ পরীক্ষার দাম ঠিক করে দেওয়ার পরও তা মানা হচ্ছে না।

বাংলাদেশের ডেঙ্গু পরিস্থিতি মহামারি পর্যায়ে বলে প্রতিবেদন করেছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ডা. আয়েশা আক্তারকে উদ্ধৃত করে তারা জানিয়েছে, ২০০০ সাল থেকে বাংলাদেশে ডেঙ্গু পরিস্থিতির তথ্য রেকর্ড রাখা হচ্ছে। তখন থেকে বিচার করলে এবারের অবস্থা সবচেয়ে ভয়াবহ। 

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে উদ্ধৃত করে এশিয়া নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শুধু জুলাই মাসে নতুন করে সাড়ে পাঁচ হাজার মানুষ ডেঙ্গুতে  আক্রান্ত হওয়ার তথ্য নথিভুক্ত হয়েছে। ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর এটিই এক মাসে সর্বোচ্চ আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা। এ বছর ডেঙ্গুতে প্রাণহানি হয়েছে কমপক্ষে ৩৫ জনের।

এশিয়া নিউজ আরো বলেছে, কোনো ধরনের লক্ষণ দেখা দিলেই জনসাধারণ হাসপাতালে ছুটছে। ঢাকার হাসপাতালগুলোতে প্রতিদিন শত শত মানুষ ভিড় জমাচ্ছে। আক্রান্তদের জন্য শয্যার ব্যবস্থা করতে হিমশিম খাচ্ছে হাসপাতালগুলো।

মার্কিন বার্তা সংস্থা এপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইতিহাসের সবচেয়ে ভয়াবহ ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবেলা করছে বাংলাদেশ। হাসপাতালগুলোতে রোগীদের উপচে পড়া ভিড়। ১ জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত ১৫ হাজার ৩৬৯ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে শুধু ১ থেকে ৩০ জুলাই পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছে ৯ হাজার ৬৮৩ জন।

কুটনীতিবিষয়ক সাময়িকী ‘ডিপ্লোম্যাট’ তাদের শিরোনামে বলেছে, বাংলাদেশে ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব মহামারি পর্যায়ে পৌঁছেছে। স্থানীয় হাসপাতালগুলোতে রোগীদের উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে।

রুশ টেলিভিশন আরটির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ডেঙ্গুর প্রকোপ ঠেকাতে মশার বংশবিস্তার কমানো ও নিয়ন্ত্রণের জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সহায়তা চেয়েছে বাংলাদেশের রোগ নিয়ন্ত্রণ বিভাগ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা