kalerkantho

শনিবার । ৩ আশ্বিন ১৪২৮। ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১০ সফর ১৪৪৩

মালদ্বীপ প্রজাতন্ত্রের মান্যবর পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বাণী

আব্দুল্লা শহিদ, মালদ্বীপ প্রজাতন্ত্রের মান্যবর পররাষ্ট্রমন্ত্রী

২৬ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মালদ্বীপ প্রজাতন্ত্রের মান্যবর পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বাণী

মালদ্বীপের স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আমি বাংলাদেশে বসবাসকারী মালদ্বীপের জনগণ এবং বাংলাদেশের ভ্রাতৃপ্রতিম জনগণকে আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানাই।

এ বছর মালদ্বীপ ও বাংলাদেশের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের ৪৩তম বার্ষিকী। গত চার দশকে আমাদের বন্ধুত্বের শক্তি বেড়েছে এবং আমরা বেশ কয়েকটি ক্ষেত্রে ঘনিষ্ঠ সহযোগিতা করেছি। এ ক্ষেত্রে আমি অন্যান্য খাতের মধ্যে স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও মানবসম্পদ খাতে চলমান সহযোগিতা লক্ষ করে আনন্দিত। তদুপরি আমাদের দুই দেশের সর্বোচ্চ পর্যায়ে আলোচনার মাধ্যমে স্থাপিত দৃঢ় বন্ধনের ফলে মানুষে-মানুষে যোগাযোগ এখন অতীতের যেকোনো সময়ের তুলনায় সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে। মহামান্য রাষ্ট্রপতি ইব্রাহিম মোহাম্মদ সোলিহ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপনে এ বছরের মার্চ মাসে বাংলাদেশে একটি রাষ্ট্রীয় সফর করেছিলেন। এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে আমারও বাংলাদেশে দ্বিপক্ষীয় সফরের সৌভাগ্য হয়েছিল।

বাংলাদেশ মানবসম্পদে বিপুল সম্ভাবনাময় একটি দেশ এবং এখানে চিকিৎসা পেশাজীবী এবং অন্যান্য প্রযুক্তিগত ক্ষেত্রে, প্রশিক্ষণেও মালদ্বীপ উল্লেখযোগ্যভাবে লাভবান হচ্ছে। এ ছাড়া মালদ্বীপের অর্থনীতির মূল খাতগুলোতে বাংলাদেশি কর্মীদের যে অপরিসীম অবদান রয়েছে তা লক্ষ করা জরুরি। চলমান কভিড-১৯ মহামারি মোকাবেলায় মালদ্বীপ যে উদার সহযোগিতা পেয়েছে তার জন্য আমি এই সুযোগে বাংলাদেশ সরকারকে ধন্যবাদ জানাতে চাই।

এই শুভ উপলক্ষে আমি আমাদের আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের বন্ধুদের জাতিসংঘ ও বহুপাক্ষিকতার প্রতি তাদের অংশীদারি ও উদার সমর্থনের জন্য ধন্যবাদ জানাই। মালদ্বীপ যখন জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশনের সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করবে, তখন আমি জাতিসংঘের বহুপক্ষীয় আলোচনায় আমাদের পারস্পরিক অগ্রাধিকারগুলো যথাযথভাবে উপস্থাপন ও সুরাহা হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করব।

আমার আন্তরিক প্রত্যাশা, আগামী বছরগুলোতে আমাদের দুই দেশের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরো জোরালো হবে। আমি আমাদের দুই সরকার ও জনগণের মধ্যে সহযোগিতা আরো বাড়ানোর প্রত্যাশায় রয়েছি।

আমি বাংলাদেশের বন্ধুত্বপূর্ণ জনগণ এবং দেশ-বিদেশে বসবাসকারী মালদ্বীপের সব নাগরিকের  অব্যাহত শান্তি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি কামনা করি।



সাতদিনের সেরা