kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০২২ । ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বিপিন রাওয়াতের মৃত্যুর ৯ মাস পর প্রতিরক্ষা প্রধান হলেন অনিল চৌহান

অনলাইন ডেস্ক   

২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১১:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিপিন রাওয়াতের মৃত্যুর ৯ মাস পর প্রতিরক্ষা প্রধান হলেন অনিল চৌহান

ভারতের প্রতিরক্ষা প্রধান (চীফ অব দ্য ডিফেন্স স্টাফ ) জেনারেল বিপিন রাওয়াত গত বছরের ৪ ডিসেম্বর তামিলনাড়ুতে এক হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় মৃত্যুবরণ করেন। তাঁর মৃত্যুর প্রায় নয় মাস পর ভারতের পরবর্তী সেনাপ্রধান মনোনীত করেছে নরেন্দ্র মোদি সরকার।  

বুধবার প্রয়াত জেনারেল বিপিন রাওয়াতের উত্তরসূরি হিসেবে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) অনিল চৌহানের নাম ঘোষণা করা হয়।  

লেফটেন্যান্ট জেনারেল চৌহান ২০২১ সালের মে মাসে ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় প্রধান সেনা কমান্ডারের পদ থেকে অবসর নিয়েছিলেন।

বিজ্ঞাপন

উত্তর-পূর্ব ভারত এবং কাশ্মীরের সন্ত্রাস দমনে ‘বিশেষজ্ঞ’ হিসাবে তাঁর পরিচিতি রয়েছে। ভারতের সামরিক বিষয়ক সচিবের পক্ষ থেকে জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত লেফটেন্যান্ট জেনারেল চৌহান সিডিএস পদে বহাল থাকবেন। ’

সিডিএস নিয়োগের নতুন নির্দেশনা ঘোষণা করেছে ভারত সরকার। শুধু সশস্ত্র বাহিনীর তিন শাখার (স্থল, নৌ এবং বিমান) প্রধানরাই নন, তাঁদের পরবর্তী স্তরের কর্মকর্তারাও (তিনতারা জেনারেল পদমর্যাদার) এবার সিডিএস পদের যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন বলে গত মঙ্গলবার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালে সেনা বিধি সংশোধন করে প্রথমবারের মতো প্রতিরক্ষা প্রধান পদ সৃষ্টি করেছিল মোদি সরকার। সেই বিধি অনুযায়ী সশস্ত্র বাহিনীর তিন শাখার প্রধান বা সদ্য অবসরপ্রাপ্ত প্রধানদের (চারতারা বিশিষ্ট সেনা কর্মকর্তা) ওই পদের জন্য বিবেচনার কথা বলা হয়েছিল। অর্থাৎ, সেনাবাহিনীর জেনারেল, নৌবাহিনীর অ্যাডমিরাল এবং বিমানবাহিনীর এয়ার চিফ মার্শাল স্তরের কর্মকর্তাকে তিন বাহিনীর সংযোগ রক্ষাকারী ‘সিঙ্গল পয়েন্ট অ্যাডভাইসর’ হিসেবে নিযুক্ত করাই ছিল বিধি। ২০২০ সালের জানুয়ারিতে ওই বিধি মেনেই সেনাবাহিনীর প্রাক্তন প্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াতকে প্রতিরক্ষা প্রধান পদে নিয়োগ করা হয়েছিল।  

নতুন বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সেনাবাহিনীর লেফটেন্যান্ট জেনারেল, নৌবাহিনীর ভাইস অ্যাডমিরাল এবং বিমানবাহিনীর এয়ার মার্শাল স্তরের (তিন-তারা বিশিষ্ট সেনা আধিকারিক) নির্দিষ্ট কিছু পদে কর্মরত বা সদ্য অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তারাও সিডিএস পদের জন্য যোগ্য হিসেবে বিবেচিত হবেন। তবে বয়সসীমা হতে হবে ৬২ বছরের মধ্যে। সেই বিধি মেনেই নিযুক্ত হলেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) চৌহান।
 
সূত্র: আনন্দবাজার



সাতদিনের সেরা