kalerkantho

বুধবার । ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

'হিমালয়ের তুষার গলা পানিতে তীব্র হয়েছে পাকিস্তানের বন্যা'

অনলাইন ডেস্ক   

৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০৯:৪১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'হিমালয়ের তুষার গলা পানিতে তীব্র হয়েছে পাকিস্তানের বন্যা'

প্রতি গ্রীষ্মে ভারতীয় বিজ্ঞানীদের একটি দল হিমবাহের পরিস্থিতি জানতে হিমালয় পর্বতমালা নিয়ে গবেষণা করে। চলতি বছর সবচেয়ে বেশি তুষার গলেছে জানিয়ে গবেষকরা বলেন, পাকিস্তানে বন্যার তীব্রতা বাড়ার পেছনে ভূমিকা রেখেছে হিমালয়ের গলে যাওয়া বরফ।

ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির এই গবেষণা দলের সদস্য হিমবিজ্ঞানী মোহাম্মদ ফারুক আজম জানান, গত দেড় দশক ধরে তারা হিমালয়ে তুষারের পরিমাণ, বাতাস ও মাটির তাপমাত্রা, বরফের গঠন এবং তুষার গলে নদীগুলোতে যাওয়া পানির পরিমাণ পরীক্ষা করে তথ্য সংগ্রহ করছেন।  

ওই বিজ্ঞানী বলেন, চলতি বছর গ্রীষ্মের শুরুতে তীব্র দাবদাহ ছিল।

বিজ্ঞাপন

এতে হিমালয়ের তুষার রেকর্ড পরিমাণে গলেছে। আমাদের দল গত সপ্তাহেও পরীক্ষা চালিয়েছে।

ফারুক আজম আরো বলেন, পূর্বানুমানের চেয়েও দ্রুত গতিতে হিমালয়ের বরফ গলছে, যা পৃথিবীর বায়ুমণ্ডল এবং হাজারো বছর ধরে চলা পানিব্যবস্থাকে অস্থিতিশীল করে তুলছে। আর তার প্রভাব সবচেয়ে তীব্র হয়েছে পাকিস্তানে।

বন্যা পাকিস্তানের তিন কোটির বেশি মানুষের ওপর প্রভাব ফেলেছে এবং জুন থেকে এ পর্যন্ত এক হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছে। এ বন্যাকে 'জলবায়ু বিপর্যয়' হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে পাকিস্তান। তবে এমন বিপর্যয় মাত্র শুরু হয়েছে বলে জানান গবেষকরা।  

পাকিস্তানের বন্যার দীর্ঘস্থায়ী প্রভাব আছে বলেও মনে করছেন গবেষকরা। খরা সৃষ্টিতে বন্যা প্রভাব ফেলে জানিয়ে বিজ্ঞানী আজম বলেন, 'যখন নদী অববাহিকায় বন্যা হয় তখন বেশির ভাগ পানি মাটিতে না মিশে সাগরে প্রবাহিত হয়। এতে মিঠা পানির অভাব তৈরি হয়। এ ছাড়া বন্যায় নদীর পানিপ্রবাহ বিঘ্নিত হওয়ায় লম্বা সময় বৃষ্টি না হলে বা দাবদাহ থাকলে খরা দেখা দেয়। ' 

বন্যায় ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে পাকিস্তানের অর্থমন্ত্রী মিফতাহ ইসমাইল বলেন, 'বন্যায় ক্ষয়ক্ষতির আর্থিক মূল্য এক হাজার কোটি ডলারের বেশি, যা গত বছরে দেশের মোট উত্পাদনের প্রায় ৩ শতাংশের সমান। '

ইসলামাবাদের জলবায়ু বিজ্ঞানী ফাহাদ সাঈদের মতে, আবহাওয়াসংক্রান্ত ক্ষয়ক্ষতির জন্য ভারত, পাকিস্তান ও অন্যান্য দেশের উচিত জলবায়ু সম্মেলনে মামলা করা। তিনি বলেন, 'পাকিস্তানের বন্যায় পরিষ্কার যে জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতি নম্নি ও মাঝারি আয়ের দেশগুলোর সহনীয় মাত্রার বাইরে। ' 

এদিকে পাকিস্তানে বন্যায় দাদু শহরে পানি আরো বাড়ছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। মোট মৃত্যুর সংখ্যা ছাড়িয়েছে এক হাজার ২০০।  
সূত্র : এনডিটিভি ও ডন



সাতদিনের সেরা