kalerkantho

রবিবার । ২ অক্টোবর ২০২২ । ১৭ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

কৃত্রিম পায়ে বিস্ফোরক নিয়ে হামলা, তালেবান নেতা হাক্কানি নিহত

অনলাইন ডেস্ক   

১২ আগস্ট, ২০২২ ০৯:০৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কৃত্রিম পায়ে বিস্ফোরক নিয়ে হামলা, তালেবান নেতা হাক্কানি নিহত

তালেবানদের সমর্থনকারী এবং নারী শিক্ষার পক্ষে থাকা একজন বিশিষ্ট আফগান ধর্মীয় নেতাকে হত্যা করা হয়েছে। বিবিসি জানিয়েছে, কাবুলে শেখ রহিমুল্লাহ হাক্কানিকে হত্যা করা হয়েছে আত্মঘাতী বোমা হামলায়।

তালেবানের একটি সূত্র রয়টার্সকে জানিয়েছে, ধর্মীয় নেতা হাক্কানিকে এমন এক ব্যক্তি আত্মঘাতী হামলা চালিয়ে হত্যা করেছে, যার কৃত্রিম প্লাস্টিকের পায়ে বিস্ফোরক লুক্কায়িত ছিল।

ইসলামিক স্টেট (আইএস) এর আগেও হাক্কানিকে হত্যাচেষ্টা চালিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

আত্মঘাতী বোমা হামলার দায় স্বীকার করেছে গোষ্ঠীটি।

আফগান সংবাদমাধ্যম টোলো নিউজ তাদের টুইটারেও হাক্কানি নিহতের সংবাদ জানিয়েছে। তালেবানের পক্ষ থেকেও টোলো নিউজের খবরটির সত্যতা মেনে নেওয়া হয়েছে।

বিবিসি জানিয়েছে, কাবুলের একটি স্কুলে ধর্মীয় অনুষ্ঠান চলা অবস্থায় আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ ঘটানো হয় স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার। সেই বিস্ফোরণেই হাক্কানির মৃত্যু হয়েছে।  

বয়স্ক এক ব্যক্তির একটি পা আগে দুর্ঘটনায় উড়ে গিয়েছিল। কৃত্রিম পায়ের মধ্যে বিস্ফোরক বহন করে হামলা চালায় সে। বিস্ফোরণের সময় ওই অনুষ্ঠানে ভাষণ দিচ্ছিলেন হাক্কানি। হুট করেই বিস্ফোরণে চারপাশ কেঁপে ওঠে। আর তখনই ঘটনাস্থলে প্রাণ হারান তালেবানের ধর্মীয় নেতা।

জঙ্গিগোষ্ঠী আইসিসের কড়া সমালোচক ছিলেন হাক্কানি। তার মৃত্যুতে আইএস দায় স্বীকার করার আগে থেকেই এ ঘটনার পেছনে তাদের সংশ্লিষ্ট থাকার ব্যাপারে সন্দেহ ছিল।

গত বছরের আগস্টে তালেবান আফগানিস্তানের ক্ষমতায় আসার পর হাক্কানিই সর্বোচ্চ পর্যায়ের নেতা ছিলেন; তার মৃত্যু হলো জঙ্গি হামলায়।

দিন কয়েক আগেই আফগানিস্তানে মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত হয় আল-কায়েদা প্রধান আয়মান আল-জাওয়াহিরি। কাবুলের কাছে আল-কায়েদার একটি ঘাঁটিতে লুকিয়ে ছিল টুইন টাওয়ার হামলার অন্যতম চক্রান্তকারী। সেখানেই ড্রোন হামলায় নিহত হন তিনি। এ ঘটনার কয়েক দিনের মধ্যেই এবার হাক্কানির মতো তালেবান নেতার মৃত্যু হলো।
সূত্র : বিবিসি।



সাতদিনের সেরা