kalerkantho

বুধবার । ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

ভারতের বিহারে মহাজোটের নেতা নীতিশই

অনলাইন ডেস্ক   

৯ আগস্ট, ২০২২ ১৯:৫৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভারতের বিহারে মহাজোটের নেতা নীতিশই

নীতিশ কুমার-ছবি: আনন্দবাজার পত্রিকা

পূর্ব ভারতের বিহারে আসছে নতুন সরকার। আরো এক বার লালুপ্রসাদ যাদবের আরজেডির হাত ধরছেন জেডিইউ এর নীতিশ কুমার। আরজেডির বিধায়ক সংখ্যা ৭৯। নীতিশের দল জেডিইউয়ের বিধায়ক সংখ্যা এখন ৪৫।

বিজ্ঞাপন

আরজেডি, কংগ্রেস, সিপিআইএমএল, সিপিআই এবং সিপিএমের হাত ধরে নতুন সরকার গড়বে জেডিইউ। মহাজোটের নেতা হবেন নীতিশই।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজভবনে গিয়ে গভর্নরের কাছে ইস্তফা দিয়ে লালুপ্রসাদ যাদবের বাড়িতে যান নীতীশ কুমার। সেখানে বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী রাবড়ি দেবী ও তেজস্বী যাদবের সঙ্গে দেখা করেন তিনি। ইস্তফা দিয়ে রাজভবন থেকে বেরিয়ে নীতিশ কুমার বলেন, ‘দলের সব সাংসদ এবং বিধায়করা এনডিএ ছেড়ে বেরিয়ে আসতে চাইছিলেন। সে কারণেই এই সিদ্ধান্ত। ’

বিভিন্ন ইস্যুতে গত কয়েক মাস ধরেই বিজেপির বিরুদ্ধে কথা বলছিলেন নীতিশ কুমার। জল্পনার শুরু তখন থেকেই। অতিসম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী ডাকা নীতি আয়োগের (পরিকল্পনা কমিশন) বৈঠকেও যোগ দেননি তিনি। একদা নীতিশ-ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত আরসিপি সিংকে নিয়ে বিজেপির সঙ্গে বিহারের মুখ্যমন্ত্রীর দূরত্ব বাড়ে। নীতিশের নিষেধ সত্ত্বেও তাঁকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী করেছিল বিজেপি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অমিত শাহ জেডিইউকে বিভক্ত করার জন্য নিরলসভাবে চেষ্টা করছেন বলে নীতিশ কুমারের মন্তব্য নিয়ে দুই দলের মধ্যে উত্তেজনা চরমে উঠেছিল।

এসবের সঙ্গে সাম্প্রতিক ঘটনায় রাজনৈতিক মহল একরকম নিশ্চিতই ছিল, আবারও হয়তো বিজেপির এনডিএ জোটে ফাটল ধরবে। দ্বিতীয়বার এনডিএ ছেড়ে বেরিয়ে যেতে পারেন নীতিশ। ঘটলোও তাই।

সূত্র: এনডিটিভি ও আনন্দবাজার পত্রিকা



সাতদিনের সেরা