kalerkantho

রবিবার । ১৪ আগস্ট ২০২২ । ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৫ মহররম ১৪৪৪

তেল নিশ্চিত করাই বাইডেনের সৌদি সফরের লক্ষ্য

অনলাইন ডেস্ক   

১৩ জুলাই, ২০২২ ২২:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তেল নিশ্চিত করাই বাইডেনের সৌদি সফরের লক্ষ্য

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ছবি: এএফপি

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রথমবার মধ্যপ্রাচ্য সফর করছেন জো বাইডেন। সফরের অংশ হিসেবে বুধবার ইসরায়েলে পৌঁছান তিনি। দুই দিনের ইসরায়েল সফর শেষে শুক্রবার তেলসমৃদ্ধ সৌদি আরবে সংক্ষিপ্ত সফরে যাবেন মার্কিন নেতা।  

বাইডেনের জেদ্দা সফরটিই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকবে বলে মনে করছেন পর্যবেক্ষকরা।

বিজ্ঞাপন

কারণ ২০১৮ সালে সৌদি সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যাকাণ্ডের জেরে দুই দেশের সম্পর্কের অবনতি হয়।

জো বাইডেনের বিমানটি প্রথম ফ্লাইট হিসেবে সরাসরি ইসরায়েল থেকে সৌদি আরবে যাবে। ইসরায়েল এখনো রিয়াদের স্বীকৃতি না পাওয়ায় দুই দেশের মধ্যে কোনো কূটনৈতিক সম্পর্ক নেই। তাই সরাসরি ফ্লাইটও পরিচালিত হয় না।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের সৌদি সফরকে ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে বিপর্যস্ত তেলের বাজার স্থিতিশীল করার প্রচষ্টো হিসেবে দেখা হচ্ছে। পাশাপাশি ইহুদি রাষ্ট্র ইসরায়েলের সঙ্গে সৌদির সম্পর্ক স্থাপনের চষ্টো করবেন জো বাইডেন, যদিও নিকট ভবিষ্যতে সৌদি আরবের কাছ থেকে প্রকাশ্যে ইহুদি রাষ্ট্রটির স্বীকৃতি পাওয়ার কোনো সম্ভাবনা এখন পর্যন্ত দেখছেন না বিশ্লেষকরা।

জো বাইডেনের মধ্যপ্রাচ্য সফর এবারই প্রথম নয়। ১৯৭৩ সালে সিনেটর নির্বাচিত হয়ে ওই অঞ্চলে যান বাইডেন। তখন ইরান ও ইসরায়েল মিত্র ছিল। কিন্তু এখন পরিস্থিতি সম্পূর্ণ ভিন্ন। সফরের শুরুতে জেরুজালেমে ইসরায়েলের অন্তর্বর্তীকালীন প্রধানমন্ত্রী ইয়েইর লাপিদ ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে বৈঠকে বসবেন বাইডেন। এরপর ইসরায়েল অধিকৃত পশ্চিম তীরে শুক্রবার ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের (পিএ) প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন তিনি।

বাইডেনের ইসরায়েল সফরে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু হবে ইরানের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ তুলে ধরা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ইয়েইর লাপিদও।

এদিকে ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি সতর্ক করে বলেছেন, যদি বাইডেনের মধ্যপ্রাচ্য সফরের উদ্দেশ্য ইসরায়েলের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়, তবে সে প্রচষ্টো যেভাবেই হোক ব্যর্থ হবে।  

২০২০ সালে যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতায় সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও মরক্কোর সঙ্গে আনুষ্ঠানিক সম্পর্ক স্থাপনের মাধ্যমে মধ্যপ্রাচ্যে নিজেদের কূটনৈতিক তৎপরতার প্রসার ঘটাচ্ছে ইসরায়েল। আর বাইডেনের জেদ্দা সফরকে সৌদির দিক থেকে ইসরায়েলের স্বীকৃতি পাওয়ার শুরুর প্রক্রিয়া হিসেবে দেখছে দেশটি।

সূত্র : এএফপি ও আলজাজিরা



সাতদিনের সেরা