kalerkantho

শনিবার । ২৫ জুন ২০২২ । ১১ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৪ জিলকদ ১৪৪৩

বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে জ্বালানি আমদানির অনুমতি দিল শ্রীলঙ্কা

অনলাইন ডেস্ক   

২৭ মে, ২০২২ ২০:৩৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে জ্বালানি আমদানির অনুমতি দিল শ্রীলঙ্কা

বিদ্যুত্ ও জ্বালানি মন্ত্রী কাঞ্চানা বিজেসেকারা।

বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে জ্বালানি আমদানির অনুমতি দিয়েছে শ্রীলঙ্কার সরকার। গতকাল শুক্রবার এ খবর জানান দেশটির বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রী কাঞ্চানা বিজেসেকারা। পদক্ষেপটির মাধ্যমে নগদ অর্থের স্বল্পতায় জর্জরিত রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান সিলোন পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (সিপিসি) ওপর থেকে চাপ কমানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।

এক টুইট বার্তায় বিদ্যুৎমন্ত্রী বিজেসেকারা বলেন, সব বেসরকারি বাংকার জ্বালানি অপারেটরকে শিল্পের জেনারেটর ও যন্ত্র চালু রাখার জন্য প্রয়োজনীয় ডিজেল ও জ্বালানি তেল আমদানির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এটি সিপিসি ও বড় আকারে সরবরাহকারী জ্বালানি স্টেশনের ওপর থেকে চাপ কমাবে। ’

অনলাইন সংবাদমাধ্যম ইকোনমিস্টের তথ্যানুসারে, সিপিসির একচেটিয়াত্ব এড়িয়ে ‘যথাযথভাবে শনাক্ত পক্ষ’ যাতে জ্বালানি আমদানি করতে পারে সে লক্ষ্যে এপ্রিলেই শ্রীলঙ্কার মন্ত্রিসভা ‘পেট্রোলিয়াম প্রডাক্টস অ্যাক্ট’ সংশোধনে সম্মত হয়েছিল।  

গত মঙ্গলবার শ্রীলঙ্কার সরকার জ্বালানির দাম বাড়িয়েছে ২৪.৩ শতাংশ। ডিজেলের দাম বেড়েছে ৩৮.৪ শতাংশ। চলমান চরম আর্থিক সংকটের মধ্যে জ্বালানির দামের দিক থেকে এটিকে রেকর্ড বৃদ্ধি হিসেবে ধরা হচ্ছে।  

বৈদেশিক মুদ্রার মজুদ কমে যাওয়ায় বিদেশ থেকে জ্বালানি, রান্নার গ্যাস ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য কিনতে পারছে না দেশটি। দোকানে ও পেট্রল পাম্পে দীর্ঘ সারিতে অপেক্ষা করতে হচ্ছে মানুষকে। এ ছাড়া বিদ্যুৎবিভ্রাট ও খাদ্যের দাম বৃদ্ধিও ভোগাচ্ছে দেশটির জনসাধারণকে।  

গতকাল বৃহস্পতিবার শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহে দেশের সব সরকারি ও বেসরকারি ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও শীর্ষ ব্যবস্থাপকদের সঙ্গে বৈঠক করেন। এ সময় তিনি ডলার ঘাটতি, ঋণ বৃদ্ধি ও মোট সঞ্চয়ের মতো নানা বিষয়ে খোঁজ নিয়েছেন।  

১৯৪৮ সালে স্বাধীন হওয়ার পর থেকে সবচেয়ে তীব্র অর্থনৈতিক সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে শ্রীলঙ্কা। আসছে রাশিয়ার তেল। এদিকে রাশিয়ার কাছ থেকে অপরিশোধিত তেল কেনার উদ্যোগ নিয়েছে শ্রীলঙ্কা। দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান সিলোন পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের শোধনাগারে পরিশোধিত হবে ওই তেল। খবরটি নিশ্চিত করেছেন সিপিসির চেয়ারম্যান সুমিথ বিজয়সিংহে। আগামীকাল শনিবার থেকেই অপরিশোধিত রুশ তেল পাওয়ার কথা রয়েছে সিপিসির।  

এতে করে দুই মাস বন্ধ থাকার পর ফের সচল হতে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসন শুরু হওয়ার পর রাশিয়ার ওপর পশ্চিমাদের নিষেধাজ্ঞার মধ্যে মস্কোর কাছ থেকে ভারতসহ এশিয়ার যে রাষ্ট্রগুলো তেল কিনছে, তার মধ্যে শ্রীলঙ্কা সাম্প্রতিকতম।   

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।



সাতদিনের সেরা