kalerkantho

বুধবার ।  ১৮ মে ২০২২ । ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩  

১৩৩ যাত্রী নিয়ে চীনে বিমান বিধ্বস্ত

অনলাইন ডেস্ক   

২১ মার্চ, ২০২২ ১৪:৫৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



১৩৩ যাত্রী নিয়ে চীনে বিমান বিধ্বস্ত

চীনের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে একটি বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে। ওই বিমানে ১৩৩ জন যাত্রী ছিল। এই দুর্ঘটনায় কারো বেঁচে থাকার সম্ভাবনা ক্ষীণ বলে স্থানীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।  

আজ সোমবার দুপুরে দুর্ঘটনার খবরটি জানা গেছে।

বিজ্ঞাপন

চীনের সরকারি টিভি চ্যানেল সিসিটিভিতে সম্প্রচারিত হয় খবরটি।  

সোমবার ওই চ্যানেলটি জানিয়েছে, দুর্ঘটনাগ্রস্ত বিমানটি চীনের যাত্রীবাহী বিমান সংস্থা চায়না ইস্টার্ন প্যাসেঞ্জারে বোয়িং ৭৩৭ বিমান। চীনের উওজোউ শহরের কাছে গুয়াংছি এলাকায় বিমানটি ভেঙে পড়ে।  

পাহাড়ের মধ্যে জঙ্গেলে ঘেরা ওই এলাকায় বিমানটি ভেঙে পড়ার পর আগুন লেগে যায়। ঘটনাস্থলের বেশ কয়েকটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেইসব ভিডিওতে দেখা যায়, পাহাড়ের ওই এলাকা থেকে বেরিয়ে আসছে ধোঁয়া।

তবে এ ঘটনায় এখনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।   ইতোমধ্যেই দুঘটনাস্থলে উদ্ধারকাজ শুরু হয়েছে।

উড়োজাহাজটি আকাশ থেকে প্রায় খাড়াভাবে পড়ে যাওয়ার ফুটেজ সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে।

ফ্লাইট ট্র্যাকার ডেটা দেখিয়েছে, বিমানটি তিন মিনিটের মধ্যে কয়েক হাজার ফুট নিচে নেমে গিয়েছিল। এক ঘণ্টার কিছু বেশি সময় ধরে চলমান উড়োজাহাজটি ২৯ হাজার ১০০ ফুট উচ্চতায় চলছিল। কিন্তু দুই মিনিট ১৫ সেকেন্ড পরেই এটি মাত্র ৯০৭৫ ফুটে নেমে আসে। ফ্লাইটের শেষ তথ্যে দেখা গেছে যে এটি ৩২২৫ ফুট উচ্চতায় ছিল।  

চীনের বিমান চলাচল বিশেষজ্ঞ লি জিয়াওজিন বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, ‘সাধারণত ক্রুজ পর্যায়ে প্লেন অটোপাইলটে থাকে। তাই ঠিক কী ঘটেছে তা বোঝা খুব কঠিন। ’

আরেকজন বিশেষজ্ঞ বেইজিংভিত্তিক অ্যারোস্পেস নলেজের প্রধান সম্পাদক ওয়াং ইয়ানান চীনের গ্লোবাল টাইমস পত্রিকাকে বলেছেন, ‘খুব সম্ভবত বিমানটি উপরে উঠে ভেসে চলার উচ্চতায় যাওয়ার পর শক্তি হারিয়ে ফেলেছিল। এর ফলে পাইলট বিমানের নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছেন। এটি গুরুতর প্রযুক্তিগত ব্যর্থতা যেখানে বিমানটি অনিবার্যভাবে দ্রুতগতিতে নিচে নেমে আসে। ’

সূত্র: আনন্দবাজার।  



সাতদিনের সেরা