kalerkantho

মঙ্গলবার ।  ১৭ মে ২০২২ । ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৫ শাওয়াল ১৪৪৩  

নিভে গিয়ে নতুন জীবন পেল ইন্দিরার ‘অমর জওয়ান জ্যোতি’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২১ জানুয়ারি, ২০২২ ১৩:৪২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নিভে গিয়ে নতুন জীবন পেল ইন্দিরার ‘অমর জওয়ান জ্যোতি’

জাতীয় যুদ্ধ স্মারকের অগ্নিশিখা, যেখানে মিশে গেল অমর জওয়ান জ্যোতি- ছবি বিবিসি

৫০ বছর পর নিভল ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির অমর জওয়ান জ্যোতি’র অনির্বাণ শিখা। তবে একেবারে নিভিয়ে ফেলা হয়নি এ স্মারক শিখা। কেন্দ্রীয় সরকারের সিদ্ধান্তে এ অগ্নিশিখা স্থানান্তরিত হয়েছে নবনির্মিত জাতীয় যুদ্ধ স্মারকে। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদ ভারতীয় সেনাদের স্মৃতিতে তৎকালীন ভারতের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর সরকার প্রতিষ্ঠা করেছিল ‘অমর জওয়ান জ্যোতি’।

বিজ্ঞাপন

১৯৭২ সালের ২৭ জানুয়ারি ইন্দিরা গান্ধী ওই স্মৃতিসৌধের উদ্বোধন করেছিলেন।   

শুক্রবার বেলা ৩টায় দিল্লির রাজপথে ‘ইন্ডিয়া গেট’–এর সামনে প্রজ্বলিত ‘অমর জওয়ান জ্যোতি’ নিভিয়ে দেওয়া হয়। সেখানকার শিখা মিশিয়ে দেওয়া হয় অদূরেই স্থাপিত জাতীয় যুদ্ধ স্মারকের অগ্নিশিখার সঙ্গে। সংক্ষিপ্ত এক অনুষ্ঠানে  দুই শিখাকে মিলিয়ে দেন ভারতের চিফ এয়ার মার্শাল বলভদ্র রাধাকৃষ্ণ।   
‘অমর জওয়ান জ্যোতি’তে পাথরের স্তম্ভে উল্টো করে রাখা রাইফেল এবং তার ওপর একটি সেনা শিরস্ত্রাণের আদলে তৈরি স্মারক রয়েছে। এর সামনেই পাঁচ দশক ধরে সবসময় জ্বলছিল আগুনের শিখাটি।   ২০১৯ সালে ভারতের লোকসভা নির্বাচনের আগ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ইন্ডিয়া গেট চত্বরে জাতীয় যুদ্ধ স্মারক’-এর উদ্বোধন করেছিলেন।   ওই সময় অভিযোগ উঠেছিল, কাশ্মীরের পুলওয়ামা সন্ত্রাসের প্রেক্ষাপটে দেশপ্রেমের ধুয়া তুলে লোকসভা নির্বাচনে জেতার জন্যই বিজেপি সরকারের ওই পদক্ষেপ। ঘটনাক্রমে এবার প্রজ্জ্বলিত শিখা স্থানান্তরিত হলো উত্তরপ্রদেশসহ দেশের পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা ভোটের কিছুদিন আগে।

বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে নিহত ভারতীয় সেনা-জওয়ানদের স্মৃতিতে ৪০ একর জমিতে তৈরি হয়েছে ওই যুদ্ধ-স্মারক। চারটি চক্রের আকারে বানানো হয়েছে এর দেয়াল। চক্র চারটির নাম হলো- অমর চক্র, বীরতা চক্র, ত্যাগ চক্র এবং রক্ষক চক্র।   

এগুলোর দেয়ালে লেখা রয়েছে নিহত সেনাদের নাম। ভারতের ইতিহাসের গুরুত্বপূর্ণ লড়াইগুলোর ম্যুরালও থাকছে দেয়ালে। সবচেয়ে ছোট চক্রটি অর্থাৎ অমর চক্রের মাঝখানে রয়েছে স্তম্ভ। শহীদ সেনাদের স্মৃতিতে অগ্নিশিখা জ্বলছে সেখানেও। তাতেই এবার মিশে গেল ‘অমর জওয়ান জ্যোতি’। সূত্র: আনন্দবাজার



সাতদিনের সেরা