kalerkantho

মঙ্গলবার ।  ১৭ মে ২০২২ । ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৫ শাওয়াল ১৪৪৩  

কাজাখস্তানে ব্যাপক ধরপাকড় ও মারধর চলেছে, বলছেন আন্দোলনকর্মীরা

অনলাইন ডেস্ক   

২১ জানুয়ারি, ২০২২ ১১:৩৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কাজাখস্তানে ব্যাপক ধরপাকড় ও মারধর চলেছে, বলছেন আন্দোলনকর্মীরা

এই ব্যক্তিকে আটক রেখে মারধর করেছে সরকারি বাহিনী

ইউনিফর্ম পরিহিত সশস্ত্র ব্যক্তিরা কাজাখস্তানের হাসপাতালগুলোর ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে তল্লাশি করেছেন। চিৎকার করে বলেছেন, গণ-আন্দোলনে আহত ব্যক্তিদের খোঁজ করছেন তারা।
 
সহিংসতার সময় গুলিবিদ্ধ হয়েছেন আসিল (ছদ্মনাম) নামে এক নারী। কাজাখস্তানের বৃহত্তম শহর আলমাতির একটি হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

সহিংসতার কথা স্মরণ করে এখনো আঁতকে ওঠেন তিনি।
 
আসিল বলেন, ''ইউনিফর্ম পরা লোকদের একজন চিৎকার করে বলেছেন, 'আবার বিক্ষোভ করতে গেলে আমরা তোমাকে খুন করব'। ''

আসিল মনে করেন, অস্ত্রধারী ব্যক্তিরা পুলিশের বিশেষ বাহিনী কিংবা নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য। সরকারবিরোধী বিক্ষোভে অংশ নেওয়া লোকদের খুঁজে খুঁজে গ্রেপ্তার করছিল তারা।
 
অস্ত্রধারীরা আসিলকে তাদের সঙ্গে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছিল। কিন্তু তিনি এত বেশি আহত হয়েছেন যে হাঁটতেই পারছিলেন না ।  
 
অন্য অনেকের মতো জানুয়ারির শুরুতে জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধির বিরুদ্ধে শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদে অংশ নিয়েছিলেন আসিল।
 
মধ্য এশিয়ার বিশাল কিন্তু তুলনামূলক জনবিরল দেশ কাজাখস্তানে বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম তেলের ভাণ্ডার রয়েছে। অথচ দেশটির অধিকাংশ মানুষ সেই সম্পদের ভাগ পায় না।
 
এ বছরের শুরুর দিকের শান্তিপূর্ণ গণবিক্ষোভ অল্প কয়েক দিনের মধ্যে ব্যাপক বিশৃঙ্খলা আর লুটপাটে রূপ নেয়। ফলে সাবেক সোভিয়েত রাষ্ট্রটি স্বাধীনতার ৩০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ রক্তপাতের পথে ধাবিত হয়।
 
পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে সরকারি বাহিনী ব্যাপক বল প্রয়োগ করেছে। সরকারিভাবে বলা হয়েছে, পুলিশ, সেনাসহ ২২৫ জন নিহত হয়েছে। বহু মানুষ আহত হয়েছে। প্রায় ১০ হাজারজনকে আটক করা হয়েছে।
 
চলমান ব্যাপক ধরপাকড়ের মধ্যে ৫৭ বছর বয়সী আসিল ভয় পাচ্ছেন, তাকেও আটক করা হতে পারে।
সূত্র : বিবিসি।



সাতদিনের সেরা