kalerkantho

শনিবার ।  ২১ মে ২০২২ । ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩  

ধর্মীয় বিদ্বেষমূলক নয়, নরসিংহানন্দ গ্রেপ্তার নারীবিদ্বেষী বক্তব্যের জন্য

অনলাইন ডেস্ক   

১৭ জানুয়ারি, ২০২২ ১৫:৩৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ধর্মীয় বিদ্বেষমূলক নয়, নরসিংহানন্দ গ্রেপ্তার নারীবিদ্বেষী বক্তব্যের জন্য

গত মাসে উত্তর ভারতের হরিদ্বারে যে ধর্মীয় অনুষ্ঠানে মুসলিমদের হত্যা করার আহ্বান জানানো হয়েছিল, তার অন্যতম আয়োজক যাতি নরসিংহানন্দকে শনিবার গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে রবিবার পুলিশ বলেছে, ধর্মীয় বিদ্বেষের মামলায় নয়, তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে নারীবিদ্বেষী বক্তব্য দেওয়ার জন্য।

ধর্মীয় অনুষ্ঠানে বিতর্কিত ও বিদ্বেষমূলক বক্তব্য দেওয়ার প্রায় এক মাস পর সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশনার পরে নরসিংহানন্দসহ দুই ধর্মীয় নেতাকে গ্রেপ্তার করা হলো।  

ভারতের সুপ্রিম কোর্ট গত বুধবার উত্তরাখণ্ড সরকারকে এ বিষয়ে গৃহীত ব্যবস্থা সম্পর্কে ১০ দিনের মধ্যে জানানোর নির্দেশ দিয়েছিলেন।

বিজ্ঞাপন

ধর্মীয় নেতা নরসিংহানন্দকে ১৪ দিনের বিচারিক রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। এক পুলিশ কর্মকর্তা এনডিটিভিকে বলেছেন, ‘যাতি নরসিংহানন্দকে নারীদের বিরুদ্ধে অবমাননাকর মন্তব্যের জন্য গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এই গ্রেপ্তার হরিদ্বারে বিদ্বেষমূলক বক্তব্যের মামলার জন্য নয়। ’

তবে পুলিশ জানায়, ধর্মীয় বিদ্বেষের মামলায়ও নরসিংহানন্দকে একটি নোটিশ দেওয়া হয়েছে এবং সে বিষয়েও তাঁকে রিমান্ডে নেওয়া হবে।

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশনার পর এ ঘটনায় আটক দ্বিতীয় ব্যক্তি নরসিংহানন্দ। ওই ঘটনায় প্রথমে আটক হন ধর্মান্তরিত হওয়া জিতেন্দ্র নারায়ণ সিং ত্যাগী (আগের নাম ওয়াসিম রিজভী)। হরিদ্বারে অনুষ্ঠিত ‘ধর্ম সংসদে’ (ধর্মসভা) তাঁরা দুজন ধর্মীয় উগ্রবাদী বক্তব্য দিয়েছিলেন।

মুসলিমদের বিরুদ্ধে অস্ত্র ধরা তথা হত্যাযজ্ঞ চালানোর আহ্বানের অভিযোগে দায়ের করা এজাহারে ১০ জনেরও বেশি অভিযুক্তের অন্যতম নরসিংহানন্দ। পুলিশ সাধ্বী অন্নপূর্ণা নামের আরেক নারী ধর্মীয় ব্যক্তিত্বের বিষয়েও খোঁজ নিচ্ছে।
সূত্র : এনডিটিভি।



সাতদিনের সেরা