kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৩ মাঘ ১৪২৮। ২৭ জানুয়ারি ২০২২। ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

একমাত্র জীবিত পাইলট বরুণ সিং, এবারও কি পারবেন হারাতে মৃত্যুকে

অনলাইন ডেস্ক   

৮ ডিসেম্বর, ২০২১ ২১:৩৩ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



একমাত্র জীবিত পাইলট বরুণ সিং, এবারও কি পারবেন হারাতে মৃত্যুকে

তামিলনাড়ুর হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় ভারত হারাল সে দেশের প্রথম সেনা সর্বাধিনায়ক বিপিন রাওয়াতকে। এমআই-১৭ হেলিকপ্টার ভেঙে পড়ায় তাঁর সঙ্গে তাঁর স্ত্রী ও আরো ১১ জনের মৃত্যু হয়। চপারে ছিলেন মোট ১৪ জন। পাঁচ ক্রু সদস্যসহ ৯ যাত্রী নিয়ে হেলিকপ্টারটি সুলুর থেকে ওয়েলিংটনের উদ্দেশে রওনা দেয়।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু নীলগিরি পাহাড়েই আছড়ে পড়ে কপ্টারটি। এই দুর্ঘটনায় চপারের একমাত্র জীবিত সদস্য হলেন বিমানবাহিনীরগ্রুপ ক্যাপ্টেন বরুণ সিং। ওয়েলিংটন সেনা হাসপাতালে এবং তিনি মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছেন।

নীলগিরির জেলা প্রশাসক আগেই জানান, দুর্ঘটনাস্থল থেকে একজনকেই জীবিত উদ্ধার করা হয়। তাঁর শরীরের ৯০ শতাংশ পুড়ে গেছে। সেনা হাসপাতালে তাঁর চিকিৎসা চলছে।  

গ্রুপ ক্যাপ্টেন বরুণ সিং শৌর্য সম্মানে ভূষিত। ২০২০ সালে আকাশপথে জরুরি অবস্থার সময় প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা এলাকায় তেজস যুদ্ধবিমানকে বাঁচানোর জন্য সেই বছরই স্বাধীনতা দিবসের সময় তাঁকে শৌর্যচক্রে ভূষিত করা হয়।

১২ অক্টোবর ২০২০ সালে বরুণ সিং একটি ফ্লাইট কন্ট্রোল সিস্টেম বা এফসিএস ও প্রেশারাইজেশন সিস্টেম বা লাইফ সাপোর্ট এনভায়রনমেন্ট কন্ট্রোল সিস্টেমের বড় সংশোধনের পর প্যারেন্ট বেস থেকে দূরে এলএসি-তে একটি সিস্টেম চেক সোর্টি দায়িত্ব পালন করছিলেন। সোর্টির সময় ককপিট চাপ উচ্চ উচ্চতায় ব্যর্থ হয়েছিল। তিনি সঠিকভাবে ব্যর্থতা চিহ্নিত করেছিলেন। ও অবতরণের জন্য নিম্ন উচ্চতায় একটি অপতরণ শুরু করেছিলেন। নামার সময় ফাইট কন্ট্রোল সিস্টেম ব্যর্থ হয় ও বিমানটি সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে। এটি একটি অভূতপূর্ণ বিপর্যয়মূলক ব্যর্থতা যা কখনও ঘটেনি। কারণ বিমানটি  নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সীমান্ত অতিক্রম করছিল। কিন্তু পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে দ্রুত সিদ্ধান্ত নেন তিনি। প্রবল শারীরিক ও মানসিক চাপ থাকা সত্ত্বেও তিনি বিমানের নিয়ন্ত্রণ ফিরে পেতে শেষ পর্যন্ত চেষ্টা চালিয়ে যান। অবশেষ নিয়ন্ত্রণ ফিরে পান। ব্যতীক্রমী সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্যই তাঁকে বিশেষ সম্মান দেওয়া হয়েছিল।

বুধবারা তামিলনাড়ুর চপার দুর্ঘটনায় মারা গেলেন প্রতিরক্ষঅপ্রধান বিপিন রাওয়াত। ভারতীয় বিমান বাহিনীর পক্ষ থেকে জানান হয়, কপ্টার দুর্ঘটনায় সিডিএস বিপিন রাওয়াতসহ ১৩ জন যাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। বিপিন রাওয়াতের সঙ্গে ছিলেন তাঁর স্ত্রীও। তিনিও মারা গেছেন বলে জানা গেছে। বিপিন রাওয়াত দেশের প্রথম সেনা সর্বাধিনায়ক।

বিমান বাহিনীর পক্ষ থেকে জানান হয়, চপার দুর্ঘটনায় একমাত্র জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে গ্রুপ ক্যাপ্টেন বরুণকে। গুরুতর দগ্ধ অবস্থায় তাঁর চিকিৎসা চলছে।



সাতদিনের সেরা