kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৬ মাঘ ১৪২৮। ২০ জানুয়ারি ২০২২। ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

চন্দ্রপৃষ্ঠে, দূরের দিগন্তে- কি ওটা?

অনলাইন ডেস্ক   

৭ ডিসেম্বর, ২০২১ ২১:৩৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চন্দ্রপৃষ্ঠে, দূরের দিগন্তে- কি ওটা?

চাঁদের দূরের দিগন্তে একটি অদ্ভুত বস্তু দেখতে পেয়েছে চীনের চন্দ্রাভিযান মিশনে কাজ করা বিজ্ঞানীরা।

এটি যেন এক 'রহস্যময় কুঁড়েঘর'- আচমকা মাটি ফুঁড়ে বেরিয়েছে। চাইনিজ ন্যাশনাল স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (সিএনএসএ) চ্যানেল দ্বারা প্রচার হয়। বস্তুটি কি তা তদন্ত করবে  ইউতু ২ (জেড র‌্যাবিট) রোভার।

বস্তুটি (সম্ভবত একটি বোল্ডার) রোভারের বর্তমান অবস্থান থেকে প্রায় ৮০ মিটার দূরে এবং সেখানে যেতে দু-তিন দিন সময় লাগবে।

পর্যবেক্ষকরা অনুমান করছেন, 'কুঁড়েঘরের' আপাত জ্যামিতিক আকৃতিটি চিত্রের কম রেজ্যুলেশনের কারণে একটি 'ভিজ্যুয়াল আর্টিফ্যাক্ট' হতে পারে। বেশির ভাগ বিজ্ঞানীরা সন্দেহ করেন, এটি এলিয়েন কার্যকলাপের প্রমাণ! অবশ্য অনেকেই এমন বক্তব্য নিয়ে রসিকতা করছেন।

চীনের 'চাঙ্গি ৪' চন্দ্র মিশন ৩ জানুয়ারি ২০১৯ চাঁদে অবতরণ করে। অবতরণের মাত্র ১২ ঘন্টা পর জেড র‌্যাবিট রোভারটি চাঁদের পৃষ্ঠে চলে যায় এবং অবতরণের পর থেকে এখন পর্যন্ত প্রায় ৮৪০ মিটার ভ্রমণ করেছে।

চীনের চন্দ্রাভিযান প্রকল্পের প্রধান ডিজাইনার উ ওয়েরেন রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে বলেন, এটি রোভারের জন্য একটি ছোট পদক্ষেপ। তবে চীনা জাতির জন্য একটি উল্লম্ফন। এটি আমাদের মহাকাশ অন্বেষণ এবং মহাবিশ্ব জয়ের জন্য একটি জোর পদক্ষেপ।

চীনে রাষ্ট্রনিয়ন্ত্রিত গণমাধ্যম জানায়, জেড র‌্যাবিট ২ রোভারের ছয়টি চাকা রয়েছে এবং এটি সিক্স-হুইল-ড্রাইভ। তাই চাকা ব্যর্থ হলেও অন্যরা স্বাধীনভাবে চলতে পারবে। রোভারটি প্রতিঘণ্টায় সর্বোচ্চ ২০০ মিটার (২২০ গজ) গতিতে চলতে পারে এবং ২০ ডিগ্রি পর্যন্ত ঢালে উঠতে পারে। সেই সঙ্গে আট ইঞ্চি (২০ সেন্টিমিটার) লম্বা বাধা অতিক্রম করতে পারে।
সূত্র : স্কাই নিউজ



সাতদিনের সেরা