kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ মাঘ ১৪২৮। ১৮ জানুয়ারি ২০২২। ১৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

করোনায় ৭৯% শতাংশ মৃত্যু কমাবে 'জেভুদি', একটি ডোজই যথেষ্ট

অনলাইন ডেস্ক   

২ ডিসেম্বর, ২০২১ ২০:৩৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনায় ৭৯% শতাংশ মৃত্যু কমাবে 'জেভুদি', একটি ডোজই যথেষ্ট

যুক্তরাজ্যে করোনা চিকিৎসার নতুন এক দুয়ার উন্মোচিত হলো। সেখানকার ওষুধ ও স্বাস্থ্যসেবা পণ্য নিয়ন্ত্রক সংস্থা (এমএইচআরএ) নতুন এক করোনা চিকিৎসার যুক্তরাজ্যে অনুমোদন দিয়েছে।

এই চিকিৎসার মান, নিরাপত্তা ও কার্যকারিতা পরীক্ষা করেছে যুক্তরাজ্যের চিকিৎসা নিয়ন্ত্রক সংস্থা এবং সরকারের স্বাধীন বিশেষজ্ঞ বৈজ্ঞানিক উপদেষ্টা পরিষদ। নতুন আবিষ্কৃত এই চিকিৎসাপদ্ধতিটি কভিড-১৯ সংক্রমণের তীব্রতা কমাবে, হাসপাতালে ভর্তি ও মৃত্যুর ঝুঁকি কমাবে- এমনটাই বলছেন যুক্তরাজ্যের কমিশন অব হিউম্যান মেডিসিন এর বিশেষজ্ঞরা। সেই্ সঙ্গে করোনা-পরবর্তী অন্যান্য জটিলতা থেকেও রক্ষা করবে বলে জানায় তারা।

এই চিকিৎসাপদ্ধতির ব্র্যান্ড নেম জেভুদি (সোট্রোভিমাব)। জিএসকে (গ্ল্যক্সোস্মিথক্লাইন) এবং ভিআইআর বায়োটেকনোলজি এটি প্রস্তুত করেছে। এটি একটি একক মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি। যুক্তরাজ্য সরকারের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত বিবৃতি অনুসারে, কভিড-১৯ ভাইরাসের বাইরের অংশে স্পাইক প্রোটিনের সঙ্গে আবদ্ধ হয়ে কাজ করে। ফলস্বরূপ ভাইরাসটিকে মানবকোষে সংযুক্ত হতে ও প্রবেশ করতে বাধা দেয়। এ কারণে এটি শরীরে স্থাপিত হতে পারে না।

জেভুদি হলো অনুমোদিত দ্বিতীয় মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি ভেষজ। এর আগেরটি ছিল রোনাপ্রিভ।

একটি ক্লিনিকাল ট্রায়ালে প্রমাণ পাওয়া গেছে, মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডির একটি ডোজ লক্ষণযুক্ত করোনা সংক্রমণে আক্রান্ত উচ্চঝুঁকিপূর্ণ প্রাপ্তবয়স্কদের হাসপাতালে ভর্তি এবং মৃত্যুঝুঁকি ৭৯% কমাতে পারে। ক্লিনিকাল ট্রায়ালের তথ্যের ভিত্তিতে সরকার বলছে, সংক্রমণের প্রাথমিক পর্যায়ে সোট্রোভিমাব নেওয়া সবচেয়ে কার্যকর। লক্ষণ শুরু হওয়ার পাঁচ দিনের মধ্যে এটি ব্যবহারের পরামর্শ দিচ্ছে এমএইচআরএ।

এমএইচআরএর প্রধান নির্বাহী ডা. জুন রেইন ঘোষণা করেন, আমি এটা জানাতে পেরে আনন্দিত যে আমাদের কাছে এখন আরেকটি নিরাপদ এবং কার্যকর কভিড-১৯ চিকিৎসা রয়েছে। যারা গুরুতর অসুস্থতার ঝুঁকিতে রয়েছে তাদের জন্য জেভুদি (সোট্রোভিমাব)।

তিনি আরো বলেন, এটি আরো একটি ভেষজ যা কভিড-১৯-এর সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ ব্যক্তিদের সুরক্ষায় কার্যকর। এটি বিধ্বংসী রোগের বিরুদ্ধে আমাদের লড়াইয়ে আরো একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। এটি প্রস্তুতে গুণমান, নিরাপত্তা এবং কার্যকারিতার সঙ্গে কোনো আপস করেনি ওষুধ ও স্বাস্থ্যসেবা পণ্য নিয়ন্ত্রক সংস্থা (এমএইচআরএ)।
সূত্র : দি মাঙ্ক



সাতদিনের সেরা