kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২ ডিসেম্বর ২০২১। ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

হংকংয়ে গণতন্ত্রপন্থী তরুণ কর্মীর কারাদণ্ড

অনলাইন ডেস্ক   

২৪ নভেম্বর, ২০২১ ০৯:৩৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হংকংয়ে গণতন্ত্রপন্থী তরুণ কর্মীর কারাদণ্ড

হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থী এক তরুণ অধিকারকর্মীকে ৪৩ মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। হংকংকে চীন থেকে আলাদা করা এবং অর্থপাচারের অভিযোগে তাকে এই কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

২০ বছর বয়সী টনি চুংয়ের বিরুদ্ধে ২০২০ সালের অক্টোবরে জাতীয় নিরাপত্তা আইনের অধীনে অর্থপাচারের অভিযোগ আনা হয়েছিল এবং সে সময় তাকে গ্রেপ্তার করা হয় এবং তার পরবর্তী সময়ে জামিনের আবেদন বাতিল করা হয়। যুক্তরাষ্ট্রের কনস্যুলেটের কাছে একটি কফি শপে অন্য দুজনের সঙ্গে তাকে সে সময় আটক করা হয়েছিল।

এদিকে জামিন আবেদনের ফলে তার সাজা ২৫ শতাংশ কমানো হয়েছে, বিচ্ছিন্নতার জন্য ৪০ মাস এবং অর্থপাচারের জন্য ১৮ মাস। এর সঙ্গে তিন মাস যোগ হয়ে মোট ৪৩ মাস সাজা।

স্থানীয় জেলা জজ  আদালতের বিচারক স্ট্যানলি চ্যান বলেন, 'টনি চুং দেশকে আলাদা করার জন্য সক্রিয়ভাবে কার্যক্রম সংগঠিত এবং পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করেছিল।'

স্টুডেন্ট ইউনিয়নের আহ্বায়ক ছিলেন টনি চুং। পাঁচ বছর আগে মাধ্যমিক স্কুলে পড়ার সময়ই তিনি ওই আন্দোলনে জড়িয়ে পড়েন। তার পর থেকে ফেসবুকে স্টুডেন্ট ইউনিয়ন ছাত্রসংগঠন পেজ এর এবং ইনিশিয়েটিভ ইনডিপেনডেন্স পার্টি নামে একটি সংগঠনের হয়ে হাজারের বেশি পোস্ট দিয়েছিল টনি চুং।

অন্যান্য সরকারবিরোধী সংগঠনের মতো ছাত্রসংগঠন ২০২০ সালের জুনে বেইজিং নিরাপত্তা আইন জারি করার আগে ভেঙে দেওয়া হয়েছিল।

হংকংয়ের জনগণের বিশাল অংশ স্বাধীনতাকে সমর্থন করে না। এদিকে  নিরাপত্তা আইন কার্যকর হওয়ার পর থেকে হংকং একটি মোড় নিয়েছে, যার ফলে বেশির ভাগ রাজনীতিবিদ এখন কারাগারে বা স্ব-নির্বাসনে রয়েছেন। সমাজের অনেক সংগঠন বন্দ হয়ে গেছে এবং বেশ কিছু আন্তর্জাতিক অধিকারগোষ্ঠী শহর ছেড়েছে।



সাতদিনের সেরা