kalerkantho

বুধবার । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ১ ডিসেম্বর ২০২১। ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

'আমি বিয়ের বিরুদ্ধে ছিলাম না'- মুখ খুললেন মালালা

অনলাইন ডেস্ক   

১৩ নভেম্বর, ২০২১ ১৬:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'আমি বিয়ের বিরুদ্ধে ছিলাম না'- মুখ খুললেন মালালা

ছবি : রয়টার্স

নোবেলজয়ী নারী অধিকারকর্মী মালালা ইউসুফজাইয়ের বিয়ে নিয়ে কিছুদিন ধরেই সারা বিশ্বে তীব্র আলোচনা চলছে। মালালা বিয়ে করেছেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) কর্মকর্তা আসার মালিককে। যদিও মাত্র ৪ মাস আগে মালালা বলেছিলেন, 'মানুষ কেন বিয়ে করে আমি বুঝি না।' মালালার এই 'স্ববিরোধী কাণ্ড' দেখে তসলিমা নাসরিনসহ বেশ কয়েকজন নারীবাদী প্রশ্ন তুলেছেন। যদিও বেশির ভাগ মানুষই মালালা-আসার দম্পতিকে অভিনন্দন জানাচ্ছেন।

নিজের সেই মন্তব্য এবং ৪ মাস পর পরিবর্তন করার বিষয়ে এবার মুখ খুলেছেন মালালা। নববিবাহিত এই নোবেল বিজয়ী মালালা ফ্যাশনবিষয়ক জনপ্রিয় সাময়িকী ভোগের এক নিবন্ধে বলেছেন, '২০১৮ সালে আমাদের দেখা হওয়ার পর ধীরে ধীরে আমরা ঘনিষ্ঠ বন্ধু হয়ে পড়ি। আমাদের মূল্যবোধে মিল ছিল। দুজনের সঙ্গও উপভোগ করছিলাম। সুখ-দুঃখের সময়গুলো পাশাপাশি দাঁড়িয়ে কাটিয়েছি। জীবনের ওঠা-নামায় আমরা দুজন দুজনের কথা শুনেছি।'

মালালা আরো বলেছেন, 'আমি বিয়ের বিরুদ্ধে ছিলাম না। আমি প্রথাটি নিয়ে সতর্ক ছিলাম। আমি পুরুষতান্ত্রিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলাম। পাশাপাশি বিয়ের পর নারীদের নানা বিষয়ে আপসের প্রস্তুতি নিতে হয় এবং বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে বিয়েসংক্রান্ত আইনগুলোতে সাংস্কৃতিক প্রথা ও নারীবিদ্বেষী মনোভাবের প্রভাব পড়ে তা নিয়ে কথা বলেছিলাম। সব প্রশ্নের জবাব হয়তো আমার কাছে নেই। তবে বিবাহিত জীবনে আমি বন্ধুত্ব, ভালোবাসা ও সম-অধিকার উপভোগ করতে পারব বলে বিশ্বাস করি।'

উল্লেখ্য, গত জুলাইয়ে এই ফ্যাশন সাময়িকী 'ভোগ'-কেই মালালা বলেছিলেন, 'আমি এখনো বুঝতে পারি না কেন মানুষকে বিয়ে করতে হবে। আপনি যদি একজন জীবনসঙ্গী চান, তাহলে কেন বিয়ের কাগজপত্রে সই করতে হবে। এটা কি শুধু একটি অংশীদারি হতে পারে না?' মালালা বিয়ে করার পর তসলিমা নাসরিন তার ফেসবুকে দীর্ঘ পোস্টে লিখেছিলেন, 'ভেবেছিলাম মালালা যেহেতু ইংরেজের দেশে থাকে, কোনো ইংরেজের সঙ্গেই হয়তো... অথচ সর্বোচ্চ ডিগ্রি না নিয়েই মাত্র ২৪ বছর বয়সে বিয়ে করে বসল মালালা, তা-ও এক পাকিস্তানি মুসলিমকে!'



সাতদিনের সেরা