kalerkantho

বুধবার । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ১ ডিসেম্বর ২০২১। ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

চার আফগান নারীকে কারা তুলে নিয়ে গেল, কারা হত্যা করল!

অনলাইন ডেস্ক   

৬ নভেম্বর, ২০২১ ১৮:২৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চার আফগান নারীকে কারা তুলে নিয়ে গেল, কারা হত্যা করল!

আজ শনিবার আফগানিস্তানের তালেবান সরকারের একজন মুখপাত্র বলেছেন, মাজার-ই-শরিফ শহরে চার নারী নিহত হয়েছেন। স্থানীয় সূত্রের মতে, নিহতদের মধ্যে একজন নারী অধিকার কর্মী ছিলেন।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র কারি সাইদ খোশতি বলেন, শহরের একটি বাড়িতে চারটি মৃতদেহ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় দুজন সন্দেহভাজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে যে তাদের বাড়িতে মহিলাদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। তদন্ত অব্যাহত। মামলাটি আদালতে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

সাইদ খোশতি অবশ্য নিহতদের পরিচয় জানাতে পারেননি। তবে মাজার-ই-শরীফের সূত্র এএফপি নিউজ এজেন্সিকে জানিয়েছে, নিহতদের একজন ফ্রোজান সাফি। তিনি একজন নারী অধিকার কর্মী এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাষক।

মাজার-ই-শরীফের তিনটি সূত্র এএফপিকে জানায়, তারা শুনেছে যে ওই নারীরা একটি কল পেয়েছিলেন এবং ভেবেছিলেন এটি একটি 'দেশত্যাগী ফ্লাইটে' যোগদানের আমন্ত্রণ। তাদের গাড়িতে তুলে নেওয়া হয়েছিল এবং পরে তাদের মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে আন্তর্জাতিক সংস্থার একজন নারী কর্মী এএফপিকে বলেন, আমি ওই নারীদের একজন ফ্রোজান সাফিকে চিনতাম। তিনি একজন নারী অধিকার কর্মী ছিলেন এবং শহরের অনেকেই তাঁকে চিনত। সূত্রটি আরো জানায়, তিন সপ্তাহ আগে তিনি নিজেই একটি ফোনকল পেয়েছিলেন যে তাঁকে নিরাপদে বিদেশে চলে যাওয়ার বিষয়ে সহায়তা করা হবে।

ওই নারী জানান, যে আমাকে ফোন করেছিলেন সে আমার সম্পর্কে সব তথ্য জানতেন। আমাকে আমার নথি পাঠাতে এবং একটি ফরম পূরণ করতে বলেছিলেন। 'আমাকে দেশত্যাগে সাহায্য করবেন এমন একজন মার্কিন কর্মকর্তা'র ভান ধরেছিলেন তিনি। সন্দেহ হওয়ায় পরে তিনি কলকারীকে ব্লক করেন। এখন তিনি ভয়ে আছেন। এরপর আজকের এই হত্যাক্ণ্ডের কথা জানার পর তিনি হতবাক। তিনি বলেন, আমার মানসিক স্বাস্থ্য ভালো নেই। আমি সব সময় ভয় পাই এবং মনে হয় কেউ আমার দরজায় এসে আমাকে কোথাও নিয়ে গিয়ে গুলি করে মেরে ফেলবে।
সূত্র : দ্য ন্যাশনাল, এবিসি নিউজ



সাতদিনের সেরা