kalerkantho

শনিবার । ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৪ ডিসেম্বর ২০২১। ২৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

সিনেটরের কফির নিমন্ত্রণে গিয়ে যৌন হয়রানির শিকার হিলারির সহযোগী!

অনলাইন ডেস্ক   

২৭ অক্টোবর, ২০২১ ১৯:৪৩ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



সিনেটরের কফির নিমন্ত্রণে গিয়ে যৌন হয়রানির শিকার হিলারির সহযোগী!

মার্কিন সিনেটরের কফির নিমন্ত্রণে গিয়ে যৌন হয়রানির শিকার হয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের সাবেক সহযোগী হুমা আবেদিন। ‘বোথ/অ্যান্ড: এ লাইফ ইন মাই ওয়ার্ল্ডস’ শিরোনামের একটি বইয়ে এ তথ্য জানিয়েছেন তিনি। তবে সিনেটরের নাম ও দলীয় পরিচয় প্রকাশ করেননি তিনি। মার্কিন ওই সিনেটর তাকে তার বাসায় কফি পানের আমন্ত্রণ করেছিলেন। ওই সিনেটরের সঙ্গেই তার বাসায় গিয়ে বসেন হুমা। সেখানেই ওই সিনেটর তাকে যৌন হয়রানি করেন। বইটি আগামী সপ্তাহে প্রকাশ পাওয়ার কথা। 

২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেট দল থেকে যেসব প্রার্থী মনোনয়ন চেয়েছিলেন হুমা আবেদিন। তাকে নিজের ‘দ্বিতীয় কন্যা’ হিসেবে বর্ণনা করেছিলেন হিলারি ক্লিনটন । ২০০১ সাল থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত নিউ ইয়র্ক থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সিনেটর ছিলেন হিলারি ক্লিনটন। ওই সময়ে তার সহযোগী হয়ে কাজ করতেন হুমা। এই সময়ের মধ্যেই ওই যৌন হয়রানির ঘটনা ঘটে বলে তিনি বর্ণনা করেছেন।

হুমা লিখেছেন, ওয়াশিংটনে একদিন নৈশভোজের পর তিনি ওই রাজনীতিকের সঙ্গে বেরিয়ে আসেন। এক পর্যায়ে তারা ওই সিনেটরের বাসার সামনে থামেন। এ সময় হুমা আবেদিনকে বাসায় ঢুকে কফি পানের আমন্ত্রণ জানান ওই সিনেটর। আমন্ত্রণ গ্রহণ করেন হুমা। গার্ডিয়ান হুমা আবেদিনের বইটি প্রকাশ পাওয়ার আগেই একটি কপি হাতে পেয়েছে।
হুমা লিখেছেন, একটি নৈশভোজে যোগ দিয়েছিলেন অল্প কয়েকজন সিনেটর ও তাদের সহযোগীরা। তবে এতে হিলারি ক্লিনটন যোগ দেননি। হুমা ওইদিনের বর্ণনা দিতে গিয়ে বলেছেন, ‘ডিনার শেষে একজন সিনেটরের সঙ্গে বেরিয়ে এলাম। শিগগিরই তার বাসার সামনে আমরা থামলাম। তিনি আমাকে বাসার ভিতরে গিয়ে কফি পানে আমন্ত্রণ জানালেন। ভিতরে প্রবেশ করতেই তিনি আমাকে ঘরে বসে আরাম করতে বললেন।’ 

তিনি নিজের ব্লেজার খুলে ফেলেন। শার্টের হাতা গুটাতে লাগলেন। কথা বলতে বলতে কফি বানালেন। তারপর হঠাৎ করেই সবকিছু পাল্টে যায়। তিনি এসে বসলেন আমার ডানদিকে। বাম হাতটি আমার কাঁধের ওপর দিয়ে প্রসারিত করে দিলেন। আমাকে চুম্বন করলেন। আরও ঘনিষ্ঠ হওয়ার চেষ্টা করলেন। ধাক্কা দিতে দিতে তিনি আমাকে একটি সোফার দিকে নিয়ে যেতে লাগলেন। ঘটনার আকস্মিকতায় আমি হকচকিয়ে যাই, আমি তাকে ধাক্কা দিয়ে দূরে সরিয়ে দিলাম। আমার জীবন থেকে ওই ১০ টি সেকেন্ড একেবারে মুছে দিতে চেয়েছি।’

হুমা আবেদিন বলেছেন, আমি ধাক্কা দেওয়ায় সিনেটর অবাক হয়ে যান। তিনি জানান, তিনি আমাকে সবসময় ভুল বুঝেছেন। আমি বিষয়টি রূঢ়তার পর্যায়ে নিয়ে যেতে চাইনি। আমি নিজেই 'স্যরি' বলে সেখান থেকে বেরিয়ে আসি। হুমা আবেদিন আরো বলেন, এরপরও ক্যাপিটল হিলে কাজ করতে হয় তাকে। সেখানে ওই সিনেটর থেকে কয়েকদিন তিনি দূরত্ব বজায় রাখার চেষ্টা করেন। এর কয়েকদিন পর তিনি তার কাছে জানতে চান, এখনও তাদের বন্ধুত্ব ‘আগের অবস্থায়’ আছে কিনা। এরপরই তাদের সঙ্গে যুক্ত হন হিলারি ক্লিনটন। 

এ নিয়ে হুমা লিখেছেন, যদিও আমি তাকে (হিলারি) এ বিষয়ে কিছু জানাই নি, তবু তিনি মনে করতেন আমাকে রক্ষা করা দরকার। হুমা আবেদিন আরো লিখেছেন, ওই সিনেটরের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখেন তিনি এবং খুব তাড়াতাড়ি ওই ঘটনা মন থেকে কবর দিয়ে দেন। কারণ, তিনি এ ঘটনা ভুলে যেতে চেয়েছেন। মন থেকে পুরোপুরি মুছে ফেলতে চেয়েছেন।

এর আগে, ২০১৮ সালের শেষের দিকে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সুপ্রিম কোর্টে বিচারক হিসেবে মনোনীত করেছিলেন ব্রেট কাভানা’কে। কিন্তু তখনই কাভানার বিরুদ্ধে একটি পার্টিতে যৌন হয়রানির অভিযোগ আনেন প্রফেসর ক্রিস্টিন ব্লাসি ফোর্ড। কিন্তু কাভানা ওই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেন। এ নিয়ে মার্কিন সিনেটে সাক্ষ্য দেন ফোর্ড। তিনি বলেন, ওই ঘটনা নাটকীয়ভাবে তার জীবন পাল্টে দিয়েছে। জীবনের সবচেয়ে দমনমূলক ওই স্মৃতি মন থেকে মুছে দেয়ার জন্য ২০১৩ সালে তিনি থেরাপি নেন।

সূত্র: বিবিসি।



সাতদিনের সেরা