kalerkantho

বুধবার । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ১ ডিসেম্বর ২০২১। ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

বৈশাখীকে সিঁদুর দিয়েছেন শোভন, মুখ খুললেন প্রথম স্ত্রী রত্না

অনলাইন ডেস্ক   

১৭ অক্টোবর, ২০২১ ০৯:০৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বৈশাখীকে সিঁদুর দিয়েছেন শোভন, মুখ খুললেন প্রথম স্ত্রী রত্না

দশমীর দিন বৈশাখী ব্যানার্জির সিঁথিতে সিঁদুর দিয়েছেন শোভন চ্যাটার্জি। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় এমন দৃশ্য প্রকাশ্যে আসার সঙ্গে সঙ্গেই বৈশাখী জানিয়ে দেন, আমাদের মধ্যে স্বীকৃতির অভাব কোনো দিন ছিল না।

শোভনের বৈশাখীকে সিঁদুর দেওয়ার ব্যাপারে মুখ খুলেছেন রত্না চ্যাটার্জি। তিনি বলেন, হিন্দু বিবাহ আইন অনুযায়ী আমি এখনো শোভনের স্ত্রী। তাই সে অন্য কাউকে সিঁদুর পরাতে পারে না।

এর পরেই রত্না যোগ করেন, স্ত্রী থাকা সত্ত্বেও যদি কেউ অন্য কোনো স্ত্রীলোকের সঙ্গে থাকে, তাহলে ওই স্ত্রীলোককে সমাজ ‘রক্ষিতা’ বলে। রক্ষিতাকে সিঁদুর পরালেই সে স্ত্রী হয়ে যায় না।

প্রসংগত, গত তিন বছর ধরে বিবাহবিচ্ছেদের মামলা চলছে শোভন-রত্নার মধ্যে। এখনো সেই মামলার নিষ্পত্তি হয়নি।

রত্না বলেন, শোভন-বৈশাখী যা পারছে করছে। কিন্তু ভুলে যাচ্ছে ভারতে এখনো আইন আছে। শোভন আইনত এখনো আমার স্বামী।

তিনি আরো বলেন, দুর্গা প্রতিমার পেছনে একটা বাঁশ থাকে জানেন তো। আমিই সেই বাঁশ। তারা বিয়ের কথা ভাবুক। তারপর আমি দেখছি, কী করা যায়। পূজার সময় ফোন করে শোভন একবারও ছেলে-মেয়ের খোঁজ নেয়নি।

শোভনের শ্বশুর তথা ভারতের মহেশতলার বিধায়ক দুলাল দাস সরাসরি শোভন-বৈশাখীর এমন সিঁদুর পরানোর ঘটনাকে ‘ব্যভিচার’ বলে মন্তব্য করেছেন। 

তিনি বলেন, আসলে তারা সমাজকে দূষিত করছে। তাই প্রশাসনের উচিত তাদের বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে মামলা দায়ের করা। পাগল হয়ে তারা যা ইচ্ছা তাই করে বেড়াচ্ছে। তারা যা করছে তাকে ব্যভিচার ছাড়া আর কিছুই বলে না।
সূত্র : আনন্দবাজার।



সাতদিনের সেরা