kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৩০ নভেম্বর ২০২১। ২৪ রবিউস সানি ১৪৪৩

ক্ষুধা সূচকে নেপাল, বাংলাদেশ, পাকিস্তানের পেছনে ভারত

অনলাইন ডেস্ক   

১৫ অক্টোবর, ২০২১ ১১:১৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্ষুধা সূচকে নেপাল, বাংলাদেশ, পাকিস্তানের পেছনে ভারত

১১৬ দেশের বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে (জিএইচআই) এ বছর ভারতের অবস্থান আরো নিচে নেমে গেছে। ৯৪ থেকে ভারত নেমে এসেছে ১০১ নম্বরে। ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

এনডিটিভির ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারত তার প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তান, বাংলাদেশ ও নেপালের থেকেও পিছিয়ে রয়েছে। ২০২০ সালে বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে ভারত ছিল ৯৪তম স্থানে।

জানা গেছে, পাঁচের কম জিএইচআই স্কোর করে প্রথমসারিতে রয়েছে চীন, ব্রাজিল  ও কুয়েতের মতো ১৮টি দেশ। ক্ষুধা ও অপুষ্টির ভিত্তিতে এই তালিকা করা হয়। 

জিএইচআই ওয়েবসাইটে এই তথ্য জানানো হয়েছে। এই রিপোর্ট যৌথভাবে তৈরি করেছে আইরিশ ত্রাণ সংস্থা কনসার্ন ওয়ার্ল্ডওয়াইড ও জার্মান সংস্থা ওয়েল্ট হাঙ্গার হিলফে। জিএইচআই রিপোর্টে ভারতের অবস্থাকে উদ্বেগজনক আখ্যা দেওয়া হয়েছে।

২০২০ সালে ১০৭ দেশের মধ্যে ভারতের স্থান ছিল ৯৪তম। এবার ১১৬টি দেশ তালিকায় রয়েছে। এ ক্ষেত্রে ভারত নেমে গেছে ১০১তম স্থানে।  ভারতের জিএইচআই স্কোরও কমেছে। ২০০০ সালে এই স্কোর ছিল ৩৮.৮। ২০১২ থেকে ২০২১ পর্বে তা রয়েছে ২৮.৮-২৭.৫-এর মধ্যে।

মূলত চারটি বিষয়ের মাপকাঠিতে এই সূচক তৈরি হয়। এগুলো হলো অপুষ্টি, পাঁচ বছরের কম বয়সের শিশুদের উচ্চতার তুলনায় ওজন, পাঁচ বছরের কম শিশুদের উচ্চতা ও পাঁচ বছরের কম  শিশুদের মৃত্যুহার।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, কভিড-১৯ ও মহামারিসংক্রান্ত বিধি-নিষেধের কারণে ভারতে মানুষের ওপর ব্যাপক প্রভাব পড়েছে।

নেপাল (৭৬), বাংলাদেশ (৭১), পাকিস্তানের (৯২) পরিস্থিতি ভারতের তুলনায় বেশ ভালো। মানুষের খাদ্যের ব্যাপারে এই দেশগুলো ভারতের থেকে এগিয়ে।

তবে রিপোর্ট অনুসারে, পাঁচ বছরের কম বয়সের শিশুদের মৃত্যুহারের ক্ষেত্রে ভারতে পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। সেই সঙ্গে খাদ্যের অভাবজনিত অপুষ্টির হারও কমেছে ভারতে।

সূত্র : এনডিটিভি।



সাতদিনের সেরা