kalerkantho

সোমবার । ২ কার্তিক ১৪২৮। ১৮ অক্টোবর ২০২১। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

মোদির সাবেক মন্ত্রী এখন মমতার দলে

অনলাইন ডেস্ক   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১৫:৪৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মোদির সাবেক মন্ত্রী এখন মমতার দলে

সম্প্রতি ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রীত্ব হারিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের আসানসোল থেকে নির্বাচিত বিজেপির সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। সেটি হয়তো মেনে নিতে পারেননি। তাই এবার মমতা ব্যানার্জির তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন তিনি। গতকাল শনিবারের দুপুরে হঠাৎ করে বিজেপি ছেড়ে মমতার তৃণমূলে যোগ দেন ভারতের সংসদ সদস্য ও মোদী সরকারের প্রাক্তন কেন্দ্রীয় এ মন্ত্রী।

শনিবার তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক ব্যানার্জি তাকে উত্তরীয় পরিয়ে বরণ করে নেন। এ সময় তৃণমূলের অন্যান্য শীর্ষ নেতৃবৃন্দও উপস্থিত ছিলেন। এক টুইট বার্তায় তৃণমূল কংগ্রেস জানিয়েছে, ‘আজ সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক ব্যানার্জি এবং রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ও’ব্রেইনের উপস্থিতিতে বাবুল সুপ্রিয় তৃণমূল পরিবারে যোগ দিয়েছেন।’

বাবুল সুপ্রিয় ভারতের আসানসোলের সংসদ সদস্য। সম্প্রতি দেশটির কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার রদবদল করলে মন্ত্রিত্ব হারান তিনি। এরপর থেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করে আসছেন মোদী সরকারের দুই বারের এই মন্ত্রী। এমনকি তিনি রাজনীতি ছাড়ারও ঘোষণা দেন। ততক্ষণে বিষয়টি সমাধানে উদ্যোগী হয়ে ওঠে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। বৈঠকে বসেন দলটির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নড্ডা। তবে বৈঠকের পর বাবুল জানিয়েছিলেন তিনি রাজনীতি ছেড়ে দিলেও অন্য কোনো দলে যোগ দেবেন না। কিন্তু হঠাৎ কলকাতার ক্যামাক স্ট্রিটের দপ্তরে গিয়ে তৃণমূলে যোগ দেন।

তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে বিজেপি ছাড়েন বাবুল। তার এই দলবদল শুধু বিজেপির কাছেই নয়, তৃণমূলের কাছেও চমক। বাবুল সুপ্রিয় বললেন, তৃণমূলে যোগ দিয়ে আমি গর্বিত। এবার দেশসেবায় কাজ করতে পারব। এদিকে দক্ষিণ কলকাতার ভবানীপুর আসনের উপ-নির্বাচনের আগে বাবুল সুপ্রিয়র তৃণমূলে যোগদান বিজেপির জন্য বড় ধাক্কা বলে মনে করছেন অনেকে। ৩০ সেপ্টেম্বর এ আসনে নির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে।

এর আগে তৃণমূলে যোগ দেন কৃষ্ণনগর উত্তরের বিধায়ক তথা বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি মুকুল রায়। এরপর একে একে আরো তিন বিধায়ক বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যান। তারা হলেন- বিষ্ণুপুরের তন্ময় ঘোষ, বাগদার বিশ্বজিৎ দাস, কালিয়াগঞ্জের সৌমেন রায়। আশঙ্কা করা হচ্ছে আরো অনেকেই বিজেপি ছাড়তে পারেন।

সূত্র : আনন্দবাজার, হিন্দুস্তান টাইমস।



সাতদিনের সেরা