kalerkantho

সোমবার । ২ কার্তিক ১৪২৮। ১৮ অক্টোবর ২০২১। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ছাত্রীদের পড়াতে বৃদ্ধ শিক্ষক নিয়োগের পরামর্শ দিল তালেবান

অনলাইন ডেস্ক   

৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১১:৩৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ছাত্রীদের পড়াতে বৃদ্ধ শিক্ষক নিয়োগের পরামর্শ দিল তালেবান

প্রতীকী ছবি

কাবুল দখলের পর তালেবান সাফ জানিয়ে দিয়েছে, শ্রেণিকক্ষে একসঙ্গে বসে পড়াশোনা করতে পারবে না ছেলেমেয়েরা। আফগানিস্তানের শিক্ষা ব্যবস্থায় আরো কিছু বদল এনে এবার জানানো হয়েছে, স্কুল, কলেজে ছাত্রীদের পড়াবেন শুধু শিক্ষিকারা।

আর যদি একান্তই শিক্ষিকা না পাওয়া যায়, সে ক্ষেত্রে 'সচ্চরিত্র বয়স্ক শিক্ষক'দের নিয়োগ করা যেতে পারে। অন্য দিকে, ছেলেদের পড়াবেন শুধু পুরুষ শিক্ষক, বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

তালেবানদের বক্তব্য, শ্রেণিকক্ষে একসঙ্গে বসতে পারবেন না ছাত্র এবং ছাত্রীরা। হয় তাঁদের আলাদা আলাদা ক্লাস নিতে হবে, নয়তো পর্দা টাঙিয়ে ক্লাসরুমকে দু’ভাগে ভাগ করতে হবে; যাতে আলাদা বসতে পারেন ছেলেমেয়ে। পর্দা টাঙিয়ে ছেলেমেয়েদের আলাদা বসার একটি ছবি এরই মধ্যে ভাইরাল হয়েছে।

এখানেই শেষ নয়। নিকাব পরে মুখ ঢেকেই কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ে যেতে হবে মেয়েদের। স্পষ্ট জানানো হয়েছে ওই নির্দেশনায়। এ ছাড়াও কলেজ ছুটির সময় মিনিট পাঁচেক আগে ক্লাসরুম ছাড়তে বলা হয়েছে মেয়েদের, যাতে কলেজ চত্বরেও ছেলেদের সঙ্গে তাঁরা মিশতে না পারেন।

আফগানিস্তানের শিক্ষা ব্যবস্থায় এই সব নিয়মবিধিই চালু ছিল তালেবানি শাসনের প্রথম অর্থাৎ ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত। দীর্ঘ দু’দশক পর তাদের দ্বিতীয় পর্বের শাসনেও ওই পুরনো ব্যবস্থাই ফিরে আসতে চলেছে বলে মনে করছেন আফগানিস্তানের শিক্ষামহল।
সূত্র: রয়টার্স।



সাতদিনের সেরা