kalerkantho

সোমবার  । ১২ আশ্বিন ১৪২৮। ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৯ সফর ১৪৪৩

ভ্যাকসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় অস্বাভাবিক ঋতুস্রাবের অভিযোগ

সাব্বির খান, স্ক্যান্ডিনেভিয়া প্রতিনিধি   

২৮ জুলাই, ২০২১ ২১:৩৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ভ্যাকসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় অস্বাভাবিক ঋতুস্রাবের অভিযোগ

করোনাভাইরাসজনিত রোগ কভিড-১৯-এর টিকা দেওয়ার পর কয়েকশ সুইডিশ নারী ঋতুস্রাবজনিত অস্বাভাবিক অসুস্থতার অভিযোগ করেছেন। সুইডেনের মেডিক্যাল প্রোডাক্টস এজেন্সি এবং ইউরোপীয় মেডিসিন এজেন্সি (ইএমএ) উভয়ই এই অভিযোগগুলো আমলে নিয়ে গভীর পর্যবেক্ষণ করছে।

তবে বর্তমানে এটি কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া কি না তা কেউই সঠিকভাবে বলতে পারছে না। এরই মধ্যে বেশ কয়েকটি দেশে কভিড-১৯-এর টিকা দেওয়ার পরে মহিলারা ঋতুস্রাবের অসুবিধার কথা জানিয়েছেন। মেডিক্যাল প্রোডাক্টস এজেন্সির তথ্যানুসারে সুইডেনে এই অভিযোগের সংখ্যা প্রায় ৩০০ থেকে ৪০০ জনের মতো।

মূল অভিযোগটি হচ্ছে, কভিড-১৯-এর টিকা দেওয়ার পর নারীদের মাসিকে অস্বাভাবিকতা দেখা দেয়া। তবে এটি অনিয়মিত ঋতুস্রাবও হতে পারে অথবা মেনোপজের পরে রক্তক্ষরণ সম্পর্কীত ব্যথাও হতে পারে বলে জানান সুইডেনের মেডিক্যাল প্রোডাক্টস এজেন্সির সিনিয়র বিশেষজ্ঞ এবা হলবার্গ। তবে ভ্যাকসিন গ্রহণের সঙ্গে ঋতুস্রাবের অস্বাভাবিকতার মধ্যে এখনো কোনো সুস্পষ্ট যোগসূত্র খুঁজে পাওয়া যায়নি বলে তিনি উল্লেখ করেন।

এবা হলবার্গ বলেছেন, অভিযোগগুলোকে আমরা গুরুত্বের সাথে পর্যবেক্ষণ করছি। তবে ভ্যাকসিনের সাথে অস্বাভাবিক ঋতুস্রাবের কোনো যোগসূত্র রয়েছে কি না তা আমরা এই মুহূর্তে বলতে পারছি না। অভিযোগটি ইউরোপীয় ইউনিয়ন পর্যায়েও বেশ গুরুত্বের সঙ্গে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। তবে এখনো পর্যন্ত সেখান থেকেও অভিযোগের পক্ষে কোনো সমর্থন পাওয়া যায়নি’।

ভ্যাকসিন দেওয়ার পরে অস্বাভাবিক ঋতুস্রাব বিভিন্ন কারণে দেখা দিতে পারে এবং বিষয়টি চিকিত্সাবিজ্ঞানেও অজানা কিছু নয়। মেনোপজের পরে নারীদের রক্তপাত হওয়াটাও খুব স্বাভাবিক একটা বিষয়। ভ্যাকসিন দেওয়ার পর সন্দেহজনক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াকে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ‘অ-গুরুতর’ হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। 

বিভিন্ন দেশের সমীক্ষায় দেখা যায় যে, অস্বাভাবিক ঋতুস্রাবের কারণে কাউকে অদ্যাবধি হাসপাতালে যাওয়ার প্রয়োজন পড়েনি বা উদ্ভুত পরিস্থিতিতে কারো জীবন হুমকীর সম্মুখীনও হয়ে দাঁড়ায়নি। সুইডেনে বেশিরভাগ অভিযোগই ব্যক্তিগত পর্যায় থেকে এসেছে বলে জানা যায়। 

ভ্যাকসিন দেওয়ার পর নারীর অস্বাভাবিক ঋতুস্রাবের অভিযোগের সংখ্যা ডেনমার্কের তুলনায় সুইডেনে উল্লেখযোগ্যভাবে কম। কভিড -১৯-এর টিকা দেওয়ার পর ডেনমার্কের নারীদের মাসিক অস্বাভাবিকতার অভিযোগ পাওয়া গেছে প্রায় এক হাজারের চেয়েও বেশি। চলতি বছরের ২১ জুলাই পর্যন্ত মেডিক্যাল প্রোডাক্টস এজেন্সির কাছে সুইডেনে ব্যবহৃত কভিড -১৯ এর তিনটি ভ্যাকসিনের বিরুদ্ধে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ব্যাপারে মোট ৫৮৩৮২টি অভিযোগ এসেছে। বেশিরভাগ অভিযোগই মাথা ব্যথা, সর্দি, অবসন্নতা এবং জ্বরের ব্যাপারে, যা ভ্যাকসিনের ক্ষেত্রে স্বাভাবিক বলেই ধরে নেওয়া হয়। তবে চুলকানি, মাথাঘোরা, জয়েন্ট এবং পেশি ব্যথা ছাড়াও শরীর দুর্বল অনুভূত হওয়্যার অভিযোগগুলোকে অস্বাভাবিক বলে ধরে নেওয়া হয়েছে।



সাতদিনের সেরা