kalerkantho

শনিবার । ৯ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৪ জুলাই ২০২১। ১৩ জিলহজ ১৪৪২

পদত্যাগ করলেন অ্যামাজনের সিইও জেফ বেজোস

অনলাইন ডেস্ক   

৬ জুলাই, ২০২১ ১৬:২৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



পদত্যাগ করলেন অ্যামাজনের সিইও জেফ বেজোস

অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোস সংস্থাটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার (সিইও) পদ ছেড়েছেন। গতকাল সোমবার  তিনি আনুষ্ঠাকিভাবে অ্যামাজনের সিইও-র দায়ীত্ব থেকে অবসর নেন। এ পদে বেজোসের স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন অ্যান্ডি জেসি। এর আগে তিনি অ্যামাজনের ক্লাউড ব্যবসার প্রধান হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন। তবে সিইও পদ ছাড়লেও অ্যামাজনের চেয়ারম্যানের দায়িত্বে থাকছেন জেফ।

জেফ বেজোস ১৯৯৫ সালে অ্যামাজন প্রতিষ্ঠা করেন। সিইও পদ ছাড়লেও এখন পর্যন্ত অ্যামাজনে সবচেয়ে বেশি শেয়ার জেফ বেজোসের। যার মূল্য দাঁড়ায় প্রায় ১৮ হাজার কোটি ডলার। সুতরাং সবচেয়ে বেশি শেয়ার ও চেয়ারম্যান হিসেবে সংস্থাটিতে তার আধিপত্যই বেশি থাকবে। জেফ বেজোস এমন সময় দায়ীত্ব থেকে ইস্তফা দিলেন যখন সংস্থাটি আয়ের দিক থেকে অন্য যেকোন সময়ের চেয়ে শীর্ষে। সম্প্রতি করোনা মহামারিতে ব্যাপকভাবে সুবিধা ভোগ করছে
কোম্পানিটি। কারণ লকডাউনে মানুষ বাধ্য হয়ে অনলাইনেই কেনাকাটা করছে।

চলতি বছরের প্রথম চতুর্ভাগে অ্যামাজনের লাভ তিনগুনের বেশি অর্জিত হয়। কোম্পানিটির এখন মোট সম্পদ ১.৭ ট্রিলিয়ন ডলার। এখন থেকে এ বিশাল সম্পদের দেখভাল করবেন অ্যান্ডি জেসি। এদিকে প্রধান নির্বাহীর পদ ছেড়ে কি করবেন জেফ বেজোস! তা নিয়ে চলছে বিস্তর আলোচনা। 

সম্প্রতি বোজোস ঘোষণা দিয়েছেন আগামী ২০ জুলাই তিনি মহাশূন্যে যাচ্ছেন। নিজের রকেট কোম্পানি ব্লু অরিজিনের প্রথম মানববাহী অভিযানে যুক্ত হবেন ৫৭ বছর বয়সী বেজোস। ব্লু অরিজিন জানায়, ওই ফ্লাইটে বেজোসের যাত্রাসঙ্গী হবেন তার ছোট ভাই মার্ক বেজোসও।

জেফ বেজোসের সম্পদের পরিমান ১৮৭.২ বিলিয়ন ডলার। সব ঠিকঠাক থাকলে বেজোস হবেন নিজ খরচে তৈরি মহাকাশযানে চড়ে মহাশূন্যে যাওয়া প্রথম ব্যক্তি। প্রায় ছয় বছরের গবেষণার পর গত মে মাসে ব্লু অরিজিনের আত্মপ্রকাশ ঘটে। ব্লু অরিজিনের এ যাত্রা হবে ৫৯ ফুট দীর্ঘ রকেটের সাহায্যে। ১১ মিনিটের মধ্যেই সেটি পৌঁছাবে ভূপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ১০০ কিলোমিটার দূর তথা মহাশূন্যে।

তবে ২০ জুলাই ফ্লাইটের দিন নির্ধারণের পেছনে অন্য একটি কারণ রয়েছে। এদিন অ্যাপোলো-১১ এর মহাশূন্যে যাওয়ার ৫২ তম বছর পূরণ হবে। ব্লু অরিজিনের এই বিশেষ ফ্লাইটে থাকছে ছয়টি আসন। এদিকে সম্পদের পাহাড় থাকার পরও জেফ বেজোসের বিরুদ্ধে কর ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। প্রোপাবলিকা নামের যুক্তরাষ্ট্রভিত্তির একটি অনুসন্ধানী সংবাদমাধ্যম জানায়, ২০০৭ ও ২০১১ এই দুই বছর কোনো ধরনের ফেডারেল আয়কর দেননি বেজোস।

সূত্র: বিবিসি, সিএনএন।



সাতদিনের সেরা