kalerkantho

রবিবার । ১০ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৫ জুলাই ২০২১। ১৪ জিলহজ ১৪৪২

যৌন হয়রানির অভিযোগ স্বীকার করেছেন পাকিস্তানি আলেম

অনলাইন ডেস্ক   

২৩ জুন, ২০২১ ১৬:২৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



যৌন হয়রানির অভিযোগ স্বীকার করেছেন পাকিস্তানি আলেম

যৌন হয়রানির অভিযোগে গ্রেপ্তারের একদিন পর পাকিস্তান আলেম ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম-ফজল (জেআইআই-এফ)-এর নেতা মুফতি আজিজুর রেহমান জিজ্ঞাসাবাদে এক ছাত্রকে যৌন নির্যাতনের কথা স্বীকার করেছেন। গত সোমবার দেশটির মিয়ানওয়ালি থেকে তাকে ও তার ছেলেদের আটক করে পুলিশ।

তদন্ত কর্মকর্তা ডিআইজি শরিক জামাল খান বলেন, আলেম স্বীকার করেছেন যে ঘটনার ভিডিও কিছুদিন আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল, সে ভিডিওতে তাকেই দেখা গেছে। ভিডিওতে যে ছাত্রকে যৌন নিগ্রহ করা হচ্ছে সে গোপনে এ ভিডিওটি করেছে। 'তাকে (পরীক্ষায়) পাস করার লোভ দেখিয়ে আমি আমার অভিলাষের টার্গেট করেছিলাম' বলে মুফতি পুলিশকে জানিয়েছেন।

মুফতি রেহমান আরো জানিয়েছেন, ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পর তিনি ভয় পেয়েছিলেন। তার ছেলেরা ওই ছাত্রকে হুমকি দেওয়ার চেষ্টা করেছিল এবং তাকে কারো কাছে ঘটনার উল্লেখ না করতে বলেছিল। রেহমান বলেন, 'আমি মাদরাসা ছেড়ে যেতে চাইনি বলে ভিডিও বিবৃতি প্রকাশ করেছি। মাদরাসা প্রশাসন আমাকে আগেই চলে যেতে বলেছিল। 'আমি যা করেছি তাতে আমি খুব লজ্জিত' বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

ডিআইজি শরিক জামাল খান বলেন, এ মামলার সমস্ত মেডিক্যাল ও ফরেনসিক প্রমাণ সংগ্রহ করা হচ্ছে। 'আমরা মুফতির শাস্তির জন্য একটি দৃঢ় চ্যালেঞ্জ উপস্থাপনের চেষ্টা করব'। এ মামলায় শাস্তি দেওয়ার জন্য যথেষ্ট প্রমাণ রয়েছে বলেও জানিয়েছেন ডিআইজি।

এর আগে যৌন হয়রানির অভিযোগে পাকিস্তানের মিওয়ানওয়ালি শহরে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাকে লাহোরে আনা হয় এবং সেখানেই তার বিরুদ্ধে মামলা হয়। দু-তিন দিনের মধ্যে তাকে আদালতে হাজির করা হবে বলে তখন জানায় পুলিশ। চলতি সপ্তাহের শুরুতে, রেহমানের বিরুদ্ধে তার এক শিক্ষার্থীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগের একটি ভিডিও ক্লিপ সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার হওয়ার পরই পুলিশ তার বিরুদ্ধে মামলা করে।
সূত্র : ডন



সাতদিনের সেরা