kalerkantho

শুক্রবার । ৮ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৩ জুলাই ২০২১। ১২ জিলহজ ১৪৪২

সুইডেনে দ্রুত ছড়াচ্ছে ইন্ডিয়ান ডেল্টা ভেরিয়েন্ট

সাব্বির খান, স্ক্যান্ডিনেভিয়া প্রতিনিধি   

১৬ জুন, ২০২১ ০০:১৯ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সুইডেনে দ্রুত ছড়াচ্ছে ইন্ডিয়ান ডেল্টা ভেরিয়েন্ট

করোনাভাইরাসের ডেল্টা ভেরিয়েন্ট সংক্রমণের হার সুইডেনে দ্রুত বাড়ছে, যা সুইডেনের রাষ্ট্রীয় প্রধান মহামারিবিদ আন্ডারস টেগনেল এবং সরকারকে চিন্তিত করে তুলেছে। অতিদ্রুত সুইডেনের প্রত্যেক নাগরিককে টিকা নেওয়ার ওপর গুরুত্বারোপ করে টেগনেল বলেন, আলফা বা ডেল্টা ভেরিয়েন্ট থেকে রক্ষা পেতে ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ গ্রহণের কোনো বিকল্প নেই।

এদিকে জনস্বাস্থ্য সংস্থার অপর একটি জরিপে দেখা যায়, যেখানে তরুণদের মধ্যে খুব কম সংক্রমণের আশা করা হয়েছিল, সেক্ষেত্রেও কর্তৃপক্ষের ধারণা ভুল প্রমাণিত হয়েছে এবং সুইডেনের অল্প বয়স্ক তরুণদের মধ্যে সংক্রমণের বিস্তার লাভ বর্তমানে দুর্দান্ত রূপ ধারণ করেছে। যখন ব্রিটিশ ভেরিয়েন্ট আলফা সুইডেনে প্রথম এসেছিল, সংক্রমণের ক্ষেত্রে ইন্ডিয়ান ভেরিয়েন্ট ডেল্টাও ঠিক একইভাবে এবং অত্যন্ত দ্রুতগতিতে ছড়াচ্ছে বলে জানান আন্ডারস টেগনেল।

যুক্তরাজ্যে বর্তমানে ৯০ শতাংশেরও বেশি ডেল্টা ভেরিয়েন্ট সংক্রমিত হচ্ছে। এই ভেরিয়েন্টটি ভারতে প্রথম আবিষ্কৃত হয়েছিল এবং এই মিউটেশনের গঠন ও চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য এমন যা আরো অধিক মাত্রায় সংক্রামক করে তোলে। এছাড়া গবেষকদের হাতে ডেল্টা ভেরিয়েন্ট বিষয়ে এমন তথ্যও রয়েছে যে, এটা আলফা ভেরিয়েন্টের মতোই সংক্রমিত ব্যক্তির দেহে ভিন্ন ধরনের মারাত্মক রোগের সৃষ্টি করে, যা সংক্রমিত মূল ভেরিয়েন্টের চেয়েও বেশি বিপজ্জনক।

সুইডেনে ডেল্টা ভারিয়েন্টের সংক্রমণের সংখ্যা শুরুর দিকে খুব কম থাকলেও গত সপ্তাহ থেকে তা ভয়াবহ মাত্রায় বৃদ্ধি পেতে থাকে। ব্রিটিশ গবেষকরা ডেল্টা ভেরিয়েন্টের ওপরে সবচেয়ে বেশি পর্যবেক্ষণ এবং গবেষণা করেছেন এবং তাঁরা দেখেছেন যে, ডেল্টা ভেরিয়েন্ট আলফা ভেরিয়েন্টের চেয়ে বেশি সহজে এবং দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে পারে। তবে ডেল্টার কারণে মানুষের দেহে অন্যান্য রোগের প্রাদুর্ভাব হয় এ বিষয়ে তাঁরা এখনো সন্দিহান। সুইডেনের রাষ্ট্রীয় প্রধান মহামারিবিদ আন্ডারস টেগনেল বলেন, বর্তমানে করোনা প্রতিরোধের জন্য যে ভ্যাকসিনগুলো ব্যবহার হচ্ছে, সেগুলো উদ্ভুত বিভিন্ন ধরনের কভিড-১৯ প্রতিরোধেই কার্যকর বলে মনে করা হচ্ছে এবং ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ মানবদেহে যথেষ্ট পরিমাণে সুরক্ষা ব্যবস্থা তৈরি করতে সক্ষম হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, গবেষণায় দেখা গেছে, প্রথম ডোজের পর ডেল্টা ভেরিয়েন্টের বিরুদ্ধে দেহে প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কিছুটা কম তৈরি হলেও দ্বিতীয় ডোজের পরে এটি যথেষ্ট পরিমাণে সুরক্ষা দিতে সক্ষম হচ্ছে এবং এ কারণে প্রত্যেককে দুটি ডোজ গ্রহণ করা জরুরি।

ইংল্যান্ডের জনস্বাস্থ্য সংস্থার সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী অ্যাস্ট্রা জেনেকার ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ দেওয়ার পরে কভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে প্রতিরক্ষামূলক প্রভাব আলফা ভেরিয়েন্টের বিপরীতে ৮৬ শতাংশ এবং ডেলটা ভেরিয়েন্টের বিপরীতে ৯২ শতাংশের মতো। তবে ফাইজার-বিয়নটেকের ভ্যাকসিনগুলোর জন্য একই বিষয়ের পরিসংখ্যান যথাক্রমে ৯৫ এবং ৯৬ শতাংশ। দুই ধরনের ভ্যাকসিনই আলফা এবং ডেল্টা উভয় ভেরিয়েন্টের বিরুদ্ধে যথেষ্ট কার্যকর এবং অবশ্যই তা প্রযোজ্য হবে দু’টি ডোজ নেওয়ার পর। অ্যাস্ট্রা ভ্যাকসিনের একটি ডোজ নেওয়ার পর ডেল্টা ভেরিয়েন্টের বিরুদ্ধে দেহে সুরক্ষা দেয় মাত্র ৭১ শতাংশ।



সাতদিনের সেরা