kalerkantho

শনিবার । ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩১ জুলাই ২০২১। ২০ জিলহজ ১৪৪২

ন্যাটোকে পাল্টা হুঁশিয়ারি দিল চীন

অনলাইন ডেস্ক   

১৫ জুন, ২০২১ ১৮:৩৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ন্যাটোকে পাল্টা হুঁশিয়ারি দিল চীন

বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে গতকাল সোমবার ন্যাটো সম্মেলনে বেইজিংয়ের সামরিক তৎপরতা নিয়ে চীনকে সতর্ক করার পর ন্যাটোকে পাল্টা হুঁশিয়ারি দিয়েছে চীন। বেইজিংকে হুমকি দেওয়ার মাধ্যমে ফাঁকা মাঠে অহেতুক উত্তেজনা না বাড়াতে চীন ন্যাটোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। এক বিবৃতিতে ইউরোপীয় ইউনিয়নের চীনা মিশন জানিয়েছে, বেইজিংয়ের প্রতিরক্ষা ও সামরিক আধুনিকায়নের বিষয়টি পুরোপুরি ন্যায় ও যুক্তিসংগত। একই সঙ্গে বলা হয়েছে, চীনের প্রতিরক্ষানীতি স্বচ্ছ ও উন্মুক্ত।

বিবৃতিতে ন্যাটোকে বেইজিংয়ের বিষয়ে আলোচনা বাদ দিয়ে নিজেদের মধ্যে আরো কার্যকর আলাপ করার তাগিদ দিয়েছে চীন। চীন জানায়, ন্যাটোর বেইজিংয়ের সার্বিক উন্নয়নকে যৌক্তিক দৃষ্টিকোণ থেকে দেখা এবং ভূ-রাজনৈতিক প্রতিযোগিতা বন্ধ করা উচিত। পাশাপাশি চীনের সার্বিক উন্নয়নে ন্যাটোকে ঈর্ষান্বিত না হওয়ারও আহ্বান জানানো হয়।

এর আগে গতকাল সোমবার ব্রাসেলসে ন্যাটো সম্মেলনে শীর্ষ নেতারা চীনের সাম্প্রতিক সামরিক তৎপরতাকে সতর্ক করেন। নেতারা বলেন, চীন নিজেদের পারমাণবিক কর্মসূচি ক্রমবর্ধমান হারে বাড়াচ্ছে। একই সঙ্গে রাশিয়ার সঙ্গে দেশটির সামরিক ঘনিষ্ঠতা রয়েছে, যাকে সারা বিশ্বের জন্য হুমকি হিসেবে উল্লেখ করেন তারা। সম্মেলনে ন্যাটো মহাসচিব জেনস স্টেলটেনবার্গ বলেন, চীনের সঙ্গে কোনো ধরনের স্নায়ুযুদ্ধে যেতে চায় না ন্যাটো।

মূলত সম্মেলন শুরুর আগে থেকেই চীনকে সতর্ক করে আসছে ন্যাটে। গত রবিবার জোটটির প্রধান জেনস স্টেলটেনবার্গ চীনের ক্রমবর্ধমান উত্থান ঠেকাতে ন্যাটোর সদস্য রাষ্ট্রগুলোকে আরো ঐক্যবদ্ধ হওয়ার জন্য বলেন।  ন্যাটো মহাসচিব বলেন, চীনের সামরিক খাতের বাজেট বিশ্বে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। দেশটির নৌবাহিনী বিশ্বে সবচেয়ে শক্তিশালী। চীন ধীরে ধীরে সামরিক খাতে বিনিয়োগ বাড়াচ্ছে, যা ন্যাটোভুক্ত দেশগুলোর নিরাপত্তার জন্য হুমকি।

সূত্র : বিবিসি, রয়টার্স।



সাতদিনের সেরা