kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১০ আষাঢ় ১৪২৮। ২৪ জুন ২০২১। ১২ জিলকদ ১৪৪২

পাকিস্তানকে 'পতিতালয়' বলার ব্যাখ্যা চায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

আফগানিস্তানের শীর্ষ উপদেষ্টাকে আচরণ "সংশোধন" করার আহ্বান

অনলাইন ডেস্ক   

৭ জুন, ২০২১ ১৬:৫৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পাকিস্তানকে 'পতিতালয়' বলার ব্যাখ্যা চায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি

পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আফগানিস্তানের জাতীয় সুরক্ষা উপদেষ্টা হামদুল্লাহ মহিবের বিরুদ্ধে কঠোর আক্রমণ শুরু করেছে। পাকিস্তানকে ‘পতিতালয়’ বলে অভিহিত করে দেওয়া তার বক্তব্যের ব্যাখ্যা দেওয়ার জন্য তার প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

মুলতানে রাজনৈতিক কর্মীদের সমাবেশে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি বলেন, ‘আফগানিস্তানের জাতীয় সুরক্ষা উপদেষ্টা আমাকে মনোযোগ সহকারে শুনুন, পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসাবে আমি বলছি যে, আপনি যে অভিযোগ তুলছেন তার যথাযথ ব্যাখ্যা আপনি যদি না দেন তবে কোনো পাকিস্তানি আপনার হাত ধরবে না বা আপনার সঙ্গে কথা বলবে না। পাশাপাশি আপনার কোন ধরনের ভাষা ব্যবহার করা উচিৎ সেটা বুঝে কথা বলতে হবে।

এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ সময়ে যখন মার্কিন বাহিনী আফগানিস্তান থেকে সরে আসছে ঠিক তখন মহিবের সাম্প্রতিক মন্তব্যগুলি প্রতিবেশী দেশদুটির মধ্যে কূটনৈতিক বিরোধ তৈরি করেছে। এ দেশটির সঙ্গে প্রায় ২,৬০০ কিলোমিটার সীমান্ত রয়েছে পাকিস্তানের। ডনের রিপোর্ট অনুযায়ী, পাকিস্তান আফগানিস্তানের নেতৃত্বের কাছে জানিয়েছে যে তারা ইসলামাবাদের বিরুদ্ধে সাম্প্রতিক "অবমাননাকর" মন্তব্যের কারণে ‘জাতীয় নিরাপত্তার’ কথা ভেবে দেশটির সঙ্গে আর অফিসিয়াল ব্যবসা করবে না।

এর আগে গত মাসে, নানগারহার প্রদেশে একটি জনসভায় আফগানিস্তানের জাতীয় সুরক্ষা প্রধান, হামদুল্লাহ মহিব পাকিস্তানকে "পতিতালয়" বলে অভিহিত করেছিলেন। এই বিষয়ে পাকিস্তানের এক প্রবীণ আধিকারিক নাম প্রকাশ না করার শর্তে ভয়েস অফ আমেরিকাকে বলেছেন, ইসলামাবাদের বিরুদ্ধে সাম্প্রতিক মন্তব্যে আফগান জাতীয় সুরক্ষা উপদেষ্টার সঙ্গে তার সরকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক স্থাপন করবে না।

পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ও এই মন্তব্যটির প্রসঙ্গে একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছে এবং এটিকে একটি ভিত্তিহীন অভিযোগ হিসাবে গণ্য করেছে। এতে  আরো বলা হয়েছে, এই জাতীয় মন্তব্য ইসলামাবাদ ও কাবুলের মধ্যে আস্থা ও পারস্পরিক বোঝাপড়াকে ক্ষুন্ন করে।

সূত্র: এএনআই।



সাতদিনের সেরা