kalerkantho

বুধবার । ২ আষাঢ় ১৪২৮। ১৬ জুন ২০২১। ৪ জিলকদ ১৪৪২

ইসরায়েলে পাল্টা হামলা চালাতে যেভাবে অস্ত্রভাণ্ডার সমৃদ্ধ করে হামাস

অনলাইন ডেস্ক   

২১ মে, ২০২১ ১০:৩২ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ইসরায়েলে পাল্টা হামলা চালাতে যেভাবে অস্ত্রভাণ্ডার সমৃদ্ধ করে হামাস

টানা ১১ দিন ধরে গাজা উপত্যকায় হামলা চালানোর পর আজ স্থানীয় সময় শুক্রবার যুদ্ধবিরতির আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছে ইসরায়েল। ইসরায়েল এবং গাজার নিয়ন্ত্রণকারী হামাসের মধ্যে চতুর্থবারের এই যুদ্ধে ফিলিস্তিনিরাও কম জবাব দেয়নি।

জানা গেছে, ফিলিস্তিনিরা গত কয়েক দিনে চার হাজারের বেশি রকেট হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি ভূখণ্ড লক্ষ্য করে। তার মধ্যে বেশ কিছু রকেট ইসরায়েলের গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় আঘাত হেনেছে। সব মিলিয়ে ফিলিস্তিনিরা যে শক্তিমত্তা এবার দেখিয়েছে, তা অতীতের যেকোনো সময়ের তুলনায় অনেক বেশি।

আল-আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক মাখাইমার আবুসাদা বলেছেন,  এবার (হামাসের) বোমা হামলার মাত্রা অনেক বেশি এবং এই সংঘাতের মধ্যে তারা যথাযথ পদক্ষেপ নিয়েছে। তারা ঠিক কী করে ফেলতে পারে, তা দেখে বিস্মিত না হয়ে উপায় নেই।

ইসরায়েলের যুক্তি ছিল, সহিংসতার ফলে গাজায় ২০ লাখের বেশি ফিলিস্তিনির মারাত্মক কষ্ট হচ্ছে। তবে হামাসের অস্ত্র তৈরি রোধের জন্য এটি আবশ্যক এবং ইসরায়েলের জনগণের শান্তি ফিরে না আসা পর্যন্ত অবরোধ চলবে।

এদিকে শুরুর দিকে হামাস হামলা চালাত লুকোচুরি করে। ইসরায়েলিদের গুলি করে হত্যা করত এবং অপহরণ করে নিয়ে যেত। ফিলিস্তিনি দ্বিতীয় ইন্তিফাদা বা ২০০০ সালের দিককার অভ্যুত্থানের সময় আত্মঘাতী বোমা হামলা চালিয়ে শত শত ইসরায়েলি হত্যা করেছে তারা।

সহিংসতা অব্যাহত থাকার ফলে একপর্যায়ে কাসসাম রকেট তৈরি করে হামাস। অল্প কয়েক কিলোমিটার দূরে হামলা চালাতে সক্ষম এটি। আর এর ফলে ক্ষতির পরিমাণও কম হতো।

কিন্তু এবার হামলা চালানোর মতো ড্রোন বের করে হামাস। ২৫০ কিলোমিটার দূরে হামলা চালানোর মতো ক্ষেপণাস্ত্র আইয়াশ এবার কাজে লাগায়। 

ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর দাবি, হামাসের অস্ত্র গবেষণা, সংরক্ষণ ও উৎপাদন ব্যবস্থা ধ্বংস করে দেওয়ার উদ্দেশ্যে এবার হামলা চালানো হয়েছে। তবে ইসরায়েলি কর্মকর্তারা স্বীকার করেছেন যে তাদের ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষাব্যবস্থা হামাসের নিক্ষেপ করা আইয়াশ আটকে দিতে পারেনি।

গত সপ্তাহে হামাসের সামরিক শাখা ইয্যাদ্দিন কাসসাম ব্রিগেডের মুখপাত্র আবু ওবায়দা জানিয়েছেন, ইসরায়েলের দক্ষিণাঞ্চলের রামুন বিমানবন্দরে মধ্যপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র 'আইয়াশ'-এর সাহায্যে হামলা চালানো হয়েছে। গাজা থেকে বিমানবন্দরটির দূরত্ব ২২০ কিলোমিটার, সেখানে ২৫০ কিলোমিটার পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রের সাহায্যে আঘাত হানা হয়েছে। ইসরায়েলের ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষাব্যবস্থা আয়রন ডোম এটিকে আটকাতে ব্যর্থ হয়েছে। ক্ষেপণাস্ত্রটি ইসরায়েলের যেকোনো স্থানে হামলা করতে সক্ষম।

ইসরায়েলি সেনাবাহিনী গত সপ্তাহেই জানিয়েছে, ইসরায়েলের দিকে গাজা থেকে প্রায় দেড় হাজার রকেট ছোড়া হয়েছে। যার বেশির ভাগ আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা 'আয়রন ডোম' দিয়ে ধ্বংস করা হয়।

হামাসের রাজনৈতিক ব্যুরোর উপ-প্রধান সালেহ আল আরোয়ি আল-আকসা টিভি চ্যানেলকে গত সপ্তাহে বলেছেন, আমরা ইসরায়েলে এ পর্যন্ত যেসব ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করেছি তার সবগুলোই পুরনো। আমাদের মূল অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র এখনো ব্যবহার করিনি।

সূত্র : এপি।



সাতদিনের সেরা