kalerkantho

শুক্রবার । ৪ আষাঢ় ১৪২৮। ১৮ জুন ২০২১। ৬ জিলকদ ১৪৪২

দাহ করার খরচ নেই দরিদ্রদের, গঙ্গায় ভাসানো হচ্ছে মৃতদেহগুলো

অনলাইন ডেস্ক   

১১ মে, ২০২১ ১৩:৩০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দাহ করার খরচ নেই দরিদ্রদের, গঙ্গায় ভাসানো হচ্ছে মৃতদেহগুলো

ভারতের বিহারে বক্সার জেলার চৌসায় ভয়াবহ দৃশ্য চোখে পড়ছে মানুষের। গতকাল সোমবার সেখানে গঙ্গায় ভেসে আসে প্রচুর মৃতদেহ। একসঙ্গে এতগুলো দেহ গঙ্গার তীরে পড়ে থাকতে দেখে চাঞ্চল্য ছড়ায়। সেই মৃতদেহগুলোকে কুকুর ছিঁড়ে খাচ্ছিল।

প্রশাসনের আশঙ্কা, এগুলো করোনায় মৃতদের দেহ। কয়েকটি দেহ কিছুটা পোড়া। ফুলে গেছে। কয়েকদিন ধরে জলে ভেসেছিল। সরকারি কর্মকর্তাদের অনুমান, দেহগুলো এসেছে উত্তর প্রদেশ থেকে। গরিব মানুষরা সম্ভবত দাহ করার খরচ পর্যন্ত জোগাড় করতে পারেননি। সেই সঙ্গে করোনার ভয়ও আছে।

বক্সারের সাব ডিভিশনাল অফিসার কেকে উপাধ্যায় সংবাদ সংস্থা এএনআইকে বলেছেন, দূর থেকে ১০-১২টি মৃতদেহ ভেসে এসেছিল। প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে, বিগত ৫-৭ দিন ধরে সেগুলো জলে ভাসছিল। জলে দেহ ভাসানোর প্রথা আমাদের এখানে নেই। দেহগুলোর সৎকারের ব্যবস্থা করছি আমরা।

সংবাদসংস্থা ডিপিএকে স্থানীয় সরকারি কর্মকর্তা নওল কান্ত জানিয়েছেন, ৩৫-৪০টি দেহ ভেসে আসে। সেগুলো করোনায় মারা যাওয়া রোগীর মৃতদেহ বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। সাধারণ সময়ে এক-দুটি দেহ গঙ্গায় ভেসে আসে। কিন্তু এত দেহ কখনো আসে না। করোনার জন্যই এটা হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

স্থানীয় মানুষরা সংবাদ সংস্থা এএফপিকে বলেছেন, তাদের মনে হচ্ছে, দেহগুলো শ্মশানে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। কিন্তু উত্তর প্রদেশ, বিহারের গরিব মানুষদের এখন দাহ করার খরচ জোগাড় করা মুশকিল হয়ে পড়েছে। তারা সেখানেই দেহ ফেলে রেখে চলে গিয়েছিল বলে তাদের অনুমান। টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, দেহগুলোর ময়নাতদন্ত হবে।

ভারতে এখন করোনা পরিস্থিতি রীতিমতো খারাপ। সাড়ে তিন লাখের বেশি মানুষ রোজ আক্রান্ত হচ্ছেন। মারা যাচ্ছেন সাড়ে তিন থেকে চার হাজার মানুষ। উত্তর প্রদেশে করোনা লাফিয়ে বাড়ছে। বিহারের অবস্থাও ভালো নয়। পশ্চিমবঙ্গে ভোটের পরই করোনার বাড়বাড়ন্ত দেখা যাচ্ছে। দিল্লির অবস্থা আগের তুলনায় কিছুটা ভালো হয়েছে। সোমবার দিল্লিতে আক্রান্ত হয়েছিলেন বারো হাজারের বেশি মানুষ।
সূত্র : ডয়চে ভেলে 



সাতদিনের সেরা