kalerkantho

শুক্রবার । ৪ আষাঢ় ১৪২৮। ১৮ জুন ২০২১। ৬ জিলকদ ১৪৪২

গোবর করোনার বিরুদ্ধে অকার্যকর : ভারতীয় চিকিৎসকদের হুঁশিয়ারি

অনলাইন ডেস্ক   

১১ মে, ২০২১ ১২:১৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গোবর করোনার বিরুদ্ধে অকার্যকর : ভারতীয় চিকিৎসকদের হুঁশিয়ারি

করোনা থেকে রক্ষায় গোবরের কার্যকর নয় বলে সতর্ক করেছেন ভারতের চিকিৎসকেরা। তারা বলছেন, করোনা প্রতিরোধে গোবরের কার্যকারিতা নিয়ে কোনো বিজ্ঞানভিত্তিক প্রমাণ পাওয়া যায়নি। এমনকি এতে অন্যান্য রোগ ছড়ানোর সম্ভাবনা রয়েছে।

করোনার সংক্রমণে বিপর্যস্ত ভারত। হাসপাতালগুলোতে শয্যা নেই, সেই সঙ্গে রয়েছে অক্সিজেন সংকট। দেশটিতে দুই কোটি ২৬ লাখ ৬০ হাজার মানুষ এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে প্রায় আড়াই লাখ মানুষের। তবে এ সংখ্যা আরো কয়েকগুণ বেশি বলে বলছেন বিশেষজ্ঞরা।

পশ্চিম ভারতের গুজরাট রাজ্যের কিছু অঞ্চলের মানুষজনের বিশ্বাস, সপ্তাহে একদিন গোমূত্র বা গোবর শরীরে মাখলে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায় এবং তা করোনা থেকে রক্ষা করতে পারে। এছাড়া সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মাঝে গরুকে পবিত্রতার চিহ্ন হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

একটি ওষুধ কম্পানির সহকারী ব্যবস্থাপক গৌতম মনিলাল বরিষা জানান, গত বছর করোনা থেকে সুস্থ হতে এই পদ্ধতি কাজে দিয়েছিল তার। তিনি বলেন, 'আমরা তো দেখি, চিকিৎসকেরাও এখানে আসেন।' তারা বিশ্বাস করেন, এই থেরাপি তাদের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়। ফলে তারা নির্ভয়ে রোগীদের সেবায় নিয়োজিত হতে পারেন। শরীরে গোবর মেখেই গত বছর তিনি করোনাভাইরাস থেকে মুক্তি পেয়েছিলেন বলে দাবি করেন এই ব্যক্তি।

ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট ডা. জে এ জয়লাল বলেন, গোমূত্র বা গোবর কভিড-১৯-এর বিরুদ্ধে শরীরে প্রতিরোধক্ষমতা তৈরি করতে পারে এমন কোনো বিজ্ঞানভিত্তিক প্রমাণ নেই। এর পুরোটাই বিশ্বাসের ওপর নির্ভরশীল। এসবে বরং স্বাস্থ্যঝুঁকি রয়েছে। প্রাণী থেকে মানবদেহে অন্যান্য রোগবালাই ছড়াতে পারে।

অন্যদিকে আহমেদাবাদের একটি গোশালার দায়িত্বরত কর্মকর্তা মধুচরণ দাস রয়টার্সকে জানান, গণজমায়েত করে গোমূত্র ও গোবর শরীরে মাখার আয়োজনের ফলে করোনাভাইরাস ছড়াতে পারে বিধায় তারা এই কার্যক্রমে অংশগ্রহণকারীর সংখ্যা কমিয়েছেন।



সাতদিনের সেরা