kalerkantho

মঙ্গলবার । ৮ আষাঢ় ১৪২৮। ২২ জুন ২০২১। ১০ জিলকদ ১৪৪২

বাবার লাশ গাড়ির ছাদে বেঁধে শ্মশানে নিয়ে গেল ছেলে!

অনলাইন ডেস্ক   

২৬ এপ্রিল, ২০২১ ১৪:৪৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাবার লাশ গাড়ির ছাদে বেঁধে শ্মশানে নিয়ে গেল ছেলে!

একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে, গাড়ির ছাদে বাবার দেহ অন্ত্যেষ্টির জন্য নিয়ে যাচ্ছেন এক ব্যক্তি। অন্য একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে, স্বামীর মুখে নিজের মুখ দিয়ে অক্সিজেন দিয়ে বাঁচানোর চেষ্টা করছেন এক নারী। পরে ছবি দুটি ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এ ঘটনা ভারতের উত্তর প্রদেশের। অক্সিজেনের অভাবে মানুষের এই হাহাকার। প্রতি মুহূর্তে মারা যাচ্ছে মানুষ।

প্রথম ছবিতে দেখা যাচ্ছে, একটি লাল গাড়ির ছাদে সাদা চাদরে মোড়া একটি দেহ। এটি আগ্রার মোহিত নামের এক ব্যক্তির বাবার মরদেহ, যিনি সম্প্রতি করোনায় মারা গেছেন। কিন্তু শেষকৃত্যের জন্য মরদেহ নিয়ে যাওয়ার কোনো গাড়ি পাওয়া যায়নি। অবশেষে নিজেদের গাড়ির ছাদে বাবার দেহ বেঁধে নিয়ে যান শেষকৃত্যের জন্য। এদিকে উত্তর প্রদেশে শেষকৃত্যের জন্য শ্মশানের বাইরে দীর্ঘ সারি। টিকিট কেটে অপেক্ষা করতে হচ্ছে মানুষকে।

ভাইরাল হওয়া আরেকটি ছবিতে দেখা গিয়েছে, অটোর মধ্যে শুয়ে রয়েছেন এক ব্যক্তি। আর তার মুখে মুখ দিয়ে এক নারী অক্সিজেন দেওয়ার চেষ্টা করছেন। ওই ব্যক্তির শ্বাসকষ্ট শুরু হয়েছিল কিন্তু কোথাও অক্সিজেন পাওয়া যাচ্ছিল না। তাই স্বামীকে বাঁচাতে নিজের মুখ দিয়েই কৃত্রিম ভাবে শ্বাসপ্রক্রিয়া চালানোর চেষ্টা করছিলেন সেই নারী। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাকে বাঁচানো যায়নি। এই ঘটনাও উত্তর প্রদেশের আগ্রার।

স্থানীয় রাজনৈতিক নেতা রামগোপাল বাঘেল রাজ্যের এই পরিস্থিতির জন্য রাজ্য এবং কেন্দ্র সরকারের দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলেছেন। তার অভিযোগ, করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে বিজেপি সব সময় ব্যর্থ। এর আগে উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ জোর গলায় বলেছেন, তার রাজ্যে অক্সিজেনের কোনো ঘাটতি নেই।



সাতদিনের সেরা