kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ বৈশাখ ১৪২৮। ৭ মে ২০২১। ২৪ রমজান ১৪৪২

ইন্দোনেশিয়ার নিখোঁজ সাবমেরিনে অক্সিজেন ফুরিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা

অনলাইন ডেস্ক   

২৪ এপ্রিল, ২০২১ ১৬:৫৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইন্দোনেশিয়ার নিখোঁজ সাবমেরিনে অক্সিজেন ফুরিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা

ইন্দোনেশিয়ার নৌবাহিনীর একটি সাবমেরিন ৫৩ জন আরোহী নিয়ে বুধবার সাগরে নিখোঁজ হয়ে যায়। নিখোঁজ সাবমেরিনে অক্সিজেন ফুরিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছে উদ্ধারকারী দল। তিন দিনেও সাবমেরিনটি উদ্ধার না হওয়ায় ক্রুদের জীবিত পাওয়ার আশা প্রায় শেষ!

ইন্দোনেশিয়ার এক সামরিক মুখপাত্র বলেন, স্থানীয় সময় শনিবার বিকাল ৩টা (জিমটি শুক্রবার রাত ৯টা) পর্যন্ত নিখোঁজ সাবমেরিনে থাকা নাবিকদের টিকে থাকার মতো পর্যাপ্ত অক্সিজেন আছে। কিন্তু এ সময়সীমা পার হয়ে গেছে।

কেআরআই নাঙ্গালা ৪০২ নামের এই সাবমেরিনটি বালি দ্বীপের উপকুলের নিকটবর্তী সমুদ্রে একটি মহড়ায় অংশ নিচ্ছিল। বুধবার সকালে টর্পেডো মহড়ার অনুমতি চাওয়ার কিছু ক্ষণ পরই হঠাৎ করে সাবমেরিনটি নিখোঁজ হযে যায়। এর পর সাগরে ব্যাপক অনুসন্ধান তৎপরতা শুরু হয়।

কমপক্ষে ৬টি যুদ্ধ জাহাজ, একটি হেলিকপ্টার ও ৪০০ লোক এ অনুসন্ধানে অংশ নিচ্ছে। সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়া এলাকাটিতে জাহাজ পাঠিয়েছে। অস্ট্রেলিয়া, ফ্রান্স ও জার্মানিও সহায়তার প্রস্তাব দিয়েছে।

১৯৭০ সালে নির্মিত সাবমেরিনটি জার্মানির তৈরি, এবং ইন্দোনেশিয়ার মোট পাঁচটি সাবমেরিন রয়েছে। যে জায়গাটিতে সাবমেরিনটি ডুবে গেছে বলে মনে করা হচ্ছে তার কাছাকাছি সাগরে তেল ছড়িয়ে পড়তে দেখা গেছে। তাই ধারণা করা হচ্ছে যে হয়তো সাবমেরিনটির তেলের ট্যাংকে ছিদ্র হয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে থাকতে পারে।

বৃহস্পতিবার রাতে ইন্দোনেশিয়ান সামরিক বাহিনী জানায়, তারা সাগরের একটি জায়গায় ৫০ থেকে ১০০ মিটার গভীরে ( ১৬৫ থেকে ৩৩০ ফিট) কিছু একটা বস্তুর উপস্থিতি চিহ্নিত করতে পেরেছে। সেটি নিখোঁজ সাবমেরিনটিই কি না - তা জানার জন্য এখন শব্দতরঙ্গ দিয়ে নিমজ্জিত বস্তু চিহ্নিত করতে পারে এমন একটি জাহাজকে কাজে লাগানো হয়েছে।

সূত্র: বিবিসি।



সাতদিনের সেরা