kalerkantho

শনিবার । ২৫ বৈশাখ ১৪২৮। ৮ মে ২০২১। ২৫ রমজান ১৪৪২

ক্ষমতাসীন দলের ইতিহাস বিকৃতিকারীদের বিরুদ্ধে হটলাইন চালু করল চীন

অনলাইন ডেস্ক   

১৪ এপ্রিল, ২০২১ ১২:১৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্ষমতাসীন দলের ইতিহাস বিকৃতিকারীদের বিরুদ্ধে হটলাইন চালু করল চীন

চীনা কমিউনিস্ট পার্টির (সিসিপি) জুলাই মাসে পালিত হতে যাওয়া ১০০তম বার্ষিকীর আগে দেশটির ঐতিহাসিক হিরোদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা বা অপমানের জবাবে পদক্ষেপ নিতে একটি হটলাইন চালু করেছে। চীনের সাইবার নিয়ন্ত্রক সংস্থা ক্ষমতাসীন দলকে অপমানমূলক অনলাইন মন্তব্য তদারকি করার জন্য এ হটলাইনটি চালু করে।

হটলাইনটি তাদের সহযোগী নেটিজেনদের বিরূপ প্রতিবেদন করতে বাধা দেবে। যারা ক্ষমতাসীন দলের ইতিহাসকে 'বিকৃত' করে, সরকারের নেতৃত্ব এবং নীতিগুলোকে আক্রমণ করে কথা বলে, জাতীয় বীরকে অপমান করে এবং 'উন্নত সমাজতান্ত্রিক সংস্কৃতির উৎসাহকে অস্বীকার করে' তাদের এই হটলাইনের মাধ্যমে শনাক্ত করা হবে। ফক্স নিউজ চীনের সাইবারস্পেস প্রশাসনের এক বিজ্ঞপ্তির বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে। 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে : কিছু মানুষ খারাপ উদ্দেশ্য নিয়ে অনলাইনে ঐতিহাসিক অহেতুক মিথ্যা উপস্থাপনা ছড়িয়েছে। যা পার্টির ইতিহাসকে বিদ্বেষজনকভাবে বিকৃত করছে, অবজ্ঞা করছে এবং উপেক্ষা করছে। আমরা আশা করি যে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যাগরিষ্ঠ সমাজ তদারকি করতে এ হটলাইন সক্রিয় ভূমিকা পালন করবে। এবং উৎসাহের সঙ্গে ক্ষতিকারক তথ্যের প্রতিবেদন করবে।

চীনে কঠোরভাবে ইন্টারনেট সেন্সর করা হয়। দেশটিতে বেশির ভাগ বিদেশি সোশাল মিডিয়া নেটওয়ার্ক, সার্চ ইঞ্জিন এবং নিউজ আউটলেটগুলো নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এ বছরের শুরুর দিকে, একটি আইনি সংশোধনীতে বলা হয়েছিল যে যারা চীনের জাতীয় বীর এবং শহীদদের স্মৃতি 'অবমাননা, কুৎসা ও লঙ্ঘন' করেছে তাদের তিন বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হবে। গত সপ্তাহে, পূর্ব চীনের প্রদেশ জিয়াংসু কর্তৃপক্ষ জাপানের ১৯৩৭ সালে নানজিং-এর দখল সম্পর্কে অনলাইনে 'আপত্তিজনক' মন্তব্য করার জেরে একজন ১৯ বছর বয়সী ব্যক্তিকে আটক করে বলে ফক্স নিউজ জানিয়েছে।

চীন তথ্যের কঠোর সেন্সরশিপের জন্য বিশ্বব্যাপী সমালোচিত। বিশেষ করে সম্প্রতি করোনভাইরাসের প্রাদুর্ভাব সম্পর্কে তথ্য গোপন করার জন্য পুরো বিশ্বের নিন্দার মুখে পড়ে দেশটি।
সূত্র : এএনআই



সাতদিনের সেরা