kalerkantho

শুক্রবার। ৩১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ মে ২০২১। ০২ শাওয়াল ১৪৪২

ইরানের পারমাণবিক কেন্দ্রে সন্ত্রাসী হামলা

অনলাইন ডেস্ক   

১২ এপ্রিল, ২০২১ ১৬:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ইরানের পারমাণবিক কেন্দ্রে সন্ত্রাসী হামলা

ইরানের নাটানজ পারমাণবিক কেন্দ্রে হামলার ঘটনা ঘটেছে। গতকাল রবিবার এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে তেহরান এটিকে সন্ত্রাসী হামলা বলে আখ্যায়িত করেছে। নাতানজের ওই পরমাণু কেন্দ্রে হামলার এই অভিযোগ করেন ইরানের পরমাণু শক্তি সংস্থা (এইওআই) প্রধান আলী আকবর সালেহি । ইরানি বিপ্লবী গার্ড কর্পসের (আইআরজিসি) টেলিগ্রাম চ্যানেলের বরাত দিয়ে এ খবর প্রকাশ করেছে মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএন। তবে এ ঘটনার জন্য কাউকে স্পষ্টভাবে দায়ী করেনি ইরান। এর এক দিন আগে ইরান তার পরমাণু সমৃদ্ধকরণের নতুন সরঞ্জাম উন্মোচন করে।

আলী আকবর সালেহি তার বক্তব্যে বলেন, 'নাতানজ পরমাণু সমৃদ্ধকরণ কেন্দ্রের বিরুদ্ধে এই কর্মকাণ্ড প্রমাণ করছে দেশটির শিল্প ও রাজনৈতিক অর্জনের বিরোধীদের পরাজয়, যারা পরমাণু শিল্পের তাৎপর্যপূর্ণ উন্নতিকে রুখতে চেয়েছে।'

বিশ্বশক্তির সঙ্গে ২০১৫ সালে ইরানের পরমাণু চুক্তির দিকে ইঙ্গিত করে আলী আকবর সালেহি বলেন, ইরানের ওপর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার বিরোধীরাই এই নাশকতা চালিয়েছে। ইরানের বিরুদ্ধে এই 'পরমাণু সন্ত্রাসের' নিন্দার সঙ্গে সঙ্গে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ও আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থার (আইএইএ) প্রতি আহ্বান জানান সালেহি।

এদিকে ইসরায়েলের সংবাদমাধ্যম কান পাবলিক রেডিও দেশটির গোয়েন্দা সূত্রের বরাত দিয়ে জানায়, ইসরায়েলি গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদ ইরানের পরমাণু কেন্দ্রটিতে সাইবার হামলা চালিয়ে ওই কেন্দ্রটির কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছিল। তবে হামলার বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো মন্তব্য করেনি ইসরায়েল।

এর আগে গতকাল রবিবার এইওআই মুখপাত্র বেহরুজ কামালওয়ান্দি ইরানের বার্তা সংস্থা ফার্স নিউজ এজেন্সির কাছে রাজধানী তেহরানের ৩১৬ কিলোমিটার দক্ষিণের ওই পরমাণু কেন্দ্রের বিদ্যুৎ সংযোগে 'সমস্যার' কথা জানান। তবে এতে কোনো প্রাণহানি বা পরিবেশদূষণ হয়নি বলে জানান তিনি।

গত বছরের জুলাই মাসেও নাতানজের পরমাণু কেন্দ্রে বিশাল এক অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। তবে এতে কোনো লোক হতাহত হয়নি। অগ্নিকাণ্ডের এ ঘটনায় ইরান 'অন্তর্ঘাতমূলক' হামলার অভিযোগ করে বলে, হামলার জন্য 'অভ্যন্তরীণ গুপ্তচরদের' ভূমিকার জোরালো সন্দেহ করা হচ্ছে। তবে ইরানি কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে বিস্তারিত কোনো তথ্য জানায়নি।

ইরানি পার্লামেন্টের সদস্য মালেক শরিয়তি নিয়াসার এক টুইট বার্তায় রবিবারের ঘটনাকে 'গুরুতর সন্দেহজনক' মন্তব্য করে দেশটির পরমাণু কেন্দ্রে সম্ভাব্য 'অন্তর্ঘাত ও অনুপ্রবেশের' জন্য উদ্বেগ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ইরানি পার্লামেন্টের সদস্যরা এ ঘটনায় বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছেন।

এদিকে আইএইএর এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, 'সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন সম্পর্কে আমরা সচেতন আছি। এই পর্যায়ে আমাদের কোনো মন্তব্য নেই।'

সূত্র : আল-জাজিরা, বিবিসি।



সাতদিনের সেরা