kalerkantho

বুধবার । ২৯ বৈশাখ ১৪২৮। ১২ মে ২০২১। ২৯ রমজান ১৪৪২

বিজেপির গলায় দড়ি দিয়ে মরা উচিত, বললেন মমতা

অনিতা চৌধুরী, কলকাতা প্রতিনিধি   

১০ এপ্রিল, ২০২১ ২০:১১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিজেপির গলায় দড়ি দিয়ে মরা উচিত, বললেন মমতা

পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনে চতুর্থ দফার ভোটে কোচবিহারের শীতলকুচিতে আজ চারজনের মৃত্যুর ঘটনায় বিজেপিকে তীব্র আক্রমণ করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদ থেকে অমিত শাহের পদত্যাগ করা উচিৎ বলে দাবি করলেন মমতা।

বিজেপিকে তীব্র আক্রমণ করে মমতা বলেন,”বিজেপির গলায় দড়ি দিয়ে মরা উচিত। বিজেপি মিথ্যে কথা বলে।”

"এ মৃত্যু অত্যন্ত দুঃখজনক আমি অমিত শাহর পদত্যাগ দাবি করছি," বললেন মমতা।

এদিন শীতলকুচিতে ঘটেছে এক অভূতপূর্ব ঘটনা, শীতলকুচির জোড় পাটকির ১৩৬ নম্বর বুথে ভারতের কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে ৪ জনের মৃত্যু হয়।

সাধারণ মানুষকে তিনি বলেন, “আপনাদের একমাত্র রক্ষাকবচ তৃণমূল। অন্য আর কেউ নয়। আমরা ভাগাভাগি করি না। আমরা সবার জন্য করি, সব ধর্মের জন্য করি।”

তিনি বলেন, “বিজেপি প্রতারণা করছে। ভুল বোঝাচ্ছে। ওরা এনপিআর, এনআরসি করবে। আসামি দেখেছেন কিভাবে মানুষকে ডিটেনশন ক্যাম্পে পাঠাচ্ছে তেমনি এখানে ওরা একই জিনিস করবে,"  বলেও তোপ দাগেন মমতা।

অন্যদিকে শীতলকুচির ঘটনায় মমতা জানান, আগামীকাল তিনি শীতলকুচি যাবেন। এই ঘটনায় শুরু হয়েছে এক রাজনৈতিক বিতর্ক এবং কেন্দ্রীয় বাহিনীর কাছে জবাব চাওয়া হয়েছে।

ইতিমধ্যে  নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে গুলি চালিয়েছে বাহিনীই। তৃণমূল সাংসদ দোলা সেন বলেছেন, “এই রক্ত উপত্যাকা আমার দেশ নয়, আমরা শান্তি চাই।”

তৃণমূলের দাবি, মৃত ৪ জনই তৃণমূল কর্মী। ঘটনায় ওই বুথে ভোট বন্ধ রেখেছে ইলেকশন কমিশন।

এই ঘটনা ছাড়াও এই শীতলকুচিতেই সকালে ১৮ বছর বয়সের প্রথম ভোটার গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায়। আনন্দ বর্মণ বিজেপি সমর্থক বলে বাড়ির লোকের দাবি। রবীন্দ্রনাথ ঘোষ বলেন, “বিজেপি হার্মাদদের আক্রমণে এই ঘটনা ঘটেছে।



সাতদিনের সেরা