kalerkantho

বুধবার । ২৯ বৈশাখ ১৪২৮। ১২ মে ২০২১। ২৯ রমজান ১৪৪২

জিনজিয়াং নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ, চীনে এইচঅ্যান্ডএম-এর ২০ দোকান বন্ধ

অনলাইন ডেস্ক   

৬ এপ্রিল, ২০২১ ১২:৪১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জিনজিয়াং নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ, চীনে এইচঅ্যান্ডএম-এর ২০ দোকান বন্ধ

চীনের জিনজিয়াংয়ে সংখ্যালঘু উইঘুর মুসলিমদের দিয়ে জোরপূর্বক কাজ করানোর অভিযোগ রয়েছে। বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করার জেরে সুইডেনভিত্তিক পোশাক বিক্রয়কারী প্রতিষ্ঠান এইচঅ্যান্ডএম-এর ২০টি দোকান চীনে বন্ধ হয়ে গেছে।

সম্প্রতি এইচঅ্যান্ডএম ছাড়াও আরো বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান চীন সরকারের চাপের মুখে পড়েছে। জিনজিয়াংয়ে সূতির সূতা তৈরিতে জোরপূর্বক সংখ্যালঘু উইঘুরদের ব্যবহার করার ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে তারা। আর ওই ঘটনার জেরে চীনের কমিউনিস্ট পার্টির রোষানলে পড়েছে কম্পানিগুলো।

জিনজিয়াংয়ে উইঘুরদের দিয়ে জোরপূর্বক কাজ করানোর অভিযোগে চীনের কর্মকর্তাদের ওপর গত সপ্তাহে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, ব্রিটেন এবং কানাডা। সেই ঘটনার জেরে এইচঅ্যান্ডএম, নাইক এবং আরো বেশ কিছু কম্পানির ওপর চটেছে চীনের কমিউনিস্ট পার্টি।

চীনে এইচঅ্যান্ডএম এর ৫০০টি আউটলেটের মধ্যে ২০টি বন্ধ হয়ে গেছে। এর মধ্যে বেশ কিছু আউটলেট বন্ধ হয়ে গেছে  জমির মালিকের নির্দেশনায়। অর্থাৎ, এইচঅ্যান্ডএম-এর আউটলেট সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন দোকানের জমির মালিক। এদিকে স্থানীয় ক্রেতারা এসব কম্পানির পণ্য বয়কটের ডাক দিয়েছেন।

গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এইচঅ্যান্ডএম, নাইক এবং আদিদাস-এর পণ্য বয়কটের ডাক এসেছে চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম থেকে। 

চীনের বেশ কয়েকজন সেলিব্রিটি নাইক, আদিদাস, পুমা, কনভার্স, কেলভিন ক্লেইন, টমি হিলফিগার এবং ইউনিকলো'র সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করেছেন এবং সম্পর্ক ছিন্ন করার কথা বলেছেন। চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমে এসেব কম্পানির পণ্য বয়কটের ডাক দেওয়ার পর তারা এ ধরনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

সূত্র: ফিন্যান্সিয়াল পোস্ট



সাতদিনের সেরা