kalerkantho

বুধবার । ৯ আষাঢ় ১৪২৮। ২৩ জুন ২০২১। ১১ জিলকদ ১৪৪২

আল-আকসা মসজিদে মুসল্লিদের ওপর ইসরায়েলি হামলা, আটক ৫

অনলাইন ডেস্ক   

১৪ মার্চ, ২০২১ ১৯:০৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আল-আকসা মসজিদে মুসল্লিদের ওপর ইসরায়েলি হামলা, আটক ৫

জেরুসালেমের আল-আকসা মসজিদে নামাজ আদায় করতে যাওয়া মুসল্লিদের ওপর হামলা করেছে ইসরায়েলি বাহিনী। এই সময় পাঁচজনকে আটক করে ইসরায়েলি সৈন্যরা। ফিলিস্তিনি সূত্রগুলো বলেছে, গত শুক্রবার জুমার নামাজের পর ইসরায়েলি সেনারা মসজিদে আসা মুসল্লিদের ওপর হামলা চালায়। এ সময় সৈন্যরা মুসল্লিদের লক্ষ্য করে স্টান গ্রেনেড নিক্ষেপ করে এবং আল-আসবাত গেট দিয়ে মসজিদ প্রাঙ্গণ ছাড়তে তাদের বাধ্য করে।

অপরদিকে জুমার নামাজ আদায় করতে আসা পশ্চিমতীরের ৩২১ ব্যক্তিকে বাধা দেয় ইসরায়েলি বাহিনী। এই সময় তাদের মধ্য থেকে চারজনকে আটক করে সৈন্যরা। গত শুক্রবার ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনী পশ্চিমতীরজুড়ে ইসরায়েলি বসতি নির্মাণবিরোধী সাপ্তাহিক বিক্ষোভ দমনে তাদের তৎপরতা অব্যাহত রাখে।

বাইত দাজান গ্রামে ইসরায়েলি বসতি নির্মাণবিরোধী বিক্ষোভকারীদের লক্ষ্য করে ইসরায়েলি সেনারা গুলি ছুড়লে তিন ব্যক্তি আহত হন। বিক্ষোভকারীদের লক্ষ্য করে ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনীর টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপের কারণে অনেকেই শ্বাসকষ্টে ভোগেন। একই সঙ্গে ইসরায়েলি বাহিনী বিক্ষোভ দমনে রাবার বুলেট ব্যবহার করে। ফিলিস্তিনিদের নজরদারির জন্য এই গ্রামে সম্প্রতি একটি নিরাপত্তা ফাঁড়িও স্থাপন করা হয়েছে।

পশ্চিমতীরের কাফর কাদ্দুমের পূর্বে কালকিলিয়া শহরে ইসরায়েলি বাহিনী ও ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সংঘর্ষে ইসরাইলি বাহিনী টিয়ার গ্যাস, সাউন্ড গ্রেনেড ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। টিয়ার গ্যাসের কারণে অনেকেই শ্বাসকষ্টে ভুগেছেন।

১৯৬৭ সালে আরব-ইসরাইল যুদ্ধের পর অধিকৃত পশ্চিমতীর ও পূর্ব জেরুসালেমে অন্তত ২৩০ অবৈধ বসতিতে ৬০ লাখের বেশি ইহুদি বাস করছেন। জাতিসঙ্ঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাব ২৩৩৪ উপেক্ষা করে পশ্চিমতীর ও পূর্ব জেরুজালেমে এসব বসতি নির্মাণ করেছে ইসরায়েল। সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ফিলিস্তিনবিরোধী নীতির ইন্ধনে বসতি নির্মাণের এই কাজ জোরদার করেছে ইহুদিবাদী দেশটি। আন্তর্জাতিক আইন অনুসারে, অধিকৃত ভূখণ্ডে যেকোনো স্থাপনা নির্মাণ অবৈধ।

সূত্র : দ্য ইসলামিক ইনফরমেশন।



সাতদিনের সেরা