kalerkantho

শুক্রবার । ৩ বৈশাখ ১৪২৮। ১৬ এপ্রিল ২০২১। ৩ রমজান ১৪৪২

করোনা মহামারি ও নিরাপত্তা ঝুুঁকির মধ্যে

ইরাকে পোপ ফ্রান্সিসের ঐতিহাসিক সফর শুরু

অনলাইন ডেস্ক   

৫ মার্চ, ২০২১ ১৪:৪৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইরাকে পোপ ফ্রান্সিসের ঐতিহাসিক সফর শুরু

করোনা মহামারি ও নিরাপত্তা ঝুঁকির মধ্যেও ইরাকে চারদিনের ঐতিহাসিক সফর শুরু করেছেন পোপ ফ্রান্সিস। আজ শুক্রবার (৫ মার্চ) রোম থেকে বাগদাদের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেন তিনি। প্রধান যাজক হিসেবে এটিই তাঁর প্রথম ইরাক সফর। তার এই সফর ইরাকের খ্রিস্টানদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

পোপের নিরাপত্তায় ইরাকের নিরাপত্তা বাহিনীর ১০ হাজার সদস্য মোতায়েন করা হয়। পাশাপাশি জনসমাগম নিয়ন্ত্রণে করোনাস সংক্রমন ঝুঁকি কমাতে ২৪ ঘণ্টার কারফিউ জারি করা হয়।

পোপ ফ্রান্সিস বাগদাদ, মোসুল ও কারাকাস গমন করবেন। এছাড়াও ইরবিলে কুর্দি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সাক্ষাত করবেন। প্রায় দেড় লাখ খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী সেন্ট্রাল ইরাক থেকে পালিয়ে এসে এখানে আশ্রয় নেয়।

প্রথমে আল কায়দা ও পরে আইএস ইরাকে খ্রিস্টানদের আক্রমণ করেছে। তার ফলে লাখ লাখ খ্রিস্টান তুরস্ক, লেবানন, জর্ডন এবং উত্তর ইরাকের কুর্দি এলাকায় চলে গেছেন।

ক্যালডিয়ান চার্চের পাদ্রী কার্ডিনাল লুই রাফায়েল সাকো বলেন, ‌‘আমরা আশা করি, পোপের সফরের ফলে খ্রিস্টানদের ট্র্যাজেডির উপর মানুষের নজর যাবে। ইরাকের সব ধর্মাবলম্বীদের প্রতি বিশেষ বার্তা থাকবে যে ধর্ম মানুষকে বিভক্ত করে না। বরং তা ঐক্যবদ্ধ করে। এবং আমরা সবাই ইরাকের অধিবাসী ও একই স্তরের নাগরিক।’

পোপ তার সফরে ইরাকের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বৈঠক করবেন। সেখানে তিনি ইরাকে খ্রিস্টানদের অবস্থার কথা তুলবেন। তিনি নজফে গ্র্যান্ড আয়াতুল্লাহ সিস্তানির সঙ্গেও দেখা করবেন। সুন্নি ও ইয়াজিদিদের প্রতিনিধিদের সঙ্গেও কথা বলবেন।

সূত্র : বিবিসি 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা